১০:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
কেডিএ অধিনস্থ সড়ক সংস্কারের দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ :

খুলনার সুষ্ঠ ও পরিকল্পিত উন্নয়নের এখন বড় বাঁধা কেডিএ

###    খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ)-এর অধিনস্থ জনভোগান্তিকর সড়ক, রুপসা-শিপইয়ার্ড সড়ক চার লেন প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন এবং সিটি বাইপাস শহিদ শেখ আবু নাসের লিংক রোড, সোনাডাঙ্গা পাইপাস সড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে শিববাড়ি মোড়স্থ কেডিএ ভবনের সামনে নিরাপদ সড়ক চাই(নিসচা)’র উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মো: সাইফুল ইসলাম। নিরাপদ সড়ক চাই(নিসচা)’র কেন্দ্রীয় কার্যকারী সদস্য ও খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি এস এম ইকবাল হোসেন বিপ্লবের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মুন্নার সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সহ-সম্পাদক প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম, সিনিয়র সাংবাদিক এস এম মারুফ হোসেন, গোপালগঞ্জ জেলা কল্যাণ সমিতির সাধারন সম্পাদক মো: হাফিজুর রহমান চৌধুরী, গেøাবাল খুলনার আহবায়ক শাহ্ মামুনুর রহমান তুহিন, নজরুল একাডেমীর পরিচালক কবি সৈয়দ আলী হাকিম, মদিনাবাগ আবাসিক জনকল্যাণ সমিতির সভাপতি মো: হেমায়েত হোসেন, সহসভাপতি মো: আনোয়ার হোসেন, সহসম্পাদক মো: ফিরোজ, প্রফেসর মো: শহিদুল ইসলাম, মো: তবিবুর রহমান, এসআই ইউসুফ, আগুয়ান-৭১ এর খুলনা সভাপতি আবিদ শান্ত, নিসচা’র নগর সহসাধারন সম্পাদক মো: রুহুল আমীন তালুকদার সোহাগ, এসএমএ রহিম, খুলনা বৈদ্যুতিক ব্যবসায়ী সমিতির পরিচালক মো: নাজমুল হোসেন, ক্রীড়া সংগঠক মো: ইউছুপ আলী, খুলনা বিভাগীয় অভ্যান্তরিন নৌ-পরিবহন মালিক সমিতির পরিচালক মো: ইলিয়াস হোসেন লাবু, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মো: রাকিবউদ্দিন ফারাজী, মো: সোলায়মান হোসেন, নারী নেত্রী তানিয়া সুলতানা, মো: রিয়াদ হোসেন, বিশিষ্ট হোটেল ব্যবসায়ী মো: শামীম হোসেন, মৎস্য ব্যবসায়ী আবু মুছা, মো: আফজাল দেওয়ান, সুমাইয়া তাসনিম সিনথি খান, রোটা: মো: মফিজুল আহমেদ মজুমদার, মো: আসলাম হোসেন, মো: ফিরোজ আলী মো: সাদী, ইসতিয়াক পিয়াল, সাদমান সাকিব তুষার, মুশফিক আজাদ, হাফিজুল ইসলাম, মিনহাজ প্রমুখ। মানববন্ধনে নিসচা’র নেতৃবৃন্দ, ভূক্তভোগী মদিনাবাগ এলাকাবাসী সহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার প্রতিনিধিরা অংশ গ্রহন করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ(কেডিএ)-এর তীব্র সমালোচনা করে বলেন, খুলনার সুষ্ঠ ও সঠিক উন্নয়নে কেডিএ এখন বড় বাঁধা। সরকার এই নগরীর উন্নয়নে বার বার কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিলেও তার কোন সুফল নগরবাসী পাচ্ছে না। বিশেষ করে সিটি পাইপাসের শহিদ শেখ আবু নাসের লিংক রোড, রুপসা-শিপইয়ার্ড সড়ক চার লেন প্রকল্প, সোনাডাঙ্গা পাইপাস সড়ক দীর্ঘ এক যুগের সংষ্কার করতে পারেনি। খুলনা মহানগরীর প্রবেশদার এসব সড়ক সংস্কার না হওয়ার কারনে প্রতিদিন শত শত দুর্ঘটনা ঘটছে। ভয়ঙ্কর বায়ু দূষনের নগরীতে পরিণত করা হয়েছে। কেডিএ -কে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। শুধু মাত্র ঘোষনা দিয়ে নগরীর উন্নয়ন হবে না। তাদেরকে আন্তরিক হতে হবে। খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যেন আবাসিক প্লট বিক্রি ও প্ল্যানের মধ্যে সীমাবদ্ধ না থাকে। নগরবাসী যেন নিরাপদে পথ চলতে পারে তার সুব্যবস্থা কেডিএকেই করতে হবে।

বক্তারা আরো জানান, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃক্ষের(কেডিএ) ব্যবস্থাপনা সম্পূর্ণ সেনা বাহিনীর কাছে ছেড়ে দেওয়া হোক নতুবা এ অঞ্চলের কল্যানকামী মানুষের দায়িত্বে দেওয়া হোক। কেডিএ থেকে কোন ভোগান্তি আর নগরবাসী মেনে নেবে না। পাশাপাশি যে সকল ঠিকাদার কার্যাদেশ পেয়ে ধীর গতিতে কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। যথাসময়ে কাজ শেষ করতে না পারলে তাদের কালো তালিকাভূক্ত করার দাবী জানান বক্তারা। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

কেডিএ অধিনস্থ সড়ক সংস্কারের দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ :

খুলনার সুষ্ঠ ও পরিকল্পিত উন্নয়নের এখন বড় বাঁধা কেডিএ

প্রকাশিত সময় : ০১:০৫:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

###    খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ)-এর অধিনস্থ জনভোগান্তিকর সড়ক, রুপসা-শিপইয়ার্ড সড়ক চার লেন প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন এবং সিটি বাইপাস শহিদ শেখ আবু নাসের লিংক রোড, সোনাডাঙ্গা পাইপাস সড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে শিববাড়ি মোড়স্থ কেডিএ ভবনের সামনে নিরাপদ সড়ক চাই(নিসচা)’র উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মো: সাইফুল ইসলাম। নিরাপদ সড়ক চাই(নিসচা)’র কেন্দ্রীয় কার্যকারী সদস্য ও খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি এস এম ইকবাল হোসেন বিপ্লবের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মুন্নার সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সহ-সম্পাদক প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম, সিনিয়র সাংবাদিক এস এম মারুফ হোসেন, গোপালগঞ্জ জেলা কল্যাণ সমিতির সাধারন সম্পাদক মো: হাফিজুর রহমান চৌধুরী, গেøাবাল খুলনার আহবায়ক শাহ্ মামুনুর রহমান তুহিন, নজরুল একাডেমীর পরিচালক কবি সৈয়দ আলী হাকিম, মদিনাবাগ আবাসিক জনকল্যাণ সমিতির সভাপতি মো: হেমায়েত হোসেন, সহসভাপতি মো: আনোয়ার হোসেন, সহসম্পাদক মো: ফিরোজ, প্রফেসর মো: শহিদুল ইসলাম, মো: তবিবুর রহমান, এসআই ইউসুফ, আগুয়ান-৭১ এর খুলনা সভাপতি আবিদ শান্ত, নিসচা’র নগর সহসাধারন সম্পাদক মো: রুহুল আমীন তালুকদার সোহাগ, এসএমএ রহিম, খুলনা বৈদ্যুতিক ব্যবসায়ী সমিতির পরিচালক মো: নাজমুল হোসেন, ক্রীড়া সংগঠক মো: ইউছুপ আলী, খুলনা বিভাগীয় অভ্যান্তরিন নৌ-পরিবহন মালিক সমিতির পরিচালক মো: ইলিয়াস হোসেন লাবু, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মো: রাকিবউদ্দিন ফারাজী, মো: সোলায়মান হোসেন, নারী নেত্রী তানিয়া সুলতানা, মো: রিয়াদ হোসেন, বিশিষ্ট হোটেল ব্যবসায়ী মো: শামীম হোসেন, মৎস্য ব্যবসায়ী আবু মুছা, মো: আফজাল দেওয়ান, সুমাইয়া তাসনিম সিনথি খান, রোটা: মো: মফিজুল আহমেদ মজুমদার, মো: আসলাম হোসেন, মো: ফিরোজ আলী মো: সাদী, ইসতিয়াক পিয়াল, সাদমান সাকিব তুষার, মুশফিক আজাদ, হাফিজুল ইসলাম, মিনহাজ প্রমুখ। মানববন্ধনে নিসচা’র নেতৃবৃন্দ, ভূক্তভোগী মদিনাবাগ এলাকাবাসী সহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার প্রতিনিধিরা অংশ গ্রহন করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ(কেডিএ)-এর তীব্র সমালোচনা করে বলেন, খুলনার সুষ্ঠ ও সঠিক উন্নয়নে কেডিএ এখন বড় বাঁধা। সরকার এই নগরীর উন্নয়নে বার বার কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিলেও তার কোন সুফল নগরবাসী পাচ্ছে না। বিশেষ করে সিটি পাইপাসের শহিদ শেখ আবু নাসের লিংক রোড, রুপসা-শিপইয়ার্ড সড়ক চার লেন প্রকল্প, সোনাডাঙ্গা পাইপাস সড়ক দীর্ঘ এক যুগের সংষ্কার করতে পারেনি। খুলনা মহানগরীর প্রবেশদার এসব সড়ক সংস্কার না হওয়ার কারনে প্রতিদিন শত শত দুর্ঘটনা ঘটছে। ভয়ঙ্কর বায়ু দূষনের নগরীতে পরিণত করা হয়েছে। কেডিএ -কে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। শুধু মাত্র ঘোষনা দিয়ে নগরীর উন্নয়ন হবে না। তাদেরকে আন্তরিক হতে হবে। খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যেন আবাসিক প্লট বিক্রি ও প্ল্যানের মধ্যে সীমাবদ্ধ না থাকে। নগরবাসী যেন নিরাপদে পথ চলতে পারে তার সুব্যবস্থা কেডিএকেই করতে হবে।

বক্তারা আরো জানান, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃক্ষের(কেডিএ) ব্যবস্থাপনা সম্পূর্ণ সেনা বাহিনীর কাছে ছেড়ে দেওয়া হোক নতুবা এ অঞ্চলের কল্যানকামী মানুষের দায়িত্বে দেওয়া হোক। কেডিএ থেকে কোন ভোগান্তি আর নগরবাসী মেনে নেবে না। পাশাপাশি যে সকল ঠিকাদার কার্যাদেশ পেয়ে ধীর গতিতে কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। যথাসময়ে কাজ শেষ করতে না পারলে তাদের কালো তালিকাভূক্ত করার দাবী জানান বক্তারা। ##