১০:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেএমপির অভিযানে ডাকাতির মালামাল ও দেশী অস্ত্রসহ  ০২ ডাকাত গ্রেফতার

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:১১:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৪০ পড়েছেন

###    কেএমপির অভিযানে ডাকাতির মালামাল ০১টি লাল রংয়ের FZ-3 মোটরসাইকেল, নগদ ৫লাখ ৩০হাজার) টাকা, ০১ টি হাতুড়ী, ০১ টি ছেনি এবং ০৩ টি ছোরাসহ ০২ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত্তে খুলনা থানার অফিসার ইনচার্জ-এর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে লবনচরা থানার বান্দাবাজার এলাকা থেকে মামলার আসামী ইসলামপাড়া আমতলা মোড় রশিদ সাহেবের বাড়ির ভাড়াটিয়া এবং মির্জাগঞ্জ উপজেলার গাবুয়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে মোঃ হাসান শেখকে গ্রেফতার করে। পরে তার কাছ থেকে ডাকাতি হওয়া ৫লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়। এরআগে পৃথক অভিযান চালিয়ে খুলনা থানার রুপসা স্ট্যান্ড রোডস্থ বাংলাদেশ ম্যাচ কোম্পানী লিমিটেডের বন্ধ গেটের সামনে থেকে প্রধান আসামী ভান্ডারিয়ার মদমোল্লা মাঝিবাড়ি এলাকার হুমায়ুন কবির মাঝির ছেলে মোঃ সুমন মাঝিকে আটক করে। এ সময় তার কাছ থেকে ০১টি লাল রংয়ের FZ-3 মটরসাইকেল, একটি হাতুড়ী; একটি ছেনি; তিনটি ছোরা এবং নগদ ৩০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও গত ৯ফেব্রুয়ারী ডাকাতি মামলার আসামী মোঃ ইউনুচ হাওলাদার ওরফে বস কালুকে চাঁনমারী এলাকা থেকে এবং রুপসা ট্রাফিক মোড় থেকে আসামী আবুল কালাম আজাদ(৫৪) কে আটক করা হয়। উল্লেখ্য, গত ২৯ জানুয়ারি বিকালে খুলনা নগরীর ৩৯, সাউথ সেন্ট্রাল রোডের এসএম আসাদুজ্জামান তরুর তিন তলার বসত বাড়ীতে অজ্ঞাতনামা ০৬ জন বাড়ীর সীমানা প্রাচীরের উপর দিয়ে ২য় তলার বেলকুনিতে উঠে গ্রীলের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে ডাকাতি করে। এ সময় ঘরে থাকা বাড়ীর মালিক এসএম আসাদুজ্জামান তরুর বোন লতিফুর নেছা পারু(৫৫), তার ছেলে এস এম নাসিমুজ্জামান(২৬) এবং বাড়ীর দারোয়ান অজয়(৫৫)কে হাত, পা রশি দিয়ে এবং মুখ কাপড় বেঁধে রুমের ভিতর আটকে রেখে আলমারি থেকে স্বর্ণের চেইন ০২টি, স্বর্ণের আংটি ০২টি, স্বর্ণের কানের দুল ০১টি, স্বর্ণের হাতের বালা ০১জোড়া, ডায়মন্ডের নেকলেস ০১টি, নগদ ২০লক্ষ টাকা এবং বাসার সিঁড়ি ঘরে থাকা একটি FZ লাল রংয়ের মোটর সাইকেল যার রেজিঃ নং-খুলনা মেট্রো-ল-১৩-৪১১১সহ সর্বমোট ২৯লক্ষ টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় খুলনা থানায় ২৯জানুয়ারী মামলা দায়ের করা হয়ে। মামলাটি খুলনা থানার এসআই মোঃ সাইদুর রহমান তদন্ত করছেন। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম

কেএমপির অভিযানে ডাকাতির মালামাল ও দেশী অস্ত্রসহ  ০২ ডাকাত গ্রেফতার

প্রকাশিত সময় : ০৯:১১:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###    কেএমপির অভিযানে ডাকাতির মালামাল ০১টি লাল রংয়ের FZ-3 মোটরসাইকেল, নগদ ৫লাখ ৩০হাজার) টাকা, ০১ টি হাতুড়ী, ০১ টি ছেনি এবং ০৩ টি ছোরাসহ ০২ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত্তে খুলনা থানার অফিসার ইনচার্জ-এর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে লবনচরা থানার বান্দাবাজার এলাকা থেকে মামলার আসামী ইসলামপাড়া আমতলা মোড় রশিদ সাহেবের বাড়ির ভাড়াটিয়া এবং মির্জাগঞ্জ উপজেলার গাবুয়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে মোঃ হাসান শেখকে গ্রেফতার করে। পরে তার কাছ থেকে ডাকাতি হওয়া ৫লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়। এরআগে পৃথক অভিযান চালিয়ে খুলনা থানার রুপসা স্ট্যান্ড রোডস্থ বাংলাদেশ ম্যাচ কোম্পানী লিমিটেডের বন্ধ গেটের সামনে থেকে প্রধান আসামী ভান্ডারিয়ার মদমোল্লা মাঝিবাড়ি এলাকার হুমায়ুন কবির মাঝির ছেলে মোঃ সুমন মাঝিকে আটক করে। এ সময় তার কাছ থেকে ০১টি লাল রংয়ের FZ-3 মটরসাইকেল, একটি হাতুড়ী; একটি ছেনি; তিনটি ছোরা এবং নগদ ৩০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও গত ৯ফেব্রুয়ারী ডাকাতি মামলার আসামী মোঃ ইউনুচ হাওলাদার ওরফে বস কালুকে চাঁনমারী এলাকা থেকে এবং রুপসা ট্রাফিক মোড় থেকে আসামী আবুল কালাম আজাদ(৫৪) কে আটক করা হয়। উল্লেখ্য, গত ২৯ জানুয়ারি বিকালে খুলনা নগরীর ৩৯, সাউথ সেন্ট্রাল রোডের এসএম আসাদুজ্জামান তরুর তিন তলার বসত বাড়ীতে অজ্ঞাতনামা ০৬ জন বাড়ীর সীমানা প্রাচীরের উপর দিয়ে ২য় তলার বেলকুনিতে উঠে গ্রীলের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে ডাকাতি করে। এ সময় ঘরে থাকা বাড়ীর মালিক এসএম আসাদুজ্জামান তরুর বোন লতিফুর নেছা পারু(৫৫), তার ছেলে এস এম নাসিমুজ্জামান(২৬) এবং বাড়ীর দারোয়ান অজয়(৫৫)কে হাত, পা রশি দিয়ে এবং মুখ কাপড় বেঁধে রুমের ভিতর আটকে রেখে আলমারি থেকে স্বর্ণের চেইন ০২টি, স্বর্ণের আংটি ০২টি, স্বর্ণের কানের দুল ০১টি, স্বর্ণের হাতের বালা ০১জোড়া, ডায়মন্ডের নেকলেস ০১টি, নগদ ২০লক্ষ টাকা এবং বাসার সিঁড়ি ঘরে থাকা একটি FZ লাল রংয়ের মোটর সাইকেল যার রেজিঃ নং-খুলনা মেট্রো-ল-১৩-৪১১১সহ সর্বমোট ২৯লক্ষ টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় খুলনা থানায় ২৯জানুয়ারী মামলা দায়ের করা হয়ে। মামলাটি খুলনা থানার এসআই মোঃ সাইদুর রহমান তদন্ত করছেন। ##