০৪:২৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সভায় তালুকদার আব্দুল খালেক

উন্নয়ন ও গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় নির্বাচনে বিজয় অর্জনের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে

###    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, আগামী ১২ জুন খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হলো জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এসিড টেস্ট। এই নির্বাচনে বিজয় অর্জন করতে পারলে জাতীয় সংসদ নির্বাচন আমাদের জন্য অনেক সহজ হবে। সেজন্য উন্নয়ন ও গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় কেসিসি নির্বাচনে বিজয় অর্জনের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে। তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াতকে সাথে নিয়ে এ নির্বাচন বির্তকিত করার নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তাদের সকল অপরাজনীতি ও ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হলে দরকার ঐক্যবদ্ধ সংগঠন। আর ঐক্যবদ্ধ সংগঠন মানেই হচ্ছে শক্তিশালী সংগঠন। তাই আজ থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সকল নেতৃবৃন্ধদের দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রেখে তৃণমূল পর্যায়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।ৃ মেয়র আরো বলেন, নির্বাচনে বিজয় অর্জন করার পূর্ব শর্ত হলো সংগঠনকে শক্তিশালী করা। সংগঠন শক্তিশালী হলে কোন অপশক্তি আমাদের ধারে কাছে আসতে পারবে না। আর সংগঠন দুর্বল হলে কোন অবস্থাতেই কাঙ্খিত লক্ষে পৌছানো যাবে না। তাই নিজেদেও ঐক্যবদ্ধ করে সংগঠনকে শক্তিশালী করেতে হবে। তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এখন থেকে নিজ নিজ ওয়ার্ডে কাজ করতে হবে। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করে সেন্টার কমিটিতে নিজেদেও নাম অর্ন্তভ’ক্ত করতে হবে। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে। কেউ নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র করলে তাকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় নির্বাচনকে এগিয়ে নিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।আজ শুক্রবার বিকাল সাড়ে চারটায় নগরীর শঙ্খ মার্কেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এম. এ নাসিম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস. এম আসাদুজ্জামান রাসেলে সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মী সভা বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা এবং খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মুন্সী মাহাবুব আলম সোহাগ। এসময় অন্যান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর ইসলাম বন্দ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা গোলাম রব্বানী টিপু, গোলাম মাওলা টিংকু, মোঃ মাসুম বিল্লাহ, মোঃ মোজাহার হোসেন মোজ, কাজী ইউসুফ আলী মন্টু, মোঃ কামরুল ইসলাম, মোঃ রাজিব হোসাইন, মোঃ আকরাম হোসেন, মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, ইদ্রিস আলী, গাজী মোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ শরিফুল ইসলাম প্রিন্স, মোস্তাফিজুর রহমান কামাল, আশরাফুল আলম বাবু, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, মোঃ নজরুল ইসলাম নবী, এস.এম. নুর হাসান জনি, মিঠু দে, মোঃ শাহারিয়ার মাহামুদ রিয়াদ, মোঃ তাজমুল হক তাজু, আসিফ ইকবাল সবুজ, মোঃ নাসির উদ্দীন, মোঃ ইসমাঈল হোসেন ইমন, মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন মোল্ল্যা, মোঃ শাহরিয়ান নেওয়াজ (রাব্বি), গোলাম রব্বানী মামুন, এস.এম. মোঃ শফিকুল ইসলাম অভি, মোঃ বুলবুল আহম্মেদ, মোঃ জাহাঙ্গীর হাসান, আসাদুল ইসলাম সানি, আকরাম হোসেন, রুপম তালুকদার, মারুফ হোসেন, মোঃ বায়োজিত হোসেন, মোঃ রবিউল ইসলাম প্রিন্স, সংকর কুন্ড, ফাহিদ হোসেন ঐশর্য, মোঃ দিদারুল আলম, মোঃ কবির হোসেন, রবিন ধন, আতিকুর রহমান সোহাগ, শেখ আরিফুল ইসলাম অনিক, মোঃ সালমান জাহান, মোঃ ফরিদুজ্জামান, মোঃ রায়হান উদ্দীন, সেলিম মৃধা, তাপস রায় চৌধুরী, সাকিব হাসান, নাজমুল হক, আবুল বাশার খোকন, মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন পিয়াল, শ্যামল দত্ত, কাজী মোঃ জায়েদুল ইসলাম জনি, মোঃ হাফিজুল ইসলাম, মোঃ আসাদুজ্জামান লিপন, মোঃ জিয়া উদ্দীন মল্লিক তাজু, মোঃ হাফিজুর রহমান সুমন, মোঃ রফিকুল ইসলাম শাওন, মোঃ শহিদুল ইসলাম, আরিফুল ইসলাম অনিক, মোঃ শাহীন আলম, মোঃ রফিকুল রহমান মারুফ, মোঃ ইব্রাহীম মোড়ল, শেখ ইমরান হোসেন, রুপম তালুকদার, জাহিদুল ইসলাম, সোহাগ হোসেইন, মোঃ আনিস,কবির হোসেন, মোঃ বাপ্পি, রাম মোহন, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, মোঃ মারুফ, জাকির হোসেন খোকা, মোঃ রুবেল, মাসুদ চৌধুরি, সাব্বির আহমেদ, রানা খান, আরিফুল ইসলাম রাসেল, হুমায়ুন শিকদার, সজিব হাওলাদার, সৈকত, রিপানুজ্জামান রিপন, মোঃ সোহেল রানা, মোঃ হাবিবুর রহমান, মোঃ সোহেল মিয়া, মোঃ সোহাগ গাজী, মোঃ নাইম দেওয়ান, কাজী তাসকিন আহম্মেদ শরীফ, সাব্বির আহম্মেদ, ইজাজুল ইসলাম, এ.কে.এম. জান্নাতুল ফেরদৌস, মোঃ রিপনুজ্জামান রিপন, মোঃ কবির হোসেন, মোঃ মাহাবুব, মোঃ মাসুদ চৌধুরী, মোঃ নাছির মৃধা, মোঃ আনিস শেখ, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, শেখ নিয়াজ মোর্শেদ, মোঃ সম্রাট হাওলাদার, আবুল কালাম খন্দকার, নওয়াব আহম্মেদ, মোঃ হারুন-অর-রশিদ, হাফেজ মোঃ আশিকুর রহমান, মোঃ মারুফ খান, লিটন মাহামুদ, দিদারুল আলম, মোঃ নাসির উদ্দিন, সুরভী লাইজু, মোঃ শাহরিয়ান নেওয়াজ রাব্বি, মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ রফিকুল ইসলাম কাজল, মোঃ মারুফ চৌধুরী রিমন, মুন্সি সালাউদ্দিন, নাসির উদ্দীন, মোঃ ছাইদ, মোঃ রফিকুল ইসলাম রাসেল, মোঃ হাসিব হোসেন, মোঃ নাঈম হাসান, মাফুজুর রহমান জনি, নুর মোহাম্মদ ময়না, মোঃ হাসান মোল্লা, আরিফুল ইসলাম অনি, কাজী মোঃ জায়েনুর ইসলাম, মোঃ খান আজিম হিজল, তানভীর ইসলাম সাব্বির, রফিকুর রহমান মারুফ,  লিটন মাহামুদ,মোঃ জুবাযের হোসেন (জনি), মীর রবিউল আলম, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, আতিকুর রহমান সোহাগ, মোঃ হাফিজুর রহমান, অনিক মোড়ল, মোহাম্মাদ ইসমাইল সুমন, মোঃ ইমরুল শেখ, গফফার মোড়ল, মোঃ বাদল, মোঃ রফিক, মোঃ নাছির শেখ, মোঃ মানিক, মোঃ রাজিব মোল্লা, মোঃ হানিফ শেখ, শেখ শেখ মাহামুদ, সৈয়দ জাহিদুজ্জামান জাহিদ, ফারুক মুন্সি, গাজী সোহেল কবির, মোঃ মামুন শেখ, সুব্রত মিস্ত্রি, সিরাজুল ইসলাম অপু ইব্রাহীম গাজী, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মোঃ হিরোজ সরদার, গাজী রিপন, শখ মোঃ কিবরিয়া, শেখ ইমরান, রাকিব হাসান তুষার, তানভির ইসলাম সাব্বির, মোঃ নয়ন সরদার, মোঃ জাহাঙ্গীর হাসান, রাব্বি রানা, ইমতিয়াজ হাসান রানা, মোঃ জুয়েল শেখ, মোঃ ইব্রাহীম শেখ, মোঃ শরিফুল ইসলাম বাবু, শেখ ইসরাফিল, আলোক বিশ্বাস, নুর ইসলাম খান বিপ্লব প্রমুখ্য।
কর্মী সভা শেষ জাতির পিতা বঙ্গবন্দু শেখ মুজিবুর রহমানের দ্বিতীয় পুত্র, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ জামাল এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য ও খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. চিশতী সোহরাব হোসেন শিকদার এর রূহের মাগফেরাত কামনা কওে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

গলাচিপায় অবৈধ দোকান উচ্ছেদের মাধ্যমে রাস্তা উন্মুক্ত করায় প্রসংশিত মেয়র

নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সভায় তালুকদার আব্দুল খালেক

উন্নয়ন ও গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় নির্বাচনে বিজয় অর্জনের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে

প্রকাশিত সময় : ০৯:২২:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩

###    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, আগামী ১২ জুন খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হলো জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এসিড টেস্ট। এই নির্বাচনে বিজয় অর্জন করতে পারলে জাতীয় সংসদ নির্বাচন আমাদের জন্য অনেক সহজ হবে। সেজন্য উন্নয়ন ও গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় কেসিসি নির্বাচনে বিজয় অর্জনের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে। তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াতকে সাথে নিয়ে এ নির্বাচন বির্তকিত করার নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তাদের সকল অপরাজনীতি ও ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হলে দরকার ঐক্যবদ্ধ সংগঠন। আর ঐক্যবদ্ধ সংগঠন মানেই হচ্ছে শক্তিশালী সংগঠন। তাই আজ থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সকল নেতৃবৃন্ধদের দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রেখে তৃণমূল পর্যায়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।ৃ মেয়র আরো বলেন, নির্বাচনে বিজয় অর্জন করার পূর্ব শর্ত হলো সংগঠনকে শক্তিশালী করা। সংগঠন শক্তিশালী হলে কোন অপশক্তি আমাদের ধারে কাছে আসতে পারবে না। আর সংগঠন দুর্বল হলে কোন অবস্থাতেই কাঙ্খিত লক্ষে পৌছানো যাবে না। তাই নিজেদেও ঐক্যবদ্ধ করে সংগঠনকে শক্তিশালী করেতে হবে। তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এখন থেকে নিজ নিজ ওয়ার্ডে কাজ করতে হবে। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করে সেন্টার কমিটিতে নিজেদেও নাম অর্ন্তভ’ক্ত করতে হবে। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রাখতে হবে। কেউ নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র করলে তাকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় নির্বাচনকে এগিয়ে নিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।আজ শুক্রবার বিকাল সাড়ে চারটায় নগরীর শঙ্খ মার্কেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
খুলনা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এম. এ নাসিম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস. এম আসাদুজ্জামান রাসেলে সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মী সভা বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা এবং খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মুন্সী মাহাবুব আলম সোহাগ। এসময় অন্যান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর ইসলাম বন্দ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা গোলাম রব্বানী টিপু, গোলাম মাওলা টিংকু, মোঃ মাসুম বিল্লাহ, মোঃ মোজাহার হোসেন মোজ, কাজী ইউসুফ আলী মন্টু, মোঃ কামরুল ইসলাম, মোঃ রাজিব হোসাইন, মোঃ আকরাম হোসেন, মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, ইদ্রিস আলী, গাজী মোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ শরিফুল ইসলাম প্রিন্স, মোস্তাফিজুর রহমান কামাল, আশরাফুল আলম বাবু, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, মোঃ নজরুল ইসলাম নবী, এস.এম. নুর হাসান জনি, মিঠু দে, মোঃ শাহারিয়ার মাহামুদ রিয়াদ, মোঃ তাজমুল হক তাজু, আসিফ ইকবাল সবুজ, মোঃ নাসির উদ্দীন, মোঃ ইসমাঈল হোসেন ইমন, মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন মোল্ল্যা, মোঃ শাহরিয়ান নেওয়াজ (রাব্বি), গোলাম রব্বানী মামুন, এস.এম. মোঃ শফিকুল ইসলাম অভি, মোঃ বুলবুল আহম্মেদ, মোঃ জাহাঙ্গীর হাসান, আসাদুল ইসলাম সানি, আকরাম হোসেন, রুপম তালুকদার, মারুফ হোসেন, মোঃ বায়োজিত হোসেন, মোঃ রবিউল ইসলাম প্রিন্স, সংকর কুন্ড, ফাহিদ হোসেন ঐশর্য, মোঃ দিদারুল আলম, মোঃ কবির হোসেন, রবিন ধন, আতিকুর রহমান সোহাগ, শেখ আরিফুল ইসলাম অনিক, মোঃ সালমান জাহান, মোঃ ফরিদুজ্জামান, মোঃ রায়হান উদ্দীন, সেলিম মৃধা, তাপস রায় চৌধুরী, সাকিব হাসান, নাজমুল হক, আবুল বাশার খোকন, মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন পিয়াল, শ্যামল দত্ত, কাজী মোঃ জায়েদুল ইসলাম জনি, মোঃ হাফিজুল ইসলাম, মোঃ আসাদুজ্জামান লিপন, মোঃ জিয়া উদ্দীন মল্লিক তাজু, মোঃ হাফিজুর রহমান সুমন, মোঃ রফিকুল ইসলাম শাওন, মোঃ শহিদুল ইসলাম, আরিফুল ইসলাম অনিক, মোঃ শাহীন আলম, মোঃ রফিকুল রহমান মারুফ, মোঃ ইব্রাহীম মোড়ল, শেখ ইমরান হোসেন, রুপম তালুকদার, জাহিদুল ইসলাম, সোহাগ হোসেইন, মোঃ আনিস,কবির হোসেন, মোঃ বাপ্পি, রাম মোহন, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, মোঃ মারুফ, জাকির হোসেন খোকা, মোঃ রুবেল, মাসুদ চৌধুরি, সাব্বির আহমেদ, রানা খান, আরিফুল ইসলাম রাসেল, হুমায়ুন শিকদার, সজিব হাওলাদার, সৈকত, রিপানুজ্জামান রিপন, মোঃ সোহেল রানা, মোঃ হাবিবুর রহমান, মোঃ সোহেল মিয়া, মোঃ সোহাগ গাজী, মোঃ নাইম দেওয়ান, কাজী তাসকিন আহম্মেদ শরীফ, সাব্বির আহম্মেদ, ইজাজুল ইসলাম, এ.কে.এম. জান্নাতুল ফেরদৌস, মোঃ রিপনুজ্জামান রিপন, মোঃ কবির হোসেন, মোঃ মাহাবুব, মোঃ মাসুদ চৌধুরী, মোঃ নাছির মৃধা, মোঃ আনিস শেখ, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, শেখ নিয়াজ মোর্শেদ, মোঃ সম্রাট হাওলাদার, আবুল কালাম খন্দকার, নওয়াব আহম্মেদ, মোঃ হারুন-অর-রশিদ, হাফেজ মোঃ আশিকুর রহমান, মোঃ মারুফ খান, লিটন মাহামুদ, দিদারুল আলম, মোঃ নাসির উদ্দিন, সুরভী লাইজু, মোঃ শাহরিয়ান নেওয়াজ রাব্বি, মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ রফিকুল ইসলাম কাজল, মোঃ মারুফ চৌধুরী রিমন, মুন্সি সালাউদ্দিন, নাসির উদ্দীন, মোঃ ছাইদ, মোঃ রফিকুল ইসলাম রাসেল, মোঃ হাসিব হোসেন, মোঃ নাঈম হাসান, মাফুজুর রহমান জনি, নুর মোহাম্মদ ময়না, মোঃ হাসান মোল্লা, আরিফুল ইসলাম অনি, কাজী মোঃ জায়েনুর ইসলাম, মোঃ খান আজিম হিজল, তানভীর ইসলাম সাব্বির, রফিকুর রহমান মারুফ,  লিটন মাহামুদ,মোঃ জুবাযের হোসেন (জনি), মীর রবিউল আলম, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, আতিকুর রহমান সোহাগ, মোঃ হাফিজুর রহমান, অনিক মোড়ল, মোহাম্মাদ ইসমাইল সুমন, মোঃ ইমরুল শেখ, গফফার মোড়ল, মোঃ বাদল, মোঃ রফিক, মোঃ নাছির শেখ, মোঃ মানিক, মোঃ রাজিব মোল্লা, মোঃ হানিফ শেখ, শেখ শেখ মাহামুদ, সৈয়দ জাহিদুজ্জামান জাহিদ, ফারুক মুন্সি, গাজী সোহেল কবির, মোঃ মামুন শেখ, সুব্রত মিস্ত্রি, সিরাজুল ইসলাম অপু ইব্রাহীম গাজী, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মোঃ হিরোজ সরদার, গাজী রিপন, শখ মোঃ কিবরিয়া, শেখ ইমরান, রাকিব হাসান তুষার, তানভির ইসলাম সাব্বির, মোঃ নয়ন সরদার, মোঃ জাহাঙ্গীর হাসান, রাব্বি রানা, ইমতিয়াজ হাসান রানা, মোঃ জুয়েল শেখ, মোঃ ইব্রাহীম শেখ, মোঃ শরিফুল ইসলাম বাবু, শেখ ইসরাফিল, আলোক বিশ্বাস, নুর ইসলাম খান বিপ্লব প্রমুখ্য।
কর্মী সভা শেষ জাতির পিতা বঙ্গবন্দু শেখ মুজিবুর রহমানের দ্বিতীয় পুত্র, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ জামাল এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য ও খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. চিশতী সোহরাব হোসেন শিকদার এর রূহের মাগফেরাত কামনা কওে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।