০৫:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেউ অত্যাচার-নির্যাতন করে টিকে পারেনি-এই সরকারও পারবে না : বিএনপি

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:০৭:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৪৫ পড়েছেন

###    খুলনা মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ বলেছেন,বিএনপি জনগণের দাবি নিয়ে যখনই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিচ্ছে ঠিক সেই মূহুর্তে একই স্থানে বর্তমান ফ্যাসিবাদী শাসকগোষ্ঠী পাল্টা কর্মসূচি দিয়ে সন্ত্রাসকে উসকে দিয়ে দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে চায়। চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে বাধাগ্রস্থ করতে বর্তমান আওয়ামী সরকার ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ে শান্তিপূর্ণ পদযাত্রাকে বানচাল করতে দলীয় সন্ত্রাসী ও কিছু সংখ্যক পুলিশেকে লেলিয়ে দিয়েছিল। আওয়ামী সন্ত্রাসী ও পুলিশি হামলা সত্ত্বেও গণতন্ত্রকামী জনতা সরকারের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে রাজপথে এসে কর্মসূচি সফল করে প্রমাণ করেছে, এ সরকার জনবিচ্ছিন্ন। হামলা-মামলা আর নির্যাতনের মাত্রা যত বাড়বে, সরকারের বিদায় ঘন্টা ততই ত্বরান্বিত হবে।
সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪টায় কেডি ঘোষ রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ে গ্যাস, বিদ্যুৎ, চাল, ডাল, তেল, আটাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও সার, ডিজেলসহ কৃষি উপকরণের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফা দাবিতে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মহানগর বিএনপির পদযাত্রা সফল করতে এক প্রস্তুতি সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিনের পরিচালনায় প্রস্তুতি সভায় বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামী সন্ত্রাসী ও পুলিশি হামলা সত্ত্বেও গণতন্ত্রকামী জনতা সরকারের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে রাজপথে এসে কর্মসূচি সফল করে প্রমাণ করেছে, এ সরকার জনবিচ্ছিন্ন। যুগে যুগে কোনো অত্যাচারী সরকার জুলুম, নির্যাতন করে টিকে থাকতে পারেনি, এই সরকারও পারবে না। সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি নেতা স ম আ. রহমান, সৈয়দা রেহেনা ঈসা, আবুল কালাম জিয়া, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, একরামুল হক হেলাল, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, আ. রাজ্জাক, হাফিজুর রহমান মনি, বেগ তানভিরুল আজম, শাহিনুল ইসলাম পাখি, মুরশিদ কামাল, অ্যাডভোকেট মাসুম রশিদ, কে এম হুমায়ুন কবির, সৈয়দ সাজ্জাদ আহসান পরাগ, কাজী মিজানুর রহমান, জহর মীর, নাজির উদ্দিন নান্নু, শেখ ইমাম হোসেন, হাবিব বিশ্বাস, আহসান উল্লাহ বুলবুল, অ্যাডভোকেট মো. আলী বাবু, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, আব্দুস সালাম, আলমগীর হোসেন, কাজী শাহনেওয়াজ নিরু, মো. জাহিদ হোসেন, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, জালাল উদ্দিন জালু মিয়া, সরদার শফিকুল আমিন লাভলু,এমদাদ হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, কাজী কামরুল ইসলাম বাবু, মেশকাত আলী, জাহিদুল ইসলাম, শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন, হায়দার আলী তরফদার, মো. শহিদ খান, ইকবাল হোসেন মিজান, লিটন খান, শেখ হাবিবুর রহমান হাবীব, আবু ওয়ারা, শেখ আরশাদ আলী, মনিরুজ্জামান মনি, বাবু মোড়ল, মাহবুব উল্লাহ শামীম, কে এম মাহবুবুল আলম, কামরুজ্জামান রুনু, মঞ্জুরুল আলম, আসাদুজ্জামান লিটন, কাজী সাইফুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মনির, মাজেদুল হক
মাজেদ, মো. নজরুল ইসলাম, মোল্লা সালাউদ্দিন বুলবুল, সওগাদুল ইসলাম সগির, মো. সরোয়ার শিকদার, মাসুদ খান, নেহিবুল ইসলাম নেহিম, শফিকুল ইসলাম শাহিন, ইশতিয়াক আহমেদ ইস্তি, আবু সাঈদ, এড. কানিজ ফাতেমা আমিন, আব্দুল আজিজ সুমন, রেজাউল করিম রেজা, ইউসুফ মোল্লা, মোন্তাসির আল মামুন, সাইফুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান নোমান, আসাদুজ্জামান রাজু, সাজ্জাত হোসেন জিতু, তানভীর আহমেদ, মোল্লা আরিফুল ইসলাম, সত্যনন্দ দত্ত, এস এম মুরাদ হোসেন প্রমূখ। সভা থেকে খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, কেন্দ্রীয় বিএনপির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, জেলা বিএনপির  আমীর এজাজ খানসহ বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে বানোয়াট মামলা দায়ের করায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। সভা থেকে বিএনপির মহানগর আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার ছোটভাই এস এম মহিউদ্দীনের আশুরোগ মুক্তি কামনা করা হয়। সভা থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারির মহানগীর পদযাত্রা কর্মসুচি সফল করতে প্রতিটি থানা, ওয়ার্ডে প্রস্তুতি সভা করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। #

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক একীভূতকরণের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন, ষড়যন্ত্রমূলক অপতৎপরতা রুখে দাড়ানোর আহবান

কেউ অত্যাচার-নির্যাতন করে টিকে পারেনি-এই সরকারও পারবে না : বিএনপি

প্রকাশিত সময় : ০৯:০৭:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###    খুলনা মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ বলেছেন,বিএনপি জনগণের দাবি নিয়ে যখনই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিচ্ছে ঠিক সেই মূহুর্তে একই স্থানে বর্তমান ফ্যাসিবাদী শাসকগোষ্ঠী পাল্টা কর্মসূচি দিয়ে সন্ত্রাসকে উসকে দিয়ে দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে চায়। চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে বাধাগ্রস্থ করতে বর্তমান আওয়ামী সরকার ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ে শান্তিপূর্ণ পদযাত্রাকে বানচাল করতে দলীয় সন্ত্রাসী ও কিছু সংখ্যক পুলিশেকে লেলিয়ে দিয়েছিল। আওয়ামী সন্ত্রাসী ও পুলিশি হামলা সত্ত্বেও গণতন্ত্রকামী জনতা সরকারের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে রাজপথে এসে কর্মসূচি সফল করে প্রমাণ করেছে, এ সরকার জনবিচ্ছিন্ন। হামলা-মামলা আর নির্যাতনের মাত্রা যত বাড়বে, সরকারের বিদায় ঘন্টা ততই ত্বরান্বিত হবে।
সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪টায় কেডি ঘোষ রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ে গ্যাস, বিদ্যুৎ, চাল, ডাল, তেল, আটাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও সার, ডিজেলসহ কৃষি উপকরণের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফা দাবিতে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মহানগর বিএনপির পদযাত্রা সফল করতে এক প্রস্তুতি সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিনের পরিচালনায় প্রস্তুতি সভায় বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামী সন্ত্রাসী ও পুলিশি হামলা সত্ত্বেও গণতন্ত্রকামী জনতা সরকারের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে রাজপথে এসে কর্মসূচি সফল করে প্রমাণ করেছে, এ সরকার জনবিচ্ছিন্ন। যুগে যুগে কোনো অত্যাচারী সরকার জুলুম, নির্যাতন করে টিকে থাকতে পারেনি, এই সরকারও পারবে না। সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি নেতা স ম আ. রহমান, সৈয়দা রেহেনা ঈসা, আবুল কালাম জিয়া, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, একরামুল হক হেলাল, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, আ. রাজ্জাক, হাফিজুর রহমান মনি, বেগ তানভিরুল আজম, শাহিনুল ইসলাম পাখি, মুরশিদ কামাল, অ্যাডভোকেট মাসুম রশিদ, কে এম হুমায়ুন কবির, সৈয়দ সাজ্জাদ আহসান পরাগ, কাজী মিজানুর রহমান, জহর মীর, নাজির উদ্দিন নান্নু, শেখ ইমাম হোসেন, হাবিব বিশ্বাস, আহসান উল্লাহ বুলবুল, অ্যাডভোকেট মো. আলী বাবু, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, আব্দুস সালাম, আলমগীর হোসেন, কাজী শাহনেওয়াজ নিরু, মো. জাহিদ হোসেন, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, জালাল উদ্দিন জালু মিয়া, সরদার শফিকুল আমিন লাভলু,এমদাদ হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, কাজী কামরুল ইসলাম বাবু, মেশকাত আলী, জাহিদুল ইসলাম, শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন, হায়দার আলী তরফদার, মো. শহিদ খান, ইকবাল হোসেন মিজান, লিটন খান, শেখ হাবিবুর রহমান হাবীব, আবু ওয়ারা, শেখ আরশাদ আলী, মনিরুজ্জামান মনি, বাবু মোড়ল, মাহবুব উল্লাহ শামীম, কে এম মাহবুবুল আলম, কামরুজ্জামান রুনু, মঞ্জুরুল আলম, আসাদুজ্জামান লিটন, কাজী সাইফুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মনির, মাজেদুল হক
মাজেদ, মো. নজরুল ইসলাম, মোল্লা সালাউদ্দিন বুলবুল, সওগাদুল ইসলাম সগির, মো. সরোয়ার শিকদার, মাসুদ খান, নেহিবুল ইসলাম নেহিম, শফিকুল ইসলাম শাহিন, ইশতিয়াক আহমেদ ইস্তি, আবু সাঈদ, এড. কানিজ ফাতেমা আমিন, আব্দুল আজিজ সুমন, রেজাউল করিম রেজা, ইউসুফ মোল্লা, মোন্তাসির আল মামুন, সাইফুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান নোমান, আসাদুজ্জামান রাজু, সাজ্জাত হোসেন জিতু, তানভীর আহমেদ, মোল্লা আরিফুল ইসলাম, সত্যনন্দ দত্ত, এস এম মুরাদ হোসেন প্রমূখ। সভা থেকে খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, কেন্দ্রীয় বিএনপির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, জেলা বিএনপির  আমীর এজাজ খানসহ বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে বানোয়াট মামলা দায়ের করায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। সভা থেকে বিএনপির মহানগর আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার ছোটভাই এস এম মহিউদ্দীনের আশুরোগ মুক্তি কামনা করা হয়। সভা থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারির মহানগীর পদযাত্রা কর্মসুচি সফল করতে প্রতিটি থানা, ওয়ার্ডে প্রস্তুতি সভা করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। #