০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনায় ১০ দফা দাবিতে শনিবার বিএনপির গণমিছিল

###    খুলনায় ২৪ ডিসেম্বর শনিবার সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙ্গে দেয়া, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তত্ত¡বধায়ক সরকার গঠন করা সহ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা দাবিতে খুলনায় গণমিছিল করবে বিএনপি। বিকেল ৩টায় কে ডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণের পর শিববাড়ি মোড়ে গিয়ে শেষ হবে। খুলনার গণমিছিলে নেতৃত্ব দেবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী বর্ষিয়ান জননেতা ড. মঈন খান। মিছিলে উপস্থিত থাকবেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, মহানগর বিএনপির সম্মানিত সদস্য রকিবুল ইসলাম বকুল, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু। গত ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত বিএনপির সর্বশেষ বিভাগীয় গণসমাবেশ থেকে দেশব্যাপি গণমিছিল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। বুধবার (২১ ডিসেম্বর) মহানগর ও জেলা বিএনপির এক যৌথ প্রস্ততি সভা থেকে খুলনার গণমিছিল সফল করতে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানানো হয়। সেই সাথে গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ এই রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মসূচিকে সফল করতে পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করা হয়।
দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির আহবায়ক শফিকুল আলম মনা। মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিনের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন জেলা আহবায়ক আমীর এজাজ খান, মহানগর সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মোঃ তারিকুল ইসলাম জহির, জেলার সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শেখ আবু হোসেন বাবু, স ম আব্দুর রহমান, কাজী মাহমুদ আলী, শের আলম সান্টু, আবুল কালাম জিয়া, বদরুল আনাম খান, অধ্যাপক মনিরুল হক বাবুল, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, আশরাফুল আলম খান নান্নু, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, এনামুল হক সজল,
হাফিজুর রহমান মনি, আশফাকুর রহমান কাকন, ওয়াহিদুর রহমান দীপু, বেগ তানভিরুল আযম, শেখ শাহিনুল ইসলাম পাখী, শাকিল আহমেদ দিলু, মুরশিদ কামাল, কে এম হুমায়ুন কবির, বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, কাজী মিজানুর রহমান, এস এম মুর্শিদুর রহমান লিটন, জহর মীর, নাজিরউদ্দিন আহমেদ নান্নু, শেখ ইমাম হোসেন, হাবিবুর রহমান বিশ^াস, হাসান উল্লাহ বুলবুল, তারিকুল ইসলাম, সরোয়ার হোসেন, রফিকুল ইসলাম বাবু, আবু সাঈদ হাওলাদার আব্বাস, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, সরদার আব্দুল মালেক, রাহাত আলী লাচ্চু, নাসির খান, আব্দুস সালাম, ফারুক হিলটন, দিদারুল হোসেন, তারিকুল ইসলাম, খন্দকার হাসিনুল ইসলাম নিক, মিজানুর রহমান মিলটন, শামসুল বারিক পান্না, শফিকুল ইসলাম শফি, আলী আক্কাস, ফারুক হোসেন, মুজিবর রহমান, আজিজা খানম এলিজা, মোল্লা সাইফুর রহমান,
মহিলা দলের এ্যাড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, এ্যাড. কানিজ ফাতেমা আমিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের আতাউর রহমান রুনু, শফিকুল ইসলাম শাহিন, ছাত্রদলের ইসতিয়াক আহমেদ ইস্তি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, কৃষক দলের আক্তারুজ্জামান তালুকদার সজীব, মোল্লা কবির হোসেন, মৎস্যজীবী দলের হেমায়েত হোসেন, আজিজুল ইসলাম, জাসাসের শহিদুল ইসলাম ওয়ার্ড বিএনপি নেতা মাজেদুল হক মাজেদ, ইকবাল হোসেন মিজান, মোঃ লিটন খান, কাজী আব্দুল লতিফ, মোবাশি^র হোসেন শ্যামল, মোঃ নুরুল হক, এস এম মাহমুদ পটা, এস এম আরিফুর রহমান শিমুল, ফারুক হোসেন, শেখ আব্দুল আলিম, ওয়াহিদুজ্জামান হাওলাদার, আসাদুজ্জামান আসাদ, শেখ হাবিবুর রহমান হাবিব, আবু ওয়ারা, মীর মোসলেহউদ্দিন বাবর, এনামুল কবির, সিরাজুল ইসলাম লিটন, মোঃ নাসিরউদ্দিন খান, মনিরুজ্জামান মনি, জি এম মঈনউদ্দিন, ডাঃ আব্দুস সালাম, হাসান আল মামুন বাপ্পী, মোঃ নজরুল ইসলাম, মাহমুদ আলম বাবু মোড়ল, মাহবুব উল্লাহ শামীম, শফিকুল ইসলাম জোয়াদ্দার জলি, মোল্লা সালাহউদ্দিন বুলবুল, সওগাতুল আলম সগীর, মোঃ শহিদ খান, হুমায়ুন কবির চৌধুরী, আফসারউদ্দিন, মোঃ মতলেবুর রহমান মিতুল প্রমুখ।  সভায় ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকে বিশেষ অভিযানের নামে খুলনা মহানগরী সহ জেলার থানায় থানায় পুলিশের তল্লাশি এবং বিএনপি অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার ও তল্লাশি অভিযানের সময় পরিবারের সদস্যদের সাথে অসদাচারনের তিব্র নিন্দা জানানো হয়।  এই সময়কালে মহানগরীসহ জেলার প্রায় প্রতিটি থানায় তথাকথিত নাশকতা ও সহিংসতা পরিকল্পনার কল্পকাহিনী সাজিয়ে একের পর এক গায়েবী মামলায় দায়ের এবং এ সব মামলায় বিএনপির নেতাকর্মীদের আসামী বানানোর তিব্র প্রতিবাদ জানিয়ে সব ধরনের বানোয়াট মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। সভা থেকে খুলনা কারাগারে বিভিন্ন সময়ে আটক প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মীর অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়। #

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

খুলনায় ১০ দফা দাবিতে শনিবার বিএনপির গণমিছিল

প্রকাশিত সময় : ১২:৪৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২২

###    খুলনায় ২৪ ডিসেম্বর শনিবার সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙ্গে দেয়া, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তত্ত¡বধায়ক সরকার গঠন করা সহ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের ১০ দফা দাবিতে খুলনায় গণমিছিল করবে বিএনপি। বিকেল ৩টায় কে ডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণের পর শিববাড়ি মোড়ে গিয়ে শেষ হবে। খুলনার গণমিছিলে নেতৃত্ব দেবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী বর্ষিয়ান জননেতা ড. মঈন খান। মিছিলে উপস্থিত থাকবেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, মহানগর বিএনপির সম্মানিত সদস্য রকিবুল ইসলাম বকুল, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু। গত ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত বিএনপির সর্বশেষ বিভাগীয় গণসমাবেশ থেকে দেশব্যাপি গণমিছিল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। বুধবার (২১ ডিসেম্বর) মহানগর ও জেলা বিএনপির এক যৌথ প্রস্ততি সভা থেকে খুলনার গণমিছিল সফল করতে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানানো হয়। সেই সাথে গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ এই রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মসূচিকে সফল করতে পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করা হয়।
দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির আহবায়ক শফিকুল আলম মনা। মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিনের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন জেলা আহবায়ক আমীর এজাজ খান, মহানগর সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মোঃ তারিকুল ইসলাম জহির, জেলার সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শেখ আবু হোসেন বাবু, স ম আব্দুর রহমান, কাজী মাহমুদ আলী, শের আলম সান্টু, আবুল কালাম জিয়া, বদরুল আনাম খান, অধ্যাপক মনিরুল হক বাবুল, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, আশরাফুল আলম খান নান্নু, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, এনামুল হক সজল,
হাফিজুর রহমান মনি, আশফাকুর রহমান কাকন, ওয়াহিদুর রহমান দীপু, বেগ তানভিরুল আযম, শেখ শাহিনুল ইসলাম পাখী, শাকিল আহমেদ দিলু, মুরশিদ কামাল, কে এম হুমায়ুন কবির, বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, কাজী মিজানুর রহমান, এস এম মুর্শিদুর রহমান লিটন, জহর মীর, নাজিরউদ্দিন আহমেদ নান্নু, শেখ ইমাম হোসেন, হাবিবুর রহমান বিশ^াস, হাসান উল্লাহ বুলবুল, তারিকুল ইসলাম, সরোয়ার হোসেন, রফিকুল ইসলাম বাবু, আবু সাঈদ হাওলাদার আব্বাস, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, সরদার আব্দুল মালেক, রাহাত আলী লাচ্চু, নাসির খান, আব্দুস সালাম, ফারুক হিলটন, দিদারুল হোসেন, তারিকুল ইসলাম, খন্দকার হাসিনুল ইসলাম নিক, মিজানুর রহমান মিলটন, শামসুল বারিক পান্না, শফিকুল ইসলাম শফি, আলী আক্কাস, ফারুক হোসেন, মুজিবর রহমান, আজিজা খানম এলিজা, মোল্লা সাইফুর রহমান,
মহিলা দলের এ্যাড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, এ্যাড. কানিজ ফাতেমা আমিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের আতাউর রহমান রুনু, শফিকুল ইসলাম শাহিন, ছাত্রদলের ইসতিয়াক আহমেদ ইস্তি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, কৃষক দলের আক্তারুজ্জামান তালুকদার সজীব, মোল্লা কবির হোসেন, মৎস্যজীবী দলের হেমায়েত হোসেন, আজিজুল ইসলাম, জাসাসের শহিদুল ইসলাম ওয়ার্ড বিএনপি নেতা মাজেদুল হক মাজেদ, ইকবাল হোসেন মিজান, মোঃ লিটন খান, কাজী আব্দুল লতিফ, মোবাশি^র হোসেন শ্যামল, মোঃ নুরুল হক, এস এম মাহমুদ পটা, এস এম আরিফুর রহমান শিমুল, ফারুক হোসেন, শেখ আব্দুল আলিম, ওয়াহিদুজ্জামান হাওলাদার, আসাদুজ্জামান আসাদ, শেখ হাবিবুর রহমান হাবিব, আবু ওয়ারা, মীর মোসলেহউদ্দিন বাবর, এনামুল কবির, সিরাজুল ইসলাম লিটন, মোঃ নাসিরউদ্দিন খান, মনিরুজ্জামান মনি, জি এম মঈনউদ্দিন, ডাঃ আব্দুস সালাম, হাসান আল মামুন বাপ্পী, মোঃ নজরুল ইসলাম, মাহমুদ আলম বাবু মোড়ল, মাহবুব উল্লাহ শামীম, শফিকুল ইসলাম জোয়াদ্দার জলি, মোল্লা সালাহউদ্দিন বুলবুল, সওগাতুল আলম সগীর, মোঃ শহিদ খান, হুমায়ুন কবির চৌধুরী, আফসারউদ্দিন, মোঃ মতলেবুর রহমান মিতুল প্রমুখ।  সভায় ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকে বিশেষ অভিযানের নামে খুলনা মহানগরী সহ জেলার থানায় থানায় পুলিশের তল্লাশি এবং বিএনপি অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার ও তল্লাশি অভিযানের সময় পরিবারের সদস্যদের সাথে অসদাচারনের তিব্র নিন্দা জানানো হয়।  এই সময়কালে মহানগরীসহ জেলার প্রায় প্রতিটি থানায় তথাকথিত নাশকতা ও সহিংসতা পরিকল্পনার কল্পকাহিনী সাজিয়ে একের পর এক গায়েবী মামলায় দায়ের এবং এ সব মামলায় বিএনপির নেতাকর্মীদের আসামী বানানোর তিব্র প্রতিবাদ জানিয়ে সব ধরনের বানোয়াট মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। সভা থেকে খুলনা কারাগারে বিভিন্ন সময়ে আটক প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মীর অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়। #