০৬:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুলনার তেরখাদা বিএনপির সভাপতিসহ আটজনকে গ্রেফতারে জেলা বিএনপি’র নিন্দা

###    খুলনা জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী আজ্ঞাবাহ পুলিশ গায়েবী মামলার নতুন ফর্মুলায় রূপসা থানায় দায়েরকৃত মিথ্যা অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় তেরখাদা উপজেলা বিএনপির সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিক চৌধুরী কওসার আলীসহ ৮জনকে গ্রেফতার করেছে। আটজন বিএনপি নেতার নাম উল্লেখসহ এমামলায় অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে আরও ৪০ থেকে ৫০জনকে। অথচ এজাহার বর্ণিত কোনো ঘটনায় ঘটেনি। নিশিরাতের ভোটডাকাত আওয়ামী ফ্যাসিষ্ট সরকারের আজ্ঞা পালনে প্রতিহিংসামুলক বানোয়াট মামলা দায়েরর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন খুলনা জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। একই সাথে তেরখাদা উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিক চৌধুরী কওসার আলীসহ সকল রাজবন্দীতের নিঃশর্ত মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অবাধ-সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ। শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) খুলনা জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন, গত ১০ ডিসেম্বর ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশ পূর্বের আওয়ামী হিংস্র বাহিনীতে পরিণত হয়। তেরখাদা, রূপসা, বটিয়াঘাটা ও ডুমুরিয়ায় বিনাউস্কানীতে পুলিশ বিএনপি’র অসুস্থ্য ও চিকিৎসাধীন নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে। পুলিশ কল্প-কাহিনী সাজিয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে মামলা দায়ের করে-এসব মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হয়। শুধু তাই নয়; খুলনার ৯টি উপজেলা ও দু’টি পৌরসভায় প্রতিরাতেই নিরীহ সাধারণ জনগনকে হয়রানি করছে, অহেতুক তল্লাশীর নামে বাড়ীবাড়ী যেয়ে অবুঝ শিশু ও অবলা নারীদের মধ্যে ত্রাস সৃষ্টি করছে। বিনাউস্কানিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করছে। এসব করে নিশিরাতের ভোট ডাকাত ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আগামীর রাষ্ট্রনায়ক জনাব তারেক রহমানের নেতৃত্বে দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে অচিরেই অবৈধ শেখ হাসিনা সরকারের পতন নিশ্চিত হবে, ইনশাআল্লাহ্। বিবৃতিদাতারা হলেন খুলনা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আমীর এজাজ খান, সদস্য সচিব এসএম মনিরুল হাসান বাপ্পী ও যুগ্ম-আহবায়ক শেখ আবু হোসেন বাবু প্রমুখ। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে বিয়ের জন্য মেয়েকে পছন্দ না করায় ছেলের ভগ্নিপতিকে হত্যা, আহত ১০

খুলনার তেরখাদা বিএনপির সভাপতিসহ আটজনকে গ্রেফতারে জেলা বিএনপি’র নিন্দা

প্রকাশিত সময় : ০১:৪৬:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২২

###    খুলনা জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী আজ্ঞাবাহ পুলিশ গায়েবী মামলার নতুন ফর্মুলায় রূপসা থানায় দায়েরকৃত মিথ্যা অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় তেরখাদা উপজেলা বিএনপির সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিক চৌধুরী কওসার আলীসহ ৮জনকে গ্রেফতার করেছে। আটজন বিএনপি নেতার নাম উল্লেখসহ এমামলায় অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে আরও ৪০ থেকে ৫০জনকে। অথচ এজাহার বর্ণিত কোনো ঘটনায় ঘটেনি। নিশিরাতের ভোটডাকাত আওয়ামী ফ্যাসিষ্ট সরকারের আজ্ঞা পালনে প্রতিহিংসামুলক বানোয়াট মামলা দায়েরর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন খুলনা জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। একই সাথে তেরখাদা উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিক চৌধুরী কওসার আলীসহ সকল রাজবন্দীতের নিঃশর্ত মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অবাধ-সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ। শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) খুলনা জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন, গত ১০ ডিসেম্বর ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশ পূর্বের আওয়ামী হিংস্র বাহিনীতে পরিণত হয়। তেরখাদা, রূপসা, বটিয়াঘাটা ও ডুমুরিয়ায় বিনাউস্কানীতে পুলিশ বিএনপি’র অসুস্থ্য ও চিকিৎসাধীন নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে। পুলিশ কল্প-কাহিনী সাজিয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে মামলা দায়ের করে-এসব মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হয়। শুধু তাই নয়; খুলনার ৯টি উপজেলা ও দু’টি পৌরসভায় প্রতিরাতেই নিরীহ সাধারণ জনগনকে হয়রানি করছে, অহেতুক তল্লাশীর নামে বাড়ীবাড়ী যেয়ে অবুঝ শিশু ও অবলা নারীদের মধ্যে ত্রাস সৃষ্টি করছে। বিনাউস্কানিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করছে। এসব করে নিশিরাতের ভোট ডাকাত ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আগামীর রাষ্ট্রনায়ক জনাব তারেক রহমানের নেতৃত্বে দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে অচিরেই অবৈধ শেখ হাসিনা সরকারের পতন নিশ্চিত হবে, ইনশাআল্লাহ্। বিবৃতিদাতারা হলেন খুলনা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আমীর এজাজ খান, সদস্য সচিব এসএম মনিরুল হাসান বাপ্পী ও যুগ্ম-আহবায়ক শেখ আবু হোসেন বাবু প্রমুখ। ##