০৪:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুবির জীববিজ্ঞান স্কুলের ১২ শিক্ষার্থীকে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদান

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান স্কুলভুক্ত ৭টি ডিসিপ্লিনের মেধাবী শিক্ষার্থীদের ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদান এবং প্রাক্তন ডিনবৃন্দের বিদায় অনুষ্ঠান ০৬ মার্চ (সোমবার) আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র এবং প্রাক্তন ডিনদের সম্মাননা স্মারক তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।এ সময় তিনি বলেন, যেকোনা উন্নয়ন একজন চিন্তা করেন, একজন শুরু করেন, আরেকজন বাস্তবায়ন করেন। এইভাবেই মূলত অগ্রগতি অর্জিত হয়। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদানের উদ্যোগ ৪-৫ বছর আগে গ্রহণ করা হলেও তা এখন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এটা আশাব্যঞ্জক। তিনি ভবিষ্যতে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি বড় পরিসরে আয়োজন করার পরামর্শ দেন, যাতে করে এই স্কুলের সকল শিক্ষার্থী সেখানে উপস্থিত থাকতে পারে এবং এ থেকে অনুপ্রাণিত হয়। তিনি আরও বলেন, বর্তমান প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গবেষণা মনোযোগী করে তোলার জন্য মাস্টার্স, এমফিল ও পিএইচডি পর্যায়ে স্কলারশিপ চালু করেছে। এর একটি ইতিবাচক ফলাফল আমরা লক্ষ্য করছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ স্ব স্ব স্কুলের একাডেমিক নেতৃত্বে রয়েছেন এবং তাদের দিকনির্দেশনা ও সহযোগিতায় প্রত্যেক স্কুল শিক্ষা ও গবেষণায় সাফল্যের পথে আরও এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. আবুল কালাম আজাদ। অনুষ্ঠানে জীববিজ্ঞান স্কুলের প্রাক্তন ডিনবৃন্দ প্রফেসর ড. একে ফজলুল হক, প্রফেসর ড. মো. রায়হান আলী এবং প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুসকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রাক্তন ডিনদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন স্কুলের প্রফেসর ড. মো. রায়হান আলী ও প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস। অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের সজীব রায় এবং ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের মো. নাঈম হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. ইয়ামিন কবির। ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলো- ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মোসা. সানজিতা নাহার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৭৭), ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মোসা. আনিকা খাতুন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৯), বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের রাহাগির সালেকিন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৪), এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের সাদিয়া আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৫), এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের সজীব রায় (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৬), ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের মোসা. রেহেনা আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮১) এবং সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট ডিসিপ্লিনের শোভা আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৮)। ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলো- ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের জয়া বিশ্বাস (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৪), এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মো. নাঈম হক (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯১), এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের সুলতানা জাহান (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৩), ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের শাহানাজ পারভীন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৩) এবং সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট ডিসিপ্লিনের উম্মে নাঈমা আফরোজ (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৭৮)। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুলের ডিনবৃন্দ, ডিসিপ্লিন প্রধানবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ এবং অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

গলাচিপায় অবৈধ দোকান উচ্ছেদের মাধ্যমে রাস্তা উন্মুক্ত করায় প্রসংশিত মেয়র

খুবির জীববিজ্ঞান স্কুলের ১২ শিক্ষার্থীকে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদান

প্রকাশিত সময় : ০৭:৪৬:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান স্কুলভুক্ত ৭টি ডিসিপ্লিনের মেধাবী শিক্ষার্থীদের ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদান এবং প্রাক্তন ডিনবৃন্দের বিদায় অনুষ্ঠান ০৬ মার্চ (সোমবার) আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র এবং প্রাক্তন ডিনদের সম্মাননা স্মারক তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।এ সময় তিনি বলেন, যেকোনা উন্নয়ন একজন চিন্তা করেন, একজন শুরু করেন, আরেকজন বাস্তবায়ন করেন। এইভাবেই মূলত অগ্রগতি অর্জিত হয়। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড প্রদানের উদ্যোগ ৪-৫ বছর আগে গ্রহণ করা হলেও তা এখন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এটা আশাব্যঞ্জক। তিনি ভবিষ্যতে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি বড় পরিসরে আয়োজন করার পরামর্শ দেন, যাতে করে এই স্কুলের সকল শিক্ষার্থী সেখানে উপস্থিত থাকতে পারে এবং এ থেকে অনুপ্রাণিত হয়। তিনি আরও বলেন, বর্তমান প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গবেষণা মনোযোগী করে তোলার জন্য মাস্টার্স, এমফিল ও পিএইচডি পর্যায়ে স্কলারশিপ চালু করেছে। এর একটি ইতিবাচক ফলাফল আমরা লক্ষ্য করছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ স্ব স্ব স্কুলের একাডেমিক নেতৃত্বে রয়েছেন এবং তাদের দিকনির্দেশনা ও সহযোগিতায় প্রত্যেক স্কুল শিক্ষা ও গবেষণায় সাফল্যের পথে আরও এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. আবুল কালাম আজাদ। অনুষ্ঠানে জীববিজ্ঞান স্কুলের প্রাক্তন ডিনবৃন্দ প্রফেসর ড. একে ফজলুল হক, প্রফেসর ড. মো. রায়হান আলী এবং প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুসকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রাক্তন ডিনদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন স্কুলের প্রফেসর ড. মো. রায়হান আলী ও প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস। অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের সজীব রায় এবং ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের মো. নাঈম হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. ইয়ামিন কবির। ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলো- ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মোসা. সানজিতা নাহার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৭৭), ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মোসা. আনিকা খাতুন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৯), বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের রাহাগির সালেকিন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৪), এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের সাদিয়া আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৫), এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের সজীব রায় (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৬), ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের মোসা. রেহেনা আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮১) এবং সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট ডিসিপ্লিনের শোভা আক্তার (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৮)। ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ডিনস্ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলো- ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের জয়া বিশ্বাস (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯৪), এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিনের মো. নাঈম হক (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৯১), এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের সুলতানা জাহান (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৩), ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের শাহানাজ পারভীন (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৮৩) এবং সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট ডিসিপ্লিনের উম্মে নাঈমা আফরোজ (প্রাপ্ত সিজিপিএ ৩.৭৮)। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুলের ডিনবৃন্দ, ডিসিপ্লিন প্রধানবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ এবং অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।##