১০:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুবি উপাচার্যের সাথে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস প্রতিনিধিদলের সৌজন্য সাক্ষাৎ

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেনের সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। সোমবার সাক্ষাতকালে কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসার শার্লিনা হুসাইন-মর্গান যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা এবং এ সংক্রান্ত সুযোগ বিনিময়ের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, এ মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের সাড়ে ১০ হাজার শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় অধ্যয়নরত। বাংলাদেশ উচ্চশিক্ষায় দ্রুত প্রসার লাভ করছে এবং বিদেশে তাদের জন্য শিক্ষা ও গবেষণায় নানাবিধ সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য ফুলব্রাইট স্কলারশিপসহ বিভিন্ন প্রোগ্রামে উচ্চশিক্ষা লাভের সুযোগ রয়েছে। তরুণ শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা লাভের তথ্য জানতে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিভাগে আমেরিকান কর্নার স্থাপন করা হয়েছে। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ও সবিশেষ বৈশিষ্ট্য জেনে তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উৎকর্ষ অর্জনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ, ম্যানগ্রোভ, পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যসহ বিভিন্ন দিকে যৌথ কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। এক্ষেত্রে কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিস সেতুবন্ধনের কাজ করবে বলে তার পক্ষ থেকে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উপাচার্য প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ২০০৮ সালে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ইউএসএইড এর অর্থায়নে ৪টি বিশেষ প্রকল্প লাভ করে। এছাড়া ইইউ এর বিভিন্ন দেশে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ করেছে। তিনি ভবিষ্যতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা ইনস্টিটিউটের মধ্যে এমওইউ’র ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন। সুন্দরবন ম্যানগ্রোভ, উপকূলীয় জীববৈচিত্র্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। উপাচার্য তাঁকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট উপহার দেন। এসময় কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের পক্ষ থেকেও উপাচার্যকে স্মারক উপহার প্রদান করা হয়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, সহকারী ছাত্র বিষয়ক পরিচালক মোহাম্মদ রকিবুল হাসান সিদ্দিকী, জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আতিয়ার রহমান, উপাচার্যের সচিব সঞ্জয় সাহা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রামের কো-অর্ডিটেটর শাওন কর্মকার, আইআরসি অ্যাসোসিয়টস্ শাহিনা সুলতানা উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা ও এ সংক্রান্ত সুযোগ বিনিময় বিষয়ে তথ্য সেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের তিন সদস্য বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

গলাচিপা উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় ” রেমাল” এর তাণ্ডবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

খুবি উপাচার্যের সাথে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস প্রতিনিধিদলের সৌজন্য সাক্ষাৎ

প্রকাশিত সময় : ০১:১৪:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

###    খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেনের সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। সোমবার সাক্ষাতকালে কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসার শার্লিনা হুসাইন-মর্গান যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা এবং এ সংক্রান্ত সুযোগ বিনিময়ের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, এ মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের সাড়ে ১০ হাজার শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় অধ্যয়নরত। বাংলাদেশ উচ্চশিক্ষায় দ্রুত প্রসার লাভ করছে এবং বিদেশে তাদের জন্য শিক্ষা ও গবেষণায় নানাবিধ সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য ফুলব্রাইট স্কলারশিপসহ বিভিন্ন প্রোগ্রামে উচ্চশিক্ষা লাভের সুযোগ রয়েছে। তরুণ শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা লাভের তথ্য জানতে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিভাগে আমেরিকান কর্নার স্থাপন করা হয়েছে। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ও সবিশেষ বৈশিষ্ট্য জেনে তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উৎকর্ষ অর্জনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ, ম্যানগ্রোভ, পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যসহ বিভিন্ন দিকে যৌথ কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। এক্ষেত্রে কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিস সেতুবন্ধনের কাজ করবে বলে তার পক্ষ থেকে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উপাচার্য প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ২০০৮ সালে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ইউএসএইড এর অর্থায়নে ৪টি বিশেষ প্রকল্প লাভ করে। এছাড়া ইইউ এর বিভিন্ন দেশে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ করেছে। তিনি ভবিষ্যতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আমেরিকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা ইনস্টিটিউটের মধ্যে এমওইউ’র ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন। সুন্দরবন ম্যানগ্রোভ, উপকূলীয় জীববৈচিত্র্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। উপাচার্য তাঁকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট উপহার দেন। এসময় কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের পক্ষ থেকেও উপাচার্যকে স্মারক উপহার প্রদান করা হয়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, সহকারী ছাত্র বিষয়ক পরিচালক মোহাম্মদ রকিবুল হাসান সিদ্দিকী, জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আতিয়ার রহমান, উপাচার্যের সচিব সঞ্জয় সাহা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রামের কো-অর্ডিটেটর শাওন কর্মকার, আইআরসি অ্যাসোসিয়টস্ শাহিনা সুলতানা উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা ও এ সংক্রান্ত সুযোগ বিনিময় বিষয়ে তথ্য সেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কালচারাল অ্যাফেয়ার্স অফিসের তিন সদস্য বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন। ##