০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে সৌন্দর্য্যমন্ডিত ও পরিবেশ বান্ধব করতে বৃক্ষরোপণ

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:৫১:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ জুন ২০২৩
  • ১৪৫ পড়েছেন

####

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির চলমান প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে  ২৫ জুন (রবিবার)বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল ও অপরাজিতা হল এ দুই ছাত্রীহলের মাঝে বৃক্ষরোপণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে সৌন্দর্য্যবর্ধন ও পরিবেশবান্ধব গ্রিন ক্যাম্পাসে পরিণত করতে নানা প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ঔষধি জাতীয় বৃক্ষ রোপণ করা হয়। এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, মানবজাতিসহ প্রাণিক‚লের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বৃক্ষরোপনের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য পরিকল্পিতভাবে পর্যাপ্ত গাছ লাগানো একান্ত প্রয়োজন। তিনি নির্মল প্রাকৃতিক পরিবেশ গড়ে তুলতে বেশি করে ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছ রোপন করার আহবান জানান।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর অমিত রায় চৌধুরী, চারুকলা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. নিহার রঞ্জন সিংহ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. সালমা বেগম, উপাচার্যের সচিব সঞ্জয় সাহাসহ বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, সহকারি প্রভোস্ট ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় গবেষণাগারের পাশে ও অদম্য বাংলার পিছনে এবং ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ২০ প্রজাতির বৃক্ষ রোপন করা হয়। এর মধ্যে ১২ প্রজাতির ফলজ ও ৮ প্রজাতির বনজসহ প্রায় সাড়ে পাঁচশতাধিক বৃক্ষ রোপন করা হয়। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

কেইউজের নির্বাচন ২৯ জুন :  ভুয়া কমিটি নিয়ে বিভ্রান্ত না হতে সদস্যদের প্রতি নেতৃবৃন্দের আহ্বান

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে সৌন্দর্য্যমন্ডিত ও পরিবেশ বান্ধব করতে বৃক্ষরোপণ

প্রকাশিত সময় : ০৯:৫১:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ জুন ২০২৩

####

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির চলমান প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে  ২৫ জুন (রবিবার)বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল ও অপরাজিতা হল এ দুই ছাত্রীহলের মাঝে বৃক্ষরোপণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে সৌন্দর্য্যবর্ধন ও পরিবেশবান্ধব গ্রিন ক্যাম্পাসে পরিণত করতে নানা প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ঔষধি জাতীয় বৃক্ষ রোপণ করা হয়। এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, মানবজাতিসহ প্রাণিক‚লের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বৃক্ষরোপনের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য পরিকল্পিতভাবে পর্যাপ্ত গাছ লাগানো একান্ত প্রয়োজন। তিনি নির্মল প্রাকৃতিক পরিবেশ গড়ে তুলতে বেশি করে ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছ রোপন করার আহবান জানান।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর অমিত রায় চৌধুরী, চারুকলা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. নিহার রঞ্জন সিংহ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. সালমা বেগম, উপাচার্যের সচিব সঞ্জয় সাহাসহ বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, সহকারি প্রভোস্ট ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় গবেষণাগারের পাশে ও অদম্য বাংলার পিছনে এবং ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ২০ প্রজাতির বৃক্ষ রোপন করা হয়। এর মধ্যে ১২ প্রজাতির ফলজ ও ৮ প্রজাতির বনজসহ প্রায় সাড়ে পাঁচশতাধিক বৃক্ষ রোপন করা হয়। ##