১০:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুলনায় সৌহার্দপূর্ণ রাজনৈতিক সহাবস্থান গড়ে তুলতে কাজ করছি : সিটি মেয়র

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ১২:১২:২৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩
  • ১৫ পড়েছেন

####

 

খুলনার সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, প্রতিহিংসামূলক রাজনৈতিক আচরণ এই দেশে পুরাতন সংস্কৃতি। যার ভূক্তভোগী আমি নিজেও। কিন্তু আমরা দায়িত্বে আসার পর খুলনায় সৌহার্দপূর্ণ রাজনৈতিক সহাবস্থান তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছি। বিরোধীদল আন্দোলনের নামে সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতির চেষ্টা না করলে খুলনায় এই শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান অব্যাহত থাকবে। সোমবার খুলনা মহানগরীর একটি অভিজাত হোটেলে টাউন হল সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। আইআরআই ও ইউএসএআইডির সহযোগিতায় “শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ও রাজনৈতিক প্রতিযোগিতার জন্য নাগরিক উদ্যোগ সৃষ্টি” প্রকল্পের পক্ষ থেকে এ সভার আয়োজন করা হয়। সুন্দরবন একাডেমীর নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক আনোয়রুল কাদিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন স্বেচ্চাসেবী সংগঠন রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক রফিকুল ইসলাম খোকন। সভায় মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা, যুগ্ম-আহ্বায়ক সৈয়দা রেহানা ঈসা, খুলনা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জেলা যুবলীগের সভাপতি চৌধূরী রায়হান ফরিদ ও আইআরআই-এর গভর্নেন্স স্পেশালিস্ট সাইফ উদ্দিন আহমেদ বক্তৃতা করেন।

সভার উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফুজ্জামান, নাগরিক নেতা এ্যাডভোকেট সেলিনা আক্তার পিয়া, শিক্ষক নেতা প্রদীপ কুমার সাহা, মানবাধিকার এ্যাক্টিভিস্ট এ্যাডভোকেট অশোক কুমার সাহা, এ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম, সাংবাদিক শেখ আবু হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জ্বল, সোহরাব হোসেন, গাজী মনিরুজ্জামান, প্রবীর বিশ্বাস, নারী উদ্যোক্তা এ্যাডভোকেট শামীমা সুলতানা শিলু, তৃণমূল নারীনেত্রী বুলু রায় গাঙ্গুলী, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক নাসরিন হায়দার, উন্নয়নকর্মী মাহবুবুর রহমান মোহন প্রমূখ। অনুষ্ঠানে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক, তৃণমূল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, নারী নেত্রী, শিক্ষক প্রতিনিধি ও উন্নয়নকর্মীসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সিটি মেয়র আরও বলেন, খুলনাকে পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। কিন্তু এজন্য সম্মিলিত ও সমন্বিত উদ্যোগ থাকতে হবে। নাগরিকদের অসচেতনতা এই প্রচেষ্টা বাস্তবায়নের পথে বড় অন্তরায়। নাগরিক সচেতনতা সৃষ্টির জন্য সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এক সাথে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা পৃথিবীর ৫টি শহরকে ‘হেলদি সিটি’ ঘোষণা করেছে। খুলনা তার মধ্যে একটি এবং এশিয়া মহাদেশে একমাত্র। খুলনাকে হেলদি সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে সম্ভব সব কিছু করা হবে বলেও তিনি প্রতিশ্রুতি দেন। অনুষ্ঠানে খুলনা মহানগর বিএনপি’র আহ্বায়ত এ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা বলেন, খুলনায় দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সুসম্পর্ক বিদ্যমান। এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। তবেই সহাবস্থানের রাজনৈতিক সংস্কৃতি গড়ে উঠবে। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

বাকেরগঞ্জে কৃষি ব্যাংকের গ্রাহকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

খুলনায় সৌহার্দপূর্ণ রাজনৈতিক সহাবস্থান গড়ে তুলতে কাজ করছি : সিটি মেয়র

প্রকাশিত সময় : ১২:১২:২৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩

####

 

খুলনার সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, প্রতিহিংসামূলক রাজনৈতিক আচরণ এই দেশে পুরাতন সংস্কৃতি। যার ভূক্তভোগী আমি নিজেও। কিন্তু আমরা দায়িত্বে আসার পর খুলনায় সৌহার্দপূর্ণ রাজনৈতিক সহাবস্থান তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছি। বিরোধীদল আন্দোলনের নামে সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতির চেষ্টা না করলে খুলনায় এই শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান অব্যাহত থাকবে। সোমবার খুলনা মহানগরীর একটি অভিজাত হোটেলে টাউন হল সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। আইআরআই ও ইউএসএআইডির সহযোগিতায় “শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ও রাজনৈতিক প্রতিযোগিতার জন্য নাগরিক উদ্যোগ সৃষ্টি” প্রকল্পের পক্ষ থেকে এ সভার আয়োজন করা হয়। সুন্দরবন একাডেমীর নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক আনোয়রুল কাদিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন স্বেচ্চাসেবী সংগঠন রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক রফিকুল ইসলাম খোকন। সভায় মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা, যুগ্ম-আহ্বায়ক সৈয়দা রেহানা ঈসা, খুলনা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জেলা যুবলীগের সভাপতি চৌধূরী রায়হান ফরিদ ও আইআরআই-এর গভর্নেন্স স্পেশালিস্ট সাইফ উদ্দিন আহমেদ বক্তৃতা করেন।

সভার উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফুজ্জামান, নাগরিক নেতা এ্যাডভোকেট সেলিনা আক্তার পিয়া, শিক্ষক নেতা প্রদীপ কুমার সাহা, মানবাধিকার এ্যাক্টিভিস্ট এ্যাডভোকেট অশোক কুমার সাহা, এ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম, সাংবাদিক শেখ আবু হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জ্বল, সোহরাব হোসেন, গাজী মনিরুজ্জামান, প্রবীর বিশ্বাস, নারী উদ্যোক্তা এ্যাডভোকেট শামীমা সুলতানা শিলু, তৃণমূল নারীনেত্রী বুলু রায় গাঙ্গুলী, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক নাসরিন হায়দার, উন্নয়নকর্মী মাহবুবুর রহমান মোহন প্রমূখ। অনুষ্ঠানে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক, তৃণমূল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, নারী নেত্রী, শিক্ষক প্রতিনিধি ও উন্নয়নকর্মীসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সিটি মেয়র আরও বলেন, খুলনাকে পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। কিন্তু এজন্য সম্মিলিত ও সমন্বিত উদ্যোগ থাকতে হবে। নাগরিকদের অসচেতনতা এই প্রচেষ্টা বাস্তবায়নের পথে বড় অন্তরায়। নাগরিক সচেতনতা সৃষ্টির জন্য সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এক সাথে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা পৃথিবীর ৫টি শহরকে ‘হেলদি সিটি’ ঘোষণা করেছে। খুলনা তার মধ্যে একটি এবং এশিয়া মহাদেশে একমাত্র। খুলনাকে হেলদি সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে সম্ভব সব কিছু করা হবে বলেও তিনি প্রতিশ্রুতি দেন। অনুষ্ঠানে খুলনা মহানগর বিএনপি’র আহ্বায়ত এ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা বলেন, খুলনায় দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সুসম্পর্ক বিদ্যমান। এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। তবেই সহাবস্থানের রাজনৈতিক সংস্কৃতি গড়ে উঠবে। ##