০৫:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কবিগুরু বেঁচে থাকলে বাংলা ভাগ হতো না

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৮:১৮:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মে ২০২৩
  • ২২ পড়েছেন

###   বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে রূপান্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, শুধুমাত্র সাহিত্য সৃষ্টিতেই আটকে ছিলেন না কবিগুরু। তিনি সমাজ উন্নয়নে, সমাজ সংস্কারে একজন মহামানব হিসেবে কাজ করেছেন। গ্রামীণ মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তিতে সমবায় ব্যাংক করেছেন, বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছেন, আধুনিক চাষাবাদ ব্যবস্থা প্রবর্তনে ভূমিকা পালন করেছেন। ১৯০৫ সালের বঙ্গভঙ্গ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন, বঙ্গভঙ্গ রোধ করেছেন। তিনি আর পাঁচটি বছর বেঁচে থাকলে বাংলাকে খণ্ডিত করা সম্ভব হতো না। সোমবার বিকেলে নগরীর শিরিশনগরস্থ রূপান্তর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে রবীন্দ্র জয়ন্ত উপলক্ষে এক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রূপান্তর-এর নির্বাহী পরিচালক স্বাপন কুমার গুহ’র সভাপতিত্বে এবং রূপান্তর থিয়েটারের অপারেশনাল কোঅর্ডিনেটর আখতারুন্নেছা নিশার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে বক্তৃতা করেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদির, রূপান্তর থিয়েটারের পরিচালক মিজানুর রহমান পান্না, রূপান্তর পরিচালিত পিস কন্সোর্টিয়ামের প্রকল্প পরিচালক শাহাদত হোসেন বাচ্চু, রূপান্তর-এর কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাস, তথ্য কর্মকর্তা মোঃ আঃ হালিম। অনুষ্ঠানে রূপান্তর থিয়েটারের শিল্পীবৃন্দ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, জাতির দুঃসময়ে, সুসময়ে রবীন্দ্রনাথকে আঁকড়ে ধরতে হবে। বাধা অতিক্রমে, এগিয়ে চলার পথে বিশ^কবি চিরকাল আমাদের অনুপ্রেরণা। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

দশমিনায় পরীক্ষায় অসৎ উপায় অবলম্বন করায় দুই শিক্ষার্থী বহিস্কার

কবিগুরু বেঁচে থাকলে বাংলা ভাগ হতো না

প্রকাশিত সময় : ০৮:১৮:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মে ২০২৩

###   বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে রূপান্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, শুধুমাত্র সাহিত্য সৃষ্টিতেই আটকে ছিলেন না কবিগুরু। তিনি সমাজ উন্নয়নে, সমাজ সংস্কারে একজন মহামানব হিসেবে কাজ করেছেন। গ্রামীণ মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তিতে সমবায় ব্যাংক করেছেন, বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছেন, আধুনিক চাষাবাদ ব্যবস্থা প্রবর্তনে ভূমিকা পালন করেছেন। ১৯০৫ সালের বঙ্গভঙ্গ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন, বঙ্গভঙ্গ রোধ করেছেন। তিনি আর পাঁচটি বছর বেঁচে থাকলে বাংলাকে খণ্ডিত করা সম্ভব হতো না। সোমবার বিকেলে নগরীর শিরিশনগরস্থ রূপান্তর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে রবীন্দ্র জয়ন্ত উপলক্ষে এক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রূপান্তর-এর নির্বাহী পরিচালক স্বাপন কুমার গুহ’র সভাপতিত্বে এবং রূপান্তর থিয়েটারের অপারেশনাল কোঅর্ডিনেটর আখতারুন্নেছা নিশার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে বক্তৃতা করেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদির, রূপান্তর থিয়েটারের পরিচালক মিজানুর রহমান পান্না, রূপান্তর পরিচালিত পিস কন্সোর্টিয়ামের প্রকল্প পরিচালক শাহাদত হোসেন বাচ্চু, রূপান্তর-এর কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাস, তথ্য কর্মকর্তা মোঃ আঃ হালিম। অনুষ্ঠানে রূপান্তর থিয়েটারের শিল্পীবৃন্দ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, জাতির দুঃসময়ে, সুসময়ে রবীন্দ্রনাথকে আঁকড়ে ধরতে হবে। বাধা অতিক্রমে, এগিয়ে চলার পথে বিশ^কবি চিরকাল আমাদের অনুপ্রেরণা। ##