০৫:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
কেসিসি নির্বাচন : *ফতোয়া দিয়ে নারীর মর্যাদা ক্ষুন্ন করে ভোটে তাদেরকে প্রত্যাখান করুন *নগরীতে নারীদের জন্য পৃথক মার্কেট করা হবে

কেসিসি নির্বাচনে মেয়রের পাশাপাশি এমপি নির্বাচনেও নৌকার পক্ষে ভোট চাইলেন তালুকদার খালেক

###      খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, নারীর ক্ষমতায়নে ও নারীদের উন্নয়নে শেখ হাসিনার সরকার সবচেয়ে বেশী অবদান রেখেছে। আওয়ামীলীগের সরকারের আমলেই প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদের স্পীকারসহ সবক্ষেত্রেই নারীকে সুযোগ দিয়ে নারী সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপি-জামায়াতসহ বেশ কিছু রাজনৈতিক দল ধর্মের দোহাই দিয়ে দেশের জনসংখ্যার অর্ধেকাংশ নারীর শিক্ষা, সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক স্বাবলম্বীতা ও ক্ষমতায়ন থেকে পিছিয়ে দিতে চায়। তারা ফতোয়া দিয়ে নারীর মর্যাদা ক্ষুন্ন করে ঘরে বন্দী করে রাখতে চায়। এসব রাজনৈতিক দল ও নেতাদের থেকে সাবধানে থেকে নিজেদের কাজ চালিয়ে যেতে হবে। শেখ হাসিনার সরকার যতদিন থাকবে নারীরা অধিকার ও ক্ষমতায়নের শীর্ষে অবস্থান করবে। তিনি আরও বলেন, খুলনায় অনেক নারী নিজের ‍উদ্যোগে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এটি দেশে একটি নজীর স্তাপন করছে। আগামীতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য পৃথক মার্কেট ও ব্যবসায়ের আধুনিক ব্যবস্থা তৈরী করা হবে। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনের পর জাতীয় সংসদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী অক্টোবরেই এমপি নির্বাচনের প্রস্তুতি ও তোড়জোড় শুরু হয়ে যাবে। যার মধ্য দিয়ে দেশের ক্ষমতার পালাবদল হয়ে থাকে। নারীর ক্ষমতায়ন, অধিকার ও উন্নয়ন-সমৃদ্ধির স্বার্থে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে পঞ্চমবারের মত প্রধানমন্ত্রী করতে হবে। যারা ফতোয়া দিয়ে নারীর উন্নয়ন, অধিকার ও ক্ষমতায়নের বিরোধীতা করছে তাদেরকে ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখান করে উচিত শিক্ষা দিতে হবে। তিনি কেসিসি নির্বাচনেও নারীর ক্ষমতায়ন ও অধিকারের পক্ষে নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করে নারীর মর্যাদার ও অধিকারের বিরোধীতাকারীদের কঠোর জবাব দেয়ার আহবান জানান। শনিবার বিকেলে জেলা আইনজীবি সমিতি মিলনায়তনে খুলনা নারী উদ্যোক্তা ফোরামের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। নারী উদ্যোক্তা ফোরামের নেত্রী আইরিন চৌধুরী নিপার সভাপতিত্বে ও চিমতী মুস্তারী বানুর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তৃতা করেন খুলনা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, খুলনা চেম্বারের পরিচালক মফিদুল ইসলাম টুটুল, নারী নেত্রী শামীমা ‍সুলতানা শিশু, এ্যাড. আব্দুল কাদেরসহ নারী উদ্যোক্তা ফোরামের সদস্যবৃন্দ। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

দশমিনায় পরীক্ষায় অসৎ উপায় অবলম্বন করায় দুই শিক্ষার্থী বহিস্কার

কেসিসি নির্বাচন : *ফতোয়া দিয়ে নারীর মর্যাদা ক্ষুন্ন করে ভোটে তাদেরকে প্রত্যাখান করুন *নগরীতে নারীদের জন্য পৃথক মার্কেট করা হবে

কেসিসি নির্বাচনে মেয়রের পাশাপাশি এমপি নির্বাচনেও নৌকার পক্ষে ভোট চাইলেন তালুকদার খালেক

প্রকাশিত সময় : ০৯:৩৩:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ জুন ২০২৩

###      খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, নারীর ক্ষমতায়নে ও নারীদের উন্নয়নে শেখ হাসিনার সরকার সবচেয়ে বেশী অবদান রেখেছে। আওয়ামীলীগের সরকারের আমলেই প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদের স্পীকারসহ সবক্ষেত্রেই নারীকে সুযোগ দিয়ে নারী সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপি-জামায়াতসহ বেশ কিছু রাজনৈতিক দল ধর্মের দোহাই দিয়ে দেশের জনসংখ্যার অর্ধেকাংশ নারীর শিক্ষা, সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক স্বাবলম্বীতা ও ক্ষমতায়ন থেকে পিছিয়ে দিতে চায়। তারা ফতোয়া দিয়ে নারীর মর্যাদা ক্ষুন্ন করে ঘরে বন্দী করে রাখতে চায়। এসব রাজনৈতিক দল ও নেতাদের থেকে সাবধানে থেকে নিজেদের কাজ চালিয়ে যেতে হবে। শেখ হাসিনার সরকার যতদিন থাকবে নারীরা অধিকার ও ক্ষমতায়নের শীর্ষে অবস্থান করবে। তিনি আরও বলেন, খুলনায় অনেক নারী নিজের ‍উদ্যোগে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এটি দেশে একটি নজীর স্তাপন করছে। আগামীতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য পৃথক মার্কেট ও ব্যবসায়ের আধুনিক ব্যবস্থা তৈরী করা হবে। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনের পর জাতীয় সংসদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী অক্টোবরেই এমপি নির্বাচনের প্রস্তুতি ও তোড়জোড় শুরু হয়ে যাবে। যার মধ্য দিয়ে দেশের ক্ষমতার পালাবদল হয়ে থাকে। নারীর ক্ষমতায়ন, অধিকার ও উন্নয়ন-সমৃদ্ধির স্বার্থে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে পঞ্চমবারের মত প্রধানমন্ত্রী করতে হবে। যারা ফতোয়া দিয়ে নারীর উন্নয়ন, অধিকার ও ক্ষমতায়নের বিরোধীতা করছে তাদেরকে ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখান করে উচিত শিক্ষা দিতে হবে। তিনি কেসিসি নির্বাচনেও নারীর ক্ষমতায়ন ও অধিকারের পক্ষে নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করে নারীর মর্যাদার ও অধিকারের বিরোধীতাকারীদের কঠোর জবাব দেয়ার আহবান জানান। শনিবার বিকেলে জেলা আইনজীবি সমিতি মিলনায়তনে খুলনা নারী উদ্যোক্তা ফোরামের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। নারী উদ্যোক্তা ফোরামের নেত্রী আইরিন চৌধুরী নিপার সভাপতিত্বে ও চিমতী মুস্তারী বানুর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তৃতা করেন খুলনা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, খুলনা চেম্বারের পরিচালক মফিদুল ইসলাম টুটুল, নারী নেত্রী শামীমা ‍সুলতানা শিশু, এ্যাড. আব্দুল কাদেরসহ নারী উদ্যোক্তা ফোরামের সদস্যবৃন্দ। ##