১০:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই বিলিয়ন ডলারের অধিক বিনিয়োগ করছে এমিরেটস

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৫:০০:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ৫১ পড়েছেন

ভ্রমণকালে যাত্রীদের ইনফ্লাইট অভিজ্ঞতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এমিরেটস ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে, যার মধ্যে রয়েছে ১২০টির অধিক উড়োজাহাজকে সর্বাধুনিক ইন্টেরিয়র দিয়ে সাজানো, এবং সকল শ্রেণীতে সেবার মান আরো বৃদ্ধি। ২০২২ সাল থেকে শুরু হতে যাওয়া এই প্রোগ্রামে ২বিলিয়ন মার্কিন ডলারের অধিক ব্যয় হবে ।

এমিরেটস এয়ারলাইনের প্রেসিডেন্ট এই প্রসঙ্গে বলেন, “প্রতিকূল পরিস্থিতিতে যখন অন্যান্যরা ব্যয় সাশ্রয় করছে, আমরা তখন স্রোতের বিপরীতে গিয়ে যাত্রীদের আরো উন্নত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিনিয়োগ করার উদ্যোগ নিয়েছি”।

তিনি আরো বলেন, “আমরা এমন কিছু প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি যার মাধ্যমে এমিরেটসের ইনফ্লাইট অভিজ্ঞতাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যেতে সক্ষম হবো”।

এমিরেটসের সর্বশেষ উদ্যোগগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ খাবার মেন্যুতে উন্নতী, সম্পূর্ণ নতুন ভেগান মেন্যু, ‘সিনেমা ইন দা স্কাই’, কেবিন ইন্টেরিয়রে উন্নয়ন ইত্যাদি। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় হসপিটালিটি ব্যবস্থাপনা স্কুল (ইকোল হোটেলিয়ার ডি লসাম) এর সঙ্গে যৌথভাবে এমিরেটস তার নিজস্ব হসপিটালিটি স্ট্রাটেজি তৈরি করবে যার মাধ্যমে যাত্রীদের আরো উন্নত অভিজ্ঞতা প্রদান করা সম্ভব হবে। এমিরেটসের কেবিন ক্রুরা ইতোমধ্যে নিবিড় প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করতে শুরু করেছেন।

এমিরেটসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিনিয়োগ হবে উড়োজাহাজগুলোর ইন্টেরিয়র নতুনভাবে সজ্জিত করণে, যার মধ্যে আসনের কভার, প্যানেল, ফ্লোরসহ অন্যান্য বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত থাকবে। এই রেট্রোফিট কার্যক্রম শেষ হলে এমিরেটস বহরে ১২০টি উড়োজাহাজে প্রিমিয়াম ইকোনমি সীট সেবা পাওয়া যাবে।

সুপরিসর বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজের সাহায্যে এমিরেটস বর্তমানে ঢাকা থেকে দৈনিক ৩টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে গলাচিপায় বেড়েছে বাতাস ও নদীর পানি

দুই বিলিয়ন ডলারের অধিক বিনিয়োগ করছে এমিরেটস

প্রকাশিত সময় : ০৫:০০:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

ভ্রমণকালে যাত্রীদের ইনফ্লাইট অভিজ্ঞতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এমিরেটস ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে, যার মধ্যে রয়েছে ১২০টির অধিক উড়োজাহাজকে সর্বাধুনিক ইন্টেরিয়র দিয়ে সাজানো, এবং সকল শ্রেণীতে সেবার মান আরো বৃদ্ধি। ২০২২ সাল থেকে শুরু হতে যাওয়া এই প্রোগ্রামে ২বিলিয়ন মার্কিন ডলারের অধিক ব্যয় হবে ।

এমিরেটস এয়ারলাইনের প্রেসিডেন্ট এই প্রসঙ্গে বলেন, “প্রতিকূল পরিস্থিতিতে যখন অন্যান্যরা ব্যয় সাশ্রয় করছে, আমরা তখন স্রোতের বিপরীতে গিয়ে যাত্রীদের আরো উন্নত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিনিয়োগ করার উদ্যোগ নিয়েছি”।

তিনি আরো বলেন, “আমরা এমন কিছু প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি যার মাধ্যমে এমিরেটসের ইনফ্লাইট অভিজ্ঞতাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যেতে সক্ষম হবো”।

এমিরেটসের সর্বশেষ উদ্যোগগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ খাবার মেন্যুতে উন্নতী, সম্পূর্ণ নতুন ভেগান মেন্যু, ‘সিনেমা ইন দা স্কাই’, কেবিন ইন্টেরিয়রে উন্নয়ন ইত্যাদি। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় হসপিটালিটি ব্যবস্থাপনা স্কুল (ইকোল হোটেলিয়ার ডি লসাম) এর সঙ্গে যৌথভাবে এমিরেটস তার নিজস্ব হসপিটালিটি স্ট্রাটেজি তৈরি করবে যার মাধ্যমে যাত্রীদের আরো উন্নত অভিজ্ঞতা প্রদান করা সম্ভব হবে। এমিরেটসের কেবিন ক্রুরা ইতোমধ্যে নিবিড় প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করতে শুরু করেছেন।

এমিরেটসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিনিয়োগ হবে উড়োজাহাজগুলোর ইন্টেরিয়র নতুনভাবে সজ্জিত করণে, যার মধ্যে আসনের কভার, প্যানেল, ফ্লোরসহ অন্যান্য বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত থাকবে। এই রেট্রোফিট কার্যক্রম শেষ হলে এমিরেটস বহরে ১২০টি উড়োজাহাজে প্রিমিয়াম ইকোনমি সীট সেবা পাওয়া যাবে।

সুপরিসর বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজের সাহায্যে এমিরেটস বর্তমানে ঢাকা থেকে দৈনিক ৩টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে।