০৫:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৫:০০:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২
  • ৪১ পড়েছেন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে, কোনো দোকান বন্ধ থাকবে না।
আজ বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে দেশের হাসপাতালের সেবা কার্যক্রম-সংক্রান্ত সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিটি করপোরেশনের সঙ্গে আলোচনা চলছে। রাত ১২টায় ওষুধের দোকান বন্ধের কোনো নির্দেশ আমরা দেইনি। ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে মেডিকেল শিক্ষা ও সেবার মান নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। মেডিকেল কলেজ শিক্ষা কার্যক্রম আন্তর্জাতিক মানের করা হচ্ছে। সাবজেক্ট হিসেবে যোগ করা হয়েছে, রোগীর সাথে কিভাবে ভালো ব্যবহার করা হবে, উন্নত চিকিৎসা দেয়া যায়, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয় যোগ করা হয়েছে। শিক্ষকের হার অনেক কম। অধ্যাপককের তুলনায় অর্ধেক। এটা পূরণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা বুঝিয়েছে স্বাস্থ্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থীদের আসন সংখ্যা বাড়ানো হবে সরকারি ও বেসরকারি কলেজে। রিসার্চের উপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। ১০০ কোটি টাকা বাজেটে ধরা হয়েছে।
সভায় স্বাস্থ্য শিক্ষার সচিব ও অন্যান্য মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষরা উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত 

ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত সময় : ০৫:০০:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে, কোনো দোকান বন্ধ থাকবে না।
আজ বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে দেশের হাসপাতালের সেবা কার্যক্রম-সংক্রান্ত সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিটি করপোরেশনের সঙ্গে আলোচনা চলছে। রাত ১২টায় ওষুধের দোকান বন্ধের কোনো নির্দেশ আমরা দেইনি। ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে মেডিকেল শিক্ষা ও সেবার মান নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। মেডিকেল কলেজ শিক্ষা কার্যক্রম আন্তর্জাতিক মানের করা হচ্ছে। সাবজেক্ট হিসেবে যোগ করা হয়েছে, রোগীর সাথে কিভাবে ভালো ব্যবহার করা হবে, উন্নত চিকিৎসা দেয়া যায়, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয় যোগ করা হয়েছে। শিক্ষকের হার অনেক কম। অধ্যাপককের তুলনায় অর্ধেক। এটা পূরণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা বুঝিয়েছে স্বাস্থ্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থীদের আসন সংখ্যা বাড়ানো হবে সরকারি ও বেসরকারি কলেজে। রিসার্চের উপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। ১০০ কোটি টাকা বাজেটে ধরা হয়েছে।
সভায় স্বাস্থ্য শিক্ষার সচিব ও অন্যান্য মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষরা উপস্থিত ছিলেন।