০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির দায়ে জরিমানা

###    ঝিনাইদহে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির অপরাধে শহরের তাজমহল ফার্মেসিকে জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সোমবার (১০ এপ্রিল) সকালে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ঝিনাইদহ জেলা কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে শুনানির পর ওই ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আল মামুন বলেন, গত ৪ এপ্রিল দুপুরে শহরের পায়রা চত্বরের পাশে তাজমহল ফার্মেসি থেকে ডায়াবেটিস রোগীর জন্য দুইটি ইনসুলিন (লেভেমির ফ্লেক্সপেন) ক্রয় করি। ওষুধ ক্রয়ের সময় ফার্মেসির মালিকে মেয়াদ আছে কি না জানতে চাইলে, তিনি মেয়াদ আছে বলে জানান। আমি ওষুধটি দেখতে চাইলে তিনি সমস্যা নেই বলে প্যাকেট করে দেন। ওষুধটি নিয়ে বাড়িতে গেলে ইনসুলিন দেওয়ার সময় দেখা যায় ওষুধটির মেয়াদ ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এরপর ঝিনাইদহ জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করি। তারা অভিযোগটি আমলে নিয়ে সোমবার (১০ এপ্রিল) উভয় পক্ষকে ডাকেন এবং বিস্তারিত শুনার পর তাজমহল ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
ঝিনাইদহ ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ মামুনুল হাসান বলেন, গত ৪ এপ্রিল আমাদের কার্যালয়ে শহরের পায়রা চত্বরের তাজমহল ফার্মেসির বিরুদ্ধে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয়ের পরিপ্রেক্ষিতে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই ভুক্তভোগী। উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর ৫১ ধারা অনুসারে তাজমহল ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া ৭৬ এর উপধারা (৪) অনুসারে জরিমানার ২৫% হিসাবে আড়াই হাজার টাকা ওই ভোক্তাকে দেওয়া হয়।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

ঝিনাইদহে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির দায়ে জরিমানা

প্রকাশিত সময় : ১২:৪৩:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০২৩

###    ঝিনাইদহে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির অপরাধে শহরের তাজমহল ফার্মেসিকে জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সোমবার (১০ এপ্রিল) সকালে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ঝিনাইদহ জেলা কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে শুনানির পর ওই ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আল মামুন বলেন, গত ৪ এপ্রিল দুপুরে শহরের পায়রা চত্বরের পাশে তাজমহল ফার্মেসি থেকে ডায়াবেটিস রোগীর জন্য দুইটি ইনসুলিন (লেভেমির ফ্লেক্সপেন) ক্রয় করি। ওষুধ ক্রয়ের সময় ফার্মেসির মালিকে মেয়াদ আছে কি না জানতে চাইলে, তিনি মেয়াদ আছে বলে জানান। আমি ওষুধটি দেখতে চাইলে তিনি সমস্যা নেই বলে প্যাকেট করে দেন। ওষুধটি নিয়ে বাড়িতে গেলে ইনসুলিন দেওয়ার সময় দেখা যায় ওষুধটির মেয়াদ ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এরপর ঝিনাইদহ জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করি। তারা অভিযোগটি আমলে নিয়ে সোমবার (১০ এপ্রিল) উভয় পক্ষকে ডাকেন এবং বিস্তারিত শুনার পর তাজমহল ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
ঝিনাইদহ ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ মামুনুল হাসান বলেন, গত ৪ এপ্রিল আমাদের কার্যালয়ে শহরের পায়রা চত্বরের তাজমহল ফার্মেসির বিরুদ্ধে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয়ের পরিপ্রেক্ষিতে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই ভুক্তভোগী। উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর ৫১ ধারা অনুসারে তাজমহল ফার্মেসির মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া ৭৬ এর উপধারা (৪) অনুসারে জরিমানার ২৫% হিসাবে আড়াই হাজার টাকা ওই ভোক্তাকে দেওয়া হয়।##