১০:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাকেরগঞ্জ গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার হত্যা না আত্মহত্যা

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ১০:১০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ৯৭ পড়েছেন
বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি :
বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ ঘরের বারান্দা থেকে উদ্ধার করে বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশ।
বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে ইউপি সদস্য বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে এস আই শামিম সহ পুলিশ উদ্ধার করে।
জানা যায়, নলছিটি উপজেলার পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের সূর্যপাশা গ্রামের জব্বার হাওলাদারের কন্যা ফারজানা (২২) ও বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডে ইদ্রিস সিকদারের ছেলে মোটরসাইকেল চালক মোঃ সাইফুল সিকদার (২৮) এর সাথে ২০১৯ সালে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।
নিহতের পিতা জব্বার জানান, আমার একমাত্র কন্যা ফারজানার একটি দেড় বছর বয়সের শিশুপুত্র রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই জামাই ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছে।
মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে ৫০ হাজার টাকা তাকে দিয়েছি। গতকাল আমাকে ফোন করে ফারজানা টাকার জন্য কান্নাকাটি করেছে। আমি বিকালে ২ হাজার টাকা দিয়েছি। জামাইর চাহিদা মত টাকা না দেয়ায় আমার মেয়েকে নির্যাতন করে হত্যা করে ঝুলিয়ে রেখেছে।
বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলাউদ্দিন মিলন জানান, খবর পেয়ে ঘটনা স্থানে পুলিশ গিয়ে গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্বার করে থানায় নিয়ে এসেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম

বাকেরগঞ্জ গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার হত্যা না আত্মহত্যা

প্রকাশিত সময় : ১০:১০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি :
বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ ঘরের বারান্দা থেকে উদ্ধার করে বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশ।
বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে ইউপি সদস্য বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে এস আই শামিম সহ পুলিশ উদ্ধার করে।
জানা যায়, নলছিটি উপজেলার পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের সূর্যপাশা গ্রামের জব্বার হাওলাদারের কন্যা ফারজানা (২২) ও বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডে ইদ্রিস সিকদারের ছেলে মোটরসাইকেল চালক মোঃ সাইফুল সিকদার (২৮) এর সাথে ২০১৯ সালে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।
নিহতের পিতা জব্বার জানান, আমার একমাত্র কন্যা ফারজানার একটি দেড় বছর বয়সের শিশুপুত্র রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই জামাই ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছে।
মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে ৫০ হাজার টাকা তাকে দিয়েছি। গতকাল আমাকে ফোন করে ফারজানা টাকার জন্য কান্নাকাটি করেছে। আমি বিকালে ২ হাজার টাকা দিয়েছি। জামাইর চাহিদা মত টাকা না দেয়ায় আমার মেয়েকে নির্যাতন করে হত্যা করে ঝুলিয়ে রেখেছে।
বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলাউদ্দিন মিলন জানান, খবর পেয়ে ঘটনা স্থানে পুলিশ গিয়ে গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্বার করে থানায় নিয়ে এসেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।