১০:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুবির প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিন বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সহযোগী ফেলো নির্বাচিত

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:০১:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩
  • ৪২ পড়েছেন

###   খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিন খ্যাতনামা বিজ্ঞানী ও প্রযুক্তিবিদদের শীর্ষ সংস্থা ‘বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স’ এর সহযোগী ফেলো নির্বাচিত হয়েছেন। গত ৯এপ্রিল অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স কাউন্সিলের ৪র্থ সভায় সংস্থার সংবিধান ও প্রবিধানের অনুচ্ছেদ ৫ (৪) অনুযায়ী তাঁকে সহযোগী ফেলো নির্বাচিত করা হয়। শীঘ্রই বার্ষিক সাধারণ সভায় বিষয়টি উপস্থাপন শেষে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে। গত ১২ এপ্রিল বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. হাসিনা খান স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে তাঁকে  খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স’ এর সহযোগী ফেলো হিসেবে নির্বাচিত করার জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়।  এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কোনো শিক্ষক প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সহযোগী ফেলো নির্বাচিত হওয়ায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। এক অভিনন্দন বার্তায় তিনি বলেন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এখন গবেষণামুখী। এই অর্জন তারই প্রমাণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মানোন্নয়নে নানামুখী পদক্ষেপ ও উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরাও এখন গবেষণায় সবিশেষ অবদান রাখছেন। তিনি আরও বলেন, প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিনের এ অর্জনে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার গর্বিত। আমি তাঁর উত্তরোত্তর সাফল্য ও সমৃদ্ধ কামনা করি। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

বাকেরগঞ্জে কৃষি ব্যাংকের গ্রাহকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

খুবির প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিন বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সহযোগী ফেলো নির্বাচিত

প্রকাশিত সময় : ০৯:০১:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩

###   খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিন খ্যাতনামা বিজ্ঞানী ও প্রযুক্তিবিদদের শীর্ষ সংস্থা ‘বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স’ এর সহযোগী ফেলো নির্বাচিত হয়েছেন। গত ৯এপ্রিল অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স কাউন্সিলের ৪র্থ সভায় সংস্থার সংবিধান ও প্রবিধানের অনুচ্ছেদ ৫ (৪) অনুযায়ী তাঁকে সহযোগী ফেলো নির্বাচিত করা হয়। শীঘ্রই বার্ষিক সাধারণ সভায় বিষয়টি উপস্থাপন শেষে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে। গত ১২ এপ্রিল বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. হাসিনা খান স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে তাঁকে  খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স’ এর সহযোগী ফেলো হিসেবে নির্বাচিত করার জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়।  এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কোনো শিক্ষক প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সের সহযোগী ফেলো নির্বাচিত হওয়ায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। এক অভিনন্দন বার্তায় তিনি বলেন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এখন গবেষণামুখী। এই অর্জন তারই প্রমাণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মানোন্নয়নে নানামুখী পদক্ষেপ ও উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরাও এখন গবেষণায় সবিশেষ অবদান রাখছেন। তিনি আরও বলেন, প্রফেসর ড. শেখ জামাল উদ্দিনের এ অর্জনে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার গর্বিত। আমি তাঁর উত্তরোত্তর সাফল্য ও সমৃদ্ধ কামনা করি। ##