০৫:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গলাচিপায়  বোনের বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের  অভিযোগ ভাইয়ের বিরুদ্ধে

###    পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক অসহায় নারীর বসতঘর ভাংচুর করে মালামাল লুটপাট ও গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে আপন ভাইদের বিরুদ্ধে। গত (২০ ফেব্রুয়ারী) উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড আলগী তাফালবাড়িয়া গ্রামের মৃত আ: সালাম হাওলাদার এর কন্যা মোমেলা বেগম এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। একই বাড়ির আপন ভাই মহসিন হাওলাদার, বড় বোন, ভাবি জোট বেঁধে ওই জমি থেকে তাকে উচ্ছেদ করতেই এসব করছে বলে অভিযোগ মোমেলা বেগমের। এ ঘটনায় তিনি নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন বলে তিনি জানান।  মোমেলা বেগম বলেন, ‘যে কোন সময় তাকে উচ্ছেদ করতে হামলা করতে পারেন প্রতিপক্ষরা।’ কাজের সূত্রে তিনি তার স্বামী রহিম মিয়াকে নিয়ে চট্টগ্রাম থাকেন। বাবা সালাম হাওলাদার জীবিত থাকা অবস্থায় তার সকল ভরনপোষণ, দেখভাল ও চিকিৎসার খরচ তিনি দিয়েছেন। সে সময় কোন ভাই টাকা দিয়ে তাকে সহায়তা করে নাই। তখন বাবা সালাম হাওলাদার তাকে ৬ কড়া জমি হেবা করে যায়। ভাইয়েরা এ বিষয় মেনে নিতে না পাড়ায় তারা ঘরবাড়ি দখল করতে বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে, গাছ কেটে নিয়ে যায়। অভিযোগের সুত্রে জানা যায়, বিভিন্ন সময় অত্যাচার করে জোর পূর্বক ঘর থেকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছে মোমেলা বেগমের ভাই মহসিন হাওলাদার। মোমেলা বেগমের  ছেলেকে বিদেশে ভালো চাকুরী দেয়ার নাম করে টুরিস্ট ভিসায় দুবাই নিয়ে গেছে মহসিন। এখন সেই ছেলে পুলিশের হাতে ধরা পরে জেল খাটছে। এ নিয়ে ছেলেকে জিম্মি করে মোটা অঙ্কের টাকা দাবিও করছে মহসিন। গত সপ্তাহ খানেক আগে বসতভিটায় থাকা ১টি চাম্বুল ও ১টি মেহগনি গাছ গোপনে কেটে নিয়ে যায় এবং বাড়িঘর ভাংচুর করে সমস্ত মালামাল লুট করে। এ ঘটনা গত বুধবার শুনে মোমেলা ও তার স্বামী বাড়িতে আসেন। তার ভাইদের কাছে এসব বিষয় জানতে চাইলে তারা অস্বীকার করে এবং তাকে বকাঝকা করে মারধরের হুমকি দেয়। ফলে নিরুপায় হয়ে মোমেনা স্থানীয় সাংবাদিক ডেকে অভিযোগ করেন। সরজমিনে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতেই প্রতিপক্ষ মহসিন এর স্ত্রী ঝুমুর বেগম (৩০) মোমেলার ওপর চড়াও হয় এবং তাকে বকাঝকা ও মারধরের হুমকি দেয়। পরে সাংবাদিকদের অনুপস্থিতিতে তারা দলবল নিয়ে মোমেলা বেগমকে মারধর করে। এ ঘটনায় মোমেলার মাথায় গুরুতর জখম হলে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় ভুক্তভোগীর স্বামী রহিম। অভিযোগের বিষয় জানতে মহসিন হাওলাদার এর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি। তার স্ত্রী ঝুমুর বেগম (৩০) গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করলেও বাড়িঘর ভাংচুর, মালামাল লুটের বিষয় অস্বীকার করে বলেন, যে জমির দাবি করছে সেটা মূলত আমি শশুরের ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া জমি দলিল করে দিয়েছি। আমার শশুরের লাগানো গাছ তাই আমাদের প্রয়োজনে কেটে নিয়েছি। মারধরের বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে ঝুমুর অস্বীকার করে বলেন মোমেলার ফুফাতো ভাই লোকজন নিয়ে আমার ঘরে হামলা করে আমাকে মারধর করছে। গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ শোনিত কুমার গায়েন জানান, এ বিষয়ে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

দশমিনায় পরীক্ষায় অসৎ উপায় অবলম্বন করায় দুই শিক্ষার্থী বহিস্কার

গলাচিপায়  বোনের বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের  অভিযোগ ভাইয়ের বিরুদ্ধে

প্রকাশিত সময় : ০৬:০৩:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###    পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক অসহায় নারীর বসতঘর ভাংচুর করে মালামাল লুটপাট ও গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে আপন ভাইদের বিরুদ্ধে। গত (২০ ফেব্রুয়ারী) উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড আলগী তাফালবাড়িয়া গ্রামের মৃত আ: সালাম হাওলাদার এর কন্যা মোমেলা বেগম এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। একই বাড়ির আপন ভাই মহসিন হাওলাদার, বড় বোন, ভাবি জোট বেঁধে ওই জমি থেকে তাকে উচ্ছেদ করতেই এসব করছে বলে অভিযোগ মোমেলা বেগমের। এ ঘটনায় তিনি নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন বলে তিনি জানান।  মোমেলা বেগম বলেন, ‘যে কোন সময় তাকে উচ্ছেদ করতে হামলা করতে পারেন প্রতিপক্ষরা।’ কাজের সূত্রে তিনি তার স্বামী রহিম মিয়াকে নিয়ে চট্টগ্রাম থাকেন। বাবা সালাম হাওলাদার জীবিত থাকা অবস্থায় তার সকল ভরনপোষণ, দেখভাল ও চিকিৎসার খরচ তিনি দিয়েছেন। সে সময় কোন ভাই টাকা দিয়ে তাকে সহায়তা করে নাই। তখন বাবা সালাম হাওলাদার তাকে ৬ কড়া জমি হেবা করে যায়। ভাইয়েরা এ বিষয় মেনে নিতে না পাড়ায় তারা ঘরবাড়ি দখল করতে বসতঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে, গাছ কেটে নিয়ে যায়। অভিযোগের সুত্রে জানা যায়, বিভিন্ন সময় অত্যাচার করে জোর পূর্বক ঘর থেকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছে মোমেলা বেগমের ভাই মহসিন হাওলাদার। মোমেলা বেগমের  ছেলেকে বিদেশে ভালো চাকুরী দেয়ার নাম করে টুরিস্ট ভিসায় দুবাই নিয়ে গেছে মহসিন। এখন সেই ছেলে পুলিশের হাতে ধরা পরে জেল খাটছে। এ নিয়ে ছেলেকে জিম্মি করে মোটা অঙ্কের টাকা দাবিও করছে মহসিন। গত সপ্তাহ খানেক আগে বসতভিটায় থাকা ১টি চাম্বুল ও ১টি মেহগনি গাছ গোপনে কেটে নিয়ে যায় এবং বাড়িঘর ভাংচুর করে সমস্ত মালামাল লুট করে। এ ঘটনা গত বুধবার শুনে মোমেলা ও তার স্বামী বাড়িতে আসেন। তার ভাইদের কাছে এসব বিষয় জানতে চাইলে তারা অস্বীকার করে এবং তাকে বকাঝকা করে মারধরের হুমকি দেয়। ফলে নিরুপায় হয়ে মোমেনা স্থানীয় সাংবাদিক ডেকে অভিযোগ করেন। সরজমিনে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতেই প্রতিপক্ষ মহসিন এর স্ত্রী ঝুমুর বেগম (৩০) মোমেলার ওপর চড়াও হয় এবং তাকে বকাঝকা ও মারধরের হুমকি দেয়। পরে সাংবাদিকদের অনুপস্থিতিতে তারা দলবল নিয়ে মোমেলা বেগমকে মারধর করে। এ ঘটনায় মোমেলার মাথায় গুরুতর জখম হলে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় ভুক্তভোগীর স্বামী রহিম। অভিযোগের বিষয় জানতে মহসিন হাওলাদার এর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি। তার স্ত্রী ঝুমুর বেগম (৩০) গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করলেও বাড়িঘর ভাংচুর, মালামাল লুটের বিষয় অস্বীকার করে বলেন, যে জমির দাবি করছে সেটা মূলত আমি শশুরের ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া জমি দলিল করে দিয়েছি। আমার শশুরের লাগানো গাছ তাই আমাদের প্রয়োজনে কেটে নিয়েছি। মারধরের বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে ঝুমুর অস্বীকার করে বলেন মোমেলার ফুফাতো ভাই লোকজন নিয়ে আমার ঘরে হামলা করে আমাকে মারধর করছে। গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ শোনিত কুমার গায়েন জানান, এ বিষয়ে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।##