০৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনায় বিএনপি গনঅবস্থান কর্মসূচি সফলে পুলিশ-প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা

###    খুলনা বিএনপি নেতৃবৃন্দ কলেছেন, ঘরে বসে কোন অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়। দাবী-অধিকার আদায়ে জন্য একমাত্র রাজপথই হলো রাজনৈতিক দলগুলোর ঠিকানা। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে এক সাগর রক্ত আর অজস্র জানা অজানা মুক্তিকামী মানুষের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম। একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে আমরা সাংবিধানিক ভাবে স্বীকৃত সকল নাগরিক অধিকার ভোগ করবো, অর্থনৈতিক স্বাধীনতা অর্জন করবো, মত প্রকাশের স্বাধীনতা পাবো, সিদ্ধান্ত গ্রহণের স্বাধীনতা পাবো, সাম্য ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হবে সমাজে-এমনটাই ছিল জাতির প্রত্যাশা। কিন্ত দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে, স্বাধীনতার ৫১ বছরে এসে আজকের বাংলাদেশে কোন নাগরিকই তার রাষ্ট্রপ্রদত্ত সংবিধান স্বীকৃত কোন অধিকার ভোগ করতে পারছেন না। অবৈধ পন্থায় দিনের ভোট রাতে করে স্বাধীনতার চেতনার ফেরিওয়ালারা ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার মানসে দেশের নাগরিকদেরকে সাংবিধানিক অধিকার কুক্ষিগত করে রেখেছেন। রাষ্ট্রকাঠামোকে ভয়ংকর ভাবে তছনছ করে দিয়ে দেশকে একাত্তর পূর্ববর্তী ভয়াবহ অবস্থায় নিয়ে গেছেন। সোমবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে কেডি ঘোষ রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ে ১১ জানুয়ারি খুলনায় বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসুচি সফল ও পুলিশের হয়রানির প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এসব কথা বলেন। খুলনা মহানগর বিএনপির  আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার পক্ষে লিখিত বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন আরো বলেন, বিএনপি প্রদত্ত ১০ দফা যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় ধাপের কর্মসূচি আগামী ১১ জানুয়ারি সারাদেশের বিভাগীয় শহরে গণঅবস্থান পালন করবে বিএনপি ও সমমনা রাজনৈতিক দলগুলো। খুলনায় বেলা ১১টায় এই গণঅবস্থান শুরু হবে এবং শেষ হবে বিকেল ৩টায়। কিন্তু বরাবরের মতই ফ্যাসিবাদী চরিত্রের মাফিয়া সরকার নিজেদের ক্ষমতাকে নিস্কন্টক করতে প্রশাসনকে লেলিয়ে দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে।

সংবাদ সম্মেলনে সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙ্গে দেয়া, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করা সহ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা দাবিতে ১১ জানুয়ারির খুলনায় বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসুচিতে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, জাতীয় নির্বাহী কমিটির একধিক নেতা, বিভাগীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। শান্তিপুর্ন গনঅবস্থান কর্মসূচিকে শান্তিপূর্ণভাবে সফল করতে পুলিশ প্রশাসনসহ সর্বমহলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আবু হোসেন বাবু, খান জুলফিকার আলী জুলু, স ম আব্দুর রহমান, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, শের আলম সান্টু, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, এনামুল হক সজল, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, আব্দুর রাজ্জাক, হাফিজুর রহমান মনি, মজিবুর রহমান, মুর্শিদ কামাল, কে এম হুমায়ুন কবির, একরামুল কবির মিলটন, শেখ ইমাম হোসেন, আহসান উল্লাহ বুলবুল, শেখ আসগর আলী, মনিরুজ্জামান লেলিন, মো. আব্দুল হালিম, এস এম মুর্শিদুর রহমান লিটন, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, মো. নাসির খান, তারিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, আলী আক্কাস, খন্দকার ফারুক হোসেন, রফিকুল ইসলাম বাবু, রাহাত আলী লাচ্চু, শামসুল বারিক পান্না, ইস্তিয়াক আহমেদ ইস্তি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, শফিকুল ইসলাম শাহিন, এবাদুল হক রুবায়েত, মো. জাবির আলী, এড. কানিজ ফাতেমা আমিন, এড. হালিমা আক্তার, আরিফা আশরাফি চুমকি, ইউসুফ মোল্লা, আসাদুজ্জামান আসাদ, সিরাজুল ইসলাম লিটন, শাহ মো. জালাল, মো. নজরুল ইসলাম, জি এম মঈন উদ্দিন, মাহবুব উল্লাহ শামীম, শেখ আব্দুল আলীম, ডা. আব্দুস সালাম, ইয়াজুল ইসলাম এ্যাপোলো, মো. হায়দার মোড়ল, সওগাদুল আলম সগির, গোলাম কিবরিয়া, রিয়াজুল কবির, আসলাম শেখ, মো আসাদুজ্জামান হারুন, এড. মারুফ হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন জিতু, আজাদ আমিন, নাজিম উদ্দিন শামীম প্রমুখ।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে গলাচিপায় বেড়েছে বাতাস ও নদীর পানি

খুলনায় বিএনপি গনঅবস্থান কর্মসূচি সফলে পুলিশ-প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা

প্রকাশিত সময় : ১২:২৯:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৩

###    খুলনা বিএনপি নেতৃবৃন্দ কলেছেন, ঘরে বসে কোন অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়। দাবী-অধিকার আদায়ে জন্য একমাত্র রাজপথই হলো রাজনৈতিক দলগুলোর ঠিকানা। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে এক সাগর রক্ত আর অজস্র জানা অজানা মুক্তিকামী মানুষের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম। একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে আমরা সাংবিধানিক ভাবে স্বীকৃত সকল নাগরিক অধিকার ভোগ করবো, অর্থনৈতিক স্বাধীনতা অর্জন করবো, মত প্রকাশের স্বাধীনতা পাবো, সিদ্ধান্ত গ্রহণের স্বাধীনতা পাবো, সাম্য ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হবে সমাজে-এমনটাই ছিল জাতির প্রত্যাশা। কিন্ত দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে, স্বাধীনতার ৫১ বছরে এসে আজকের বাংলাদেশে কোন নাগরিকই তার রাষ্ট্রপ্রদত্ত সংবিধান স্বীকৃত কোন অধিকার ভোগ করতে পারছেন না। অবৈধ পন্থায় দিনের ভোট রাতে করে স্বাধীনতার চেতনার ফেরিওয়ালারা ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার মানসে দেশের নাগরিকদেরকে সাংবিধানিক অধিকার কুক্ষিগত করে রেখেছেন। রাষ্ট্রকাঠামোকে ভয়ংকর ভাবে তছনছ করে দিয়ে দেশকে একাত্তর পূর্ববর্তী ভয়াবহ অবস্থায় নিয়ে গেছেন। সোমবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে কেডি ঘোষ রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ে ১১ জানুয়ারি খুলনায় বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসুচি সফল ও পুলিশের হয়রানির প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এসব কথা বলেন। খুলনা মহানগর বিএনপির  আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার পক্ষে লিখিত বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন আরো বলেন, বিএনপি প্রদত্ত ১০ দফা যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় ধাপের কর্মসূচি আগামী ১১ জানুয়ারি সারাদেশের বিভাগীয় শহরে গণঅবস্থান পালন করবে বিএনপি ও সমমনা রাজনৈতিক দলগুলো। খুলনায় বেলা ১১টায় এই গণঅবস্থান শুরু হবে এবং শেষ হবে বিকেল ৩টায়। কিন্তু বরাবরের মতই ফ্যাসিবাদী চরিত্রের মাফিয়া সরকার নিজেদের ক্ষমতাকে নিস্কন্টক করতে প্রশাসনকে লেলিয়ে দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে।

সংবাদ সম্মেলনে সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙ্গে দেয়া, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করা সহ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা দাবিতে ১১ জানুয়ারির খুলনায় বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসুচিতে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, জাতীয় নির্বাহী কমিটির একধিক নেতা, বিভাগীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। শান্তিপুর্ন গনঅবস্থান কর্মসূচিকে শান্তিপূর্ণভাবে সফল করতে পুলিশ প্রশাসনসহ সর্বমহলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আবু হোসেন বাবু, খান জুলফিকার আলী জুলু, স ম আব্দুর রহমান, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, শের আলম সান্টু, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, এনামুল হক সজল, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, আব্দুর রাজ্জাক, হাফিজুর রহমান মনি, মজিবুর রহমান, মুর্শিদ কামাল, কে এম হুমায়ুন কবির, একরামুল কবির মিলটন, শেখ ইমাম হোসেন, আহসান উল্লাহ বুলবুল, শেখ আসগর আলী, মনিরুজ্জামান লেলিন, মো. আব্দুল হালিম, এস এম মুর্শিদুর রহমান লিটন, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, মো. নাসির খান, তারিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, আলী আক্কাস, খন্দকার ফারুক হোসেন, রফিকুল ইসলাম বাবু, রাহাত আলী লাচ্চু, শামসুল বারিক পান্না, ইস্তিয়াক আহমেদ ইস্তি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, শফিকুল ইসলাম শাহিন, এবাদুল হক রুবায়েত, মো. জাবির আলী, এড. কানিজ ফাতেমা আমিন, এড. হালিমা আক্তার, আরিফা আশরাফি চুমকি, ইউসুফ মোল্লা, আসাদুজ্জামান আসাদ, সিরাজুল ইসলাম লিটন, শাহ মো. জালাল, মো. নজরুল ইসলাম, জি এম মঈন উদ্দিন, মাহবুব উল্লাহ শামীম, শেখ আব্দুল আলীম, ডা. আব্দুস সালাম, ইয়াজুল ইসলাম এ্যাপোলো, মো. হায়দার মোড়ল, সওগাদুল আলম সগির, গোলাম কিবরিয়া, রিয়াজুল কবির, আসলাম শেখ, মো আসাদুজ্জামান হারুন, এড. মারুফ হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন জিতু, আজাদ আমিন, নাজিম উদ্দিন শামীম প্রমুখ।##