০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুলনা নগরীর শিববাড়ীসহ দু’টি মোড়ের নাম পরিবর্তন  স্থগিত

###      খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক হস্তক্ষেপে স্থগিত করা হচ্ছে খুলনা নগরীর শিববাড়ীসহ দু’টি মোড়ের নাম। ইতোমধ্যে এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি)। এর আগে শিববাড়ী মোড়কে ‘বঙ্গবন্ধু চত্বর’ ও শেরে বাংলা রোড ও কেডিএ এ্যাভিনিউয়ের সংযোগ স্থল বর্তমান বঙ্গবন্ধু চত্বরের নাম পরিবর্তন করে শহিদ শেখ আবু নাসের চত্বর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। আজ রবিবার বেলা ১১টায় কেসিসি’র ১৯তম সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত উত্থাপন করার কথা থাকলেও তা বাতিল করা হয়েছে। খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ বিষয়ে মেয়র বলেন, খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, ঐতিহ্যবাহী শিববাড়ী মোড়সহ দু’টি মোড়ের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে। রবিবার মিটিংয়ে প্রথমেই এটি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।শিববাড়ী মোড়ের যে নাম রয়েছে সেটিই থাকবে। আমার অজান্তেই কে বা কারা এজেন্ডায় এটি ঢুকিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে, কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা লস্কার তাজুল ইসলাম স্বাক্ষরিত সাধারণ সভার এক নোটিশ সূত্রে জানা যায়, রবিবার (৩০ এপ্রিল) বেলা ১১টায় কেসিসির শহিদ আলতাফ মিলনায়তনে কেসিসি’র ১৯তম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। সভার আলোচ্যসূচির ১৪টি এজেন্ডার মধ্যে ৫ নম্বরে উলে­খ রয়েছে নগরীর শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন করে বঙ্গবন্ধু চত্বর করার প্রসঙ্গে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ। ওই নম্বরের আলোচ্যসূচিতে বর্তমান বঙ্গবন্ধু চত্বরের (শেরে বাংলা রোড ও কেডিএ এভিনিউয়ের সংযোগস্থল) নাম পরিবর্তন করে শহিদ শেখ আবু নাসের চত্বর নামকরণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। তারই আলোকে আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা থাকলেও সভার একদিন আগেই নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কেসিসি।

এদিকে শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন নাগরিক সংগঠনের নেতারা। তারা বলেন, ঐতিহ্য ক্ষুণ করে নাম পরিবর্তন সঠিক হবে না। এর আগে একটি পক্ষ শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন করে বাবরি চত্বর করার দাবি জানিয়েছিল। কিন্তু সে সময় সকলের বিরোধীতায় তা পণ্ড হয়ে যায়। খুলনা নাগরিক সমাজের সদস্য সচিব এড. বাবুল হাওলাদার বলেন, মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ শিববাড়ী মোড়ে খুলনাবাসীর ঐতিহ্য ও অনুভূতিতে মিশে আছে। তবে বঙ্গবন্ধুর নামে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ কোনো সড়কের নামকরণ করা উচিত। তাতে কোনো বিতর্ক হবে না। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট খুলনার সভাপতি হুমায়ুন কবীর ববি বলেন, নগরীর শিববাড়ী মোড়ের নামটি ইতিহাস বিজড়িত ও ঐতিহ্যবাহী। এই নামটি পরিবর্তন করা ঠিক হবে না। নগরীর রয়েলের মোড় থেকে শিববাড়ী মোড় পর্যন্ত সড়কটির নাম কেডিএ এ্যাভিনিউ থেকে পরিবর্তন করে বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউ করা যেতে পারে। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

খুলনা নগরীর শিববাড়ীসহ দু’টি মোড়ের নাম পরিবর্তন  স্থগিত

প্রকাশিত সময় : ১২:১৫:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩

###      খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক হস্তক্ষেপে স্থগিত করা হচ্ছে খুলনা নগরীর শিববাড়ীসহ দু’টি মোড়ের নাম। ইতোমধ্যে এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি)। এর আগে শিববাড়ী মোড়কে ‘বঙ্গবন্ধু চত্বর’ ও শেরে বাংলা রোড ও কেডিএ এ্যাভিনিউয়ের সংযোগ স্থল বর্তমান বঙ্গবন্ধু চত্বরের নাম পরিবর্তন করে শহিদ শেখ আবু নাসের চত্বর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। আজ রবিবার বেলা ১১টায় কেসিসি’র ১৯তম সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত উত্থাপন করার কথা থাকলেও তা বাতিল করা হয়েছে। খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ বিষয়ে মেয়র বলেন, খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, ঐতিহ্যবাহী শিববাড়ী মোড়সহ দু’টি মোড়ের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে। রবিবার মিটিংয়ে প্রথমেই এটি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।শিববাড়ী মোড়ের যে নাম রয়েছে সেটিই থাকবে। আমার অজান্তেই কে বা কারা এজেন্ডায় এটি ঢুকিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে, কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা লস্কার তাজুল ইসলাম স্বাক্ষরিত সাধারণ সভার এক নোটিশ সূত্রে জানা যায়, রবিবার (৩০ এপ্রিল) বেলা ১১টায় কেসিসির শহিদ আলতাফ মিলনায়তনে কেসিসি’র ১৯তম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। সভার আলোচ্যসূচির ১৪টি এজেন্ডার মধ্যে ৫ নম্বরে উলে­খ রয়েছে নগরীর শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন করে বঙ্গবন্ধু চত্বর করার প্রসঙ্গে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ। ওই নম্বরের আলোচ্যসূচিতে বর্তমান বঙ্গবন্ধু চত্বরের (শেরে বাংলা রোড ও কেডিএ এভিনিউয়ের সংযোগস্থল) নাম পরিবর্তন করে শহিদ শেখ আবু নাসের চত্বর নামকরণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। তারই আলোকে আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা থাকলেও সভার একদিন আগেই নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কেসিসি।

এদিকে শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন নাগরিক সংগঠনের নেতারা। তারা বলেন, ঐতিহ্য ক্ষুণ করে নাম পরিবর্তন সঠিক হবে না। এর আগে একটি পক্ষ শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তন করে বাবরি চত্বর করার দাবি জানিয়েছিল। কিন্তু সে সময় সকলের বিরোধীতায় তা পণ্ড হয়ে যায়। খুলনা নাগরিক সমাজের সদস্য সচিব এড. বাবুল হাওলাদার বলেন, মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক শিববাড়ী মোড়ের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ শিববাড়ী মোড়ে খুলনাবাসীর ঐতিহ্য ও অনুভূতিতে মিশে আছে। তবে বঙ্গবন্ধুর নামে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ কোনো সড়কের নামকরণ করা উচিত। তাতে কোনো বিতর্ক হবে না। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট খুলনার সভাপতি হুমায়ুন কবীর ববি বলেন, নগরীর শিববাড়ী মোড়ের নামটি ইতিহাস বিজড়িত ও ঐতিহ্যবাহী। এই নামটি পরিবর্তন করা ঠিক হবে না। নগরীর রয়েলের মোড় থেকে শিববাড়ী মোড় পর্যন্ত সড়কটির নাম কেডিএ এ্যাভিনিউ থেকে পরিবর্তন করে বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউ করা যেতে পারে। ##