১১:০৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুবির প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাত এর মাতার মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৮:৫৪:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩
  • ২২ পড়েছেন

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাতের মাতা জাকিয়া আক্তার হোসেন ২১এপ্রিল রাত ১টা ৩০ মিনিটে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তিনি বেশকিছুদিন যাবৎ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৩ বছর। মৃত্যুকালে তিনি ২ ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। ২২ এপ্রিল (শনিবার) সকালে নগরীর নিরালা স্কুল মাঠ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে তাঁকে নিরালা কবরস্থানে দাফন করা হয়। প্রয়াত জাকিয়া আক্তার হোসেন পেশায় ছিলেন একজন স্কুল শিক্ষক। এর বাইরেও তিনি নারীনেত্রী ও সমাজসেবী হিসেবে বেশ পরিচিত ছিলেন। তিনি বেসরকারি সংস্থা বনফুল-এর নির্বাহী পরিচালক এবং এডাব-এর চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানে ছাত্রনেত্রী হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন। এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাতের মাতার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমার রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। অনুরূপভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, ট্রেজারার প্রফেসর অমিত রায় চৌধুরী, জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. আবুল কালাম আজাদ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. রুমানা রানাসহ সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ শোক প্রকাশ করেছেন।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

খুবির প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাত এর মাতার মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক

প্রকাশিত সময় : ০৮:৫৪:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাতের মাতা জাকিয়া আক্তার হোসেন ২১এপ্রিল রাত ১টা ৩০ মিনিটে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তিনি বেশকিছুদিন যাবৎ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৩ বছর। মৃত্যুকালে তিনি ২ ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। ২২ এপ্রিল (শনিবার) সকালে নগরীর নিরালা স্কুল মাঠ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে তাঁকে নিরালা কবরস্থানে দাফন করা হয়। প্রয়াত জাকিয়া আক্তার হোসেন পেশায় ছিলেন একজন স্কুল শিক্ষক। এর বাইরেও তিনি নারীনেত্রী ও সমাজসেবী হিসেবে বেশ পরিচিত ছিলেন। তিনি বেসরকারি সংস্থা বনফুল-এর নির্বাহী পরিচালক এবং এডাব-এর চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানে ছাত্রনেত্রী হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন। এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. নাজমুস সাদাতের মাতার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমার রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। অনুরূপভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, ট্রেজারার প্রফেসর অমিত রায় চৌধুরী, জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. আবুল কালাম আজাদ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. রুমানা রানাসহ সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ শোক প্রকাশ করেছেন।