০৫:৪১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনায় এসডিজি অর্জনে নারী চিংড়ি চাষির ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৮:১৯:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৪১ পড়েছেন

###    সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, বর্তমান সরকারের নানামুখী উদ্যোগের ফলেই সর্বক্ষেত্রে নারীরা এগিয়ে আছে। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সেক্টরকে দ্বিতীয় করতে চেয়েছিলেন। কারণ তার দূরদর্শিতা ছিল। আমাদের দেশে প্রবাদ আছে মাছে-ভাতে বাঙালি। বঙ্গবন্ধু একজন খাটি বাঙালি ছিলেন। এদেশ এবং এদেশের মানুষের জন্য তিনি ২৪ বছর লড়াই-সংগ্রাম করেছেন। আমরা আজকে বঙ্গবন্ধুর সেই পথেই চলছি। তিনি ৭৩ সালে মন্তব্য করেছেন, আজকে আমরা সেইটা বাস্তবায়ন করেছি এবং আমরা স্বয়ং সম্পূর্ণ অর্জন করেছি। বুধবার নগরীর গল্লামারী মৎস্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসডিজি অর্জনে নারী চিংড়ি চাষির ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মেয়র খালেক উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মেয়র আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দেশে নারীর ক্ষমতায়ন ঘটেছে। কোন ক্ষেত্রেই নারীরা এখন পিছিয়ে নেই। উচ্চ পদস্থ সামরিক কর্মকর্তা, রাষ্ট্রদূত ও সচিব পদে নারীরা এখন সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। দেশের সমৃদ্ধিতে মৎস্য খাতের ভূমিকার কথা তুলে ধরে বলেন, এ খাতে নারীদের রয়েছে বিপুল অংশগ্রহণ। বিপুল সংখ্যক এ নারীদের ক্ষমতায়ন বা কর্মসংস্থানের সুযোগ প্রদান করা গেলে দারিদ্রের মাত্রা হ্রাস করতে তারাও ভূমিকা রাখতে পারবে বলে সিটি মেয়র উল্লেখ করেন।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ফিসারি প্রোডাক্টস বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (এফপিবিপিসি) ও ফোয়াবের যৌথ অর্থায়নে সেমিনারের সহযোগিতায় ছিল জেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়। বাস্তবায়নে ছিল ফিস ফার্ম ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ফোয়াব)। সেমিনারের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন মেহেদী হাসান এবং গীতা পাঠ করেন পলাশী বৈরাগী। সফল নারী চাষী মালতী গাইনের ওপর নির্মিত ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব কুমার পালের সভাপতিত্বে সেমিনারে চাষীদের পক্ষে বক্তৃতা করেন বুলু রানী মন্ডল ও লতিকা গাইন। স্বাগত বক্তৃতা ও মূল আলোচনা করেন ফোয়াবের সভাপতি মোল্লা সামছুর রহমান শাহীন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ডেপুটি প্রজেক্ট ডাইরেক্টর সরোজ কুমার মিস্ত্রি, খুবির প্রফেসর ড. খন্দকার আনিছুল হক ও জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান প্রফেসর রুনু ইকবাল বিথার। সঞ্চালনা করেন ফুলতলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা রনজিৎ কুমার। সেমিনারে জেলার বিভিন্ন উপজেলার সফল নারী চিংড়ি চাষী, ফোয়াবের নেতৃবৃন্দ, মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটা রিপোর্টার্স ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত 

খুলনায় এসডিজি অর্জনে নারী চিংড়ি চাষির ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত সময় : ০৮:১৯:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###    সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, বর্তমান সরকারের নানামুখী উদ্যোগের ফলেই সর্বক্ষেত্রে নারীরা এগিয়ে আছে। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সেক্টরকে দ্বিতীয় করতে চেয়েছিলেন। কারণ তার দূরদর্শিতা ছিল। আমাদের দেশে প্রবাদ আছে মাছে-ভাতে বাঙালি। বঙ্গবন্ধু একজন খাটি বাঙালি ছিলেন। এদেশ এবং এদেশের মানুষের জন্য তিনি ২৪ বছর লড়াই-সংগ্রাম করেছেন। আমরা আজকে বঙ্গবন্ধুর সেই পথেই চলছি। তিনি ৭৩ সালে মন্তব্য করেছেন, আজকে আমরা সেইটা বাস্তবায়ন করেছি এবং আমরা স্বয়ং সম্পূর্ণ অর্জন করেছি। বুধবার নগরীর গল্লামারী মৎস্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এসডিজি অর্জনে নারী চিংড়ি চাষির ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মেয়র খালেক উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মেয়র আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দেশে নারীর ক্ষমতায়ন ঘটেছে। কোন ক্ষেত্রেই নারীরা এখন পিছিয়ে নেই। উচ্চ পদস্থ সামরিক কর্মকর্তা, রাষ্ট্রদূত ও সচিব পদে নারীরা এখন সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। দেশের সমৃদ্ধিতে মৎস্য খাতের ভূমিকার কথা তুলে ধরে বলেন, এ খাতে নারীদের রয়েছে বিপুল অংশগ্রহণ। বিপুল সংখ্যক এ নারীদের ক্ষমতায়ন বা কর্মসংস্থানের সুযোগ প্রদান করা গেলে দারিদ্রের মাত্রা হ্রাস করতে তারাও ভূমিকা রাখতে পারবে বলে সিটি মেয়র উল্লেখ করেন।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ফিসারি প্রোডাক্টস বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (এফপিবিপিসি) ও ফোয়াবের যৌথ অর্থায়নে সেমিনারের সহযোগিতায় ছিল জেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়। বাস্তবায়নে ছিল ফিস ফার্ম ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ফোয়াব)। সেমিনারের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন মেহেদী হাসান এবং গীতা পাঠ করেন পলাশী বৈরাগী। সফল নারী চাষী মালতী গাইনের ওপর নির্মিত ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব কুমার পালের সভাপতিত্বে সেমিনারে চাষীদের পক্ষে বক্তৃতা করেন বুলু রানী মন্ডল ও লতিকা গাইন। স্বাগত বক্তৃতা ও মূল আলোচনা করেন ফোয়াবের সভাপতি মোল্লা সামছুর রহমান শাহীন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ডেপুটি প্রজেক্ট ডাইরেক্টর সরোজ কুমার মিস্ত্রি, খুবির প্রফেসর ড. খন্দকার আনিছুল হক ও জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান প্রফেসর রুনু ইকবাল বিথার। সঞ্চালনা করেন ফুলতলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা রনজিৎ কুমার। সেমিনারে জেলার বিভিন্ন উপজেলার সফল নারী চিংড়ি চাষী, ফোয়াবের নেতৃবৃন্দ, মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ##