০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নে তৃণমূল প্রশাসনে দলের প্রতিনিধি নির্বাচিত করতে হবে : সেখ জুয়েল এমপি

###   জাতীয় সংসদ সদস্য (খুলনা-২ আসন) সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চলবে। যারা এই নির্দেশনার ব্যতয় ঘটাবে তারা দল, দেশ ও শেখ হাসিনার ভালো চায় না। আওয়ামী লীগকে আরো সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে দলের চেন অব কমান্ড মেনে চলতে হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি মাল্টিন্যাশনাল অরগ্যানাইজেশন। এ সংগঠনের কর্মীর যেমন অভাব নেই তেমনি নেতারও অভাব নেই। সে কারণেই নির্বাচন বা সম্মেলন আসলে নেতৃত্বের ব্যাপক প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। এর মধ্যে থেকেই একজনকে নেতৃত্ব স্থানে আসতে হয়। যারা বাদ পড়েন তারা পরবর্তীতে অপেক্ষা করবে এটাই দলের চেইন অব কমান্ড। আওয়ামী লীগের সদস্য হলে তাকে অবশ্যই এই চেইন অব কমান্ড মানতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ১৭ কোটি মানুষের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রাখতে এবং ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মোতাবেক তৃণমূল পর্যায়ে প্রশাসনে দলের প্রতিনিধি থাকতে হবে। তিনি সকলকে আগামী নির্বাচনে তৃণমূল প্রশাসনে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিকে নির্বাচিত করতে আহ্বান জানান। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ হারুনুর রশীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম এ ছালাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ,  নির্বাহী সদস্য মো. তরিকুল আলম খান। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা প্যানেল মেয়র মো. আমিনুল ইসলাম মুন্না, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, এম এ রিয়াজ কচি, কাজী জাহিদ হোসেন, প্যানেল মেয়র এ্যাড. মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, কাউন্সিলর এস এম মোজাফফর রশিদী রেজা, কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন, ক্উান্সিলর শামছুজ্জাামান মিয়া স্বপন, কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর আনিছুর রহমান বিশ^াস, কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলী, কাউন্সিলর কাজী আবুল কালাম আজাদ বিকু, কাউন্সিলর ইমাম হাসান চৌধুরী ময়না, মো. জামিল খান, কাউন্সিলর এস এম খুরশিদ আহমেদ টোনা, কাউন্সিলর মো. আব্দুস সালাম, কাউন্সিলর শেখ আব্দুর রাজ্জাক, কাউন্সিলর মো. সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর এম ডি মাহফুজুর রহমান লিটন, কাউন্সিলর মো. কবির হোসেন কবু মোল্লা, কাউন্সিলর শেখ সামছুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, কাউন্সিলর মো. সুলতান মাহমুদ, কাউন্সিলর মো. ডালিম হাওলাদার, কাউন্সিলর মো. মনিরুজ্জামান, কাউন্সিলর মো. হাফিজুর রহমান, কাউন্সিলর আশফাকুর রহমান কাকন, কাউন্সিলর গোলাম মাওলা শানু, কাউন্সিলর আরিফ হোসেন মিঠু, কাউন্সিলর পারভিন আক্তার, কাউন্সিলর মনিরা আক্তার, কাউন্সিলর সাহিদা বেগম, কাউন্সিলর রহিমা আক্তার হেনা, কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, কাউন্সিলর কণিকা সাহা, কাউন্সিলর মাজেদা বেগম, কাউন্সিলর রেকসোনা কালাম লিলিসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত 

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নে তৃণমূল প্রশাসনে দলের প্রতিনিধি নির্বাচিত করতে হবে : সেখ জুয়েল এমপি

প্রকাশিত সময় : ০৭:৪৪:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

###   জাতীয় সংসদ সদস্য (খুলনা-২ আসন) সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চলবে। যারা এই নির্দেশনার ব্যতয় ঘটাবে তারা দল, দেশ ও শেখ হাসিনার ভালো চায় না। আওয়ামী লীগকে আরো সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে দলের চেন অব কমান্ড মেনে চলতে হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি মাল্টিন্যাশনাল অরগ্যানাইজেশন। এ সংগঠনের কর্মীর যেমন অভাব নেই তেমনি নেতারও অভাব নেই। সে কারণেই নির্বাচন বা সম্মেলন আসলে নেতৃত্বের ব্যাপক প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। এর মধ্যে থেকেই একজনকে নেতৃত্ব স্থানে আসতে হয়। যারা বাদ পড়েন তারা পরবর্তীতে অপেক্ষা করবে এটাই দলের চেইন অব কমান্ড। আওয়ামী লীগের সদস্য হলে তাকে অবশ্যই এই চেইন অব কমান্ড মানতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ১৭ কোটি মানুষের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রাখতে এবং ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মোতাবেক তৃণমূল পর্যায়ে প্রশাসনে দলের প্রতিনিধি থাকতে হবে। তিনি সকলকে আগামী নির্বাচনে তৃণমূল প্রশাসনে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিকে নির্বাচিত করতে আহ্বান জানান। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ হারুনুর রশীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম এ ছালাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ,  নির্বাহী সদস্য মো. তরিকুল আলম খান। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা প্যানেল মেয়র মো. আমিনুল ইসলাম মুন্না, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, এম এ রিয়াজ কচি, কাজী জাহিদ হোসেন, প্যানেল মেয়র এ্যাড. মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, কাউন্সিলর এস এম মোজাফফর রশিদী রেজা, কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন, ক্উান্সিলর শামছুজ্জাামান মিয়া স্বপন, কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর আনিছুর রহমান বিশ^াস, কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলী, কাউন্সিলর কাজী আবুল কালাম আজাদ বিকু, কাউন্সিলর ইমাম হাসান চৌধুরী ময়না, মো. জামিল খান, কাউন্সিলর এস এম খুরশিদ আহমেদ টোনা, কাউন্সিলর মো. আব্দুস সালাম, কাউন্সিলর শেখ আব্দুর রাজ্জাক, কাউন্সিলর মো. সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর এম ডি মাহফুজুর রহমান লিটন, কাউন্সিলর মো. কবির হোসেন কবু মোল্লা, কাউন্সিলর শেখ সামছুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, কাউন্সিলর মো. সুলতান মাহমুদ, কাউন্সিলর মো. ডালিম হাওলাদার, কাউন্সিলর মো. মনিরুজ্জামান, কাউন্সিলর মো. হাফিজুর রহমান, কাউন্সিলর আশফাকুর রহমান কাকন, কাউন্সিলর গোলাম মাওলা শানু, কাউন্সিলর আরিফ হোসেন মিঠু, কাউন্সিলর পারভিন আক্তার, কাউন্সিলর মনিরা আক্তার, কাউন্সিলর সাহিদা বেগম, কাউন্সিলর রহিমা আক্তার হেনা, কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, কাউন্সিলর কণিকা সাহা, কাউন্সিলর মাজেদা বেগম, কাউন্সিলর রেকসোনা কালাম লিলিসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।