১০:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশের মানুষ এতিমের অর্থ লুণ্ঠনকারীদের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেখতে চায় না : সিটি মেয়র

###    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, এদেশের মানুষ এতিমের অর্থ লুণ্ঠনকারীদের আর রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেখতে চায় না। যাদের হাতে এদেশ ও জাতি নিরাপদ না তাদের ডাকে বাংলার মানুষ আর সাড়া দেবে না। সে কারণেই বিএনপি আজ রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হয়ে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করছে। তিনি বলেন, জনগণ শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আওয়ামী লীগকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় রাখতে চায়। জনগণের এই প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটাতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, বিএনপি একটি নির্বাচিত সরকারকে উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র করে গণতন্ত্রকে বিধ্বস্ত করতে চায়। তাদের এই ষড়যন্ত্রকে মূল উৎপাটন করে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে। শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় দলীয় কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা। খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগের পরিচালনায় এ সময়ে আরো বক্তব্য রাখেন, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, শেখ ফারুক হাসান হিটলু, হাফেজ মো. শামীম, মো. মফিদুল ইসলাম টুটুল, কাউন্সিলর শেখ মো. গাউসুল আযম, তসলিম আহমেদ আশা, সফিকুর রহমান পলাশ, নূরীনা রহমান বিউটি, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল।

এসময়ে আওয়ামী লীগ নেতা মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর ইসলাম বন্দ, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যা. আলমগীর কবির, শেখ মো. আনোয়ার হোসেন, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, মো. শাহজাদা, কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন, কাউন্সিলর শামছ্জ্জুামান মিয়া স্বপন, কামরুল ইসলাম বাবলু, নুর মোহাম্মদ শেখ, মোজাম্মেল হক হাওলদার, মাহবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, বীর মুক্তিাযোদ্ধা কাউন্সিলর মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, মনিরুজ্জামান খান খোকন, এস এম আকিল উদ্দিন, কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ বিকু, কাউন্সিলর মাহফুজুর রহমান লিটন, কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, কাউন্সিলর কণিকা সাহা, কাউন্সিলর রেকসোনা কালাম লিলি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোতালেব মিয়া, এ্যাড. এ কে এম শাহজাহান কচি, রনজিত কুমার ঘোষ, এম এ নাসিম, অধ্যা. এ বি এম আদেল মুকুল, শবনম সাবা, জেসমিন সুলতানা শম্পা, নুর জাহান রুমী, মীর বরকত আলী, মো. আমির হোসেন, মো. রাজ্জাক হোসেন, মো. রুহুল আমিন খান, আলী আকবর মাতুব্বর, এ্যাড. শামীম আহমেদ পলাশ, নজিবুল ইসলাম নজিব, শেখ আবিদ উল্লাহ, মো. নুর ইসলাম, শেখ জাহিদুল ইসলাম, শেখ জাহিদুল হক, চ. ম. মুজিবর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আইয়ুব আলী, শেখ আব্দুল আজিজ, মঈনুল ইসলাম নাসির, জামিরুল হুদা জহর, চৌধুরী মিনহাজ উজ জামান সজল, ফেরদৌস হোসেন লাবু, বাবুল সরদার বাদল, আব্দুল হাই পলাশ, এ্যাড. ফারুক হোসেন, মো. ফয়েজুল ইসলাম টিটো, নজরুল ইসলাম তালুকদার, মো. শিহাব উদ্দিন, এ্যাড. শামীম আহমেদ পলাশ, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, মো. আজম খান, শেখ এশারুল হক, ওহিদুল ইসলাম পলাশ, মুন্সি সেলিম হোসেন, সরদার আব্দুল হালিম, শেখ মো. রুহুল আমিন, মীর মো. লিটন, মো. জাকির হোসেন, মো. মোতালেব মিয়া, ইউসুফ আলী খান, এস এম হাফিজুর রহমান হাফিজ, রোজী ইসলাম নদী, কবীর পাঠান, আফরোজা জেসমিন বিথী, আইরিন চৌধুরী নীপা, নাসরিন ইসলাম তন্দ্রা, শওকাত হোসেন, মো. তাজুল ইসলাম, আব্দুস সালাম ফারাজী, কামরুল ইসলাম, মো. জিলহজ্ব হাওলাদার, মো. শহীদুল হাসান, মাসুদ হাসান সোহান, জব্বার আলী হীরা, জহির আব্বাস, ইখতিয়ার উদ্দিন মোল্লা, ইবনুল হাসান, মাহমুদুর রহমান রাজেস, শংকর কুন্ডু, ওমর কামালসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।সমাবেশ শেষে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল নগরীর শিববাড়ি মোড় ঘুরে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম

দেশের মানুষ এতিমের অর্থ লুণ্ঠনকারীদের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেখতে চায় না : সিটি মেয়র

প্রকাশিত সময় : ০৮:৩৩:১৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

###    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, এদেশের মানুষ এতিমের অর্থ লুণ্ঠনকারীদের আর রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেখতে চায় না। যাদের হাতে এদেশ ও জাতি নিরাপদ না তাদের ডাকে বাংলার মানুষ আর সাড়া দেবে না। সে কারণেই বিএনপি আজ রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হয়ে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করছে। তিনি বলেন, জনগণ শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আওয়ামী লীগকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় রাখতে চায়। জনগণের এই প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটাতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, বিএনপি একটি নির্বাচিত সরকারকে উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র করে গণতন্ত্রকে বিধ্বস্ত করতে চায়। তাদের এই ষড়যন্ত্রকে মূল উৎপাটন করে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে। শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় দলীয় কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা। খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগের পরিচালনায় এ সময়ে আরো বক্তব্য রাখেন, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, শেখ ফারুক হাসান হিটলু, হাফেজ মো. শামীম, মো. মফিদুল ইসলাম টুটুল, কাউন্সিলর শেখ মো. গাউসুল আযম, তসলিম আহমেদ আশা, সফিকুর রহমান পলাশ, নূরীনা রহমান বিউটি, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল।

এসময়ে আওয়ামী লীগ নেতা মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর ইসলাম বন্দ, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যা. আলমগীর কবির, শেখ মো. আনোয়ার হোসেন, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, মো. শাহজাদা, কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন, কাউন্সিলর শামছ্জ্জুামান মিয়া স্বপন, কামরুল ইসলাম বাবলু, নুর মোহাম্মদ শেখ, মোজাম্মেল হক হাওলদার, মাহবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, বীর মুক্তিাযোদ্ধা কাউন্সিলর মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, মনিরুজ্জামান খান খোকন, এস এম আকিল উদ্দিন, কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ বিকু, কাউন্সিলর মাহফুজুর রহমান লিটন, কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, কাউন্সিলর কণিকা সাহা, কাউন্সিলর রেকসোনা কালাম লিলি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোতালেব মিয়া, এ্যাড. এ কে এম শাহজাহান কচি, রনজিত কুমার ঘোষ, এম এ নাসিম, অধ্যা. এ বি এম আদেল মুকুল, শবনম সাবা, জেসমিন সুলতানা শম্পা, নুর জাহান রুমী, মীর বরকত আলী, মো. আমির হোসেন, মো. রাজ্জাক হোসেন, মো. রুহুল আমিন খান, আলী আকবর মাতুব্বর, এ্যাড. শামীম আহমেদ পলাশ, নজিবুল ইসলাম নজিব, শেখ আবিদ উল্লাহ, মো. নুর ইসলাম, শেখ জাহিদুল ইসলাম, শেখ জাহিদুল হক, চ. ম. মুজিবর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আইয়ুব আলী, শেখ আব্দুল আজিজ, মঈনুল ইসলাম নাসির, জামিরুল হুদা জহর, চৌধুরী মিনহাজ উজ জামান সজল, ফেরদৌস হোসেন লাবু, বাবুল সরদার বাদল, আব্দুল হাই পলাশ, এ্যাড. ফারুক হোসেন, মো. ফয়েজুল ইসলাম টিটো, নজরুল ইসলাম তালুকদার, মো. শিহাব উদ্দিন, এ্যাড. শামীম আহমেদ পলাশ, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, মো. আজম খান, শেখ এশারুল হক, ওহিদুল ইসলাম পলাশ, মুন্সি সেলিম হোসেন, সরদার আব্দুল হালিম, শেখ মো. রুহুল আমিন, মীর মো. লিটন, মো. জাকির হোসেন, মো. মোতালেব মিয়া, ইউসুফ আলী খান, এস এম হাফিজুর রহমান হাফিজ, রোজী ইসলাম নদী, কবীর পাঠান, আফরোজা জেসমিন বিথী, আইরিন চৌধুরী নীপা, নাসরিন ইসলাম তন্দ্রা, শওকাত হোসেন, মো. তাজুল ইসলাম, আব্দুস সালাম ফারাজী, কামরুল ইসলাম, মো. জিলহজ্ব হাওলাদার, মো. শহীদুল হাসান, মাসুদ হাসান সোহান, জব্বার আলী হীরা, জহির আব্বাস, ইখতিয়ার উদ্দিন মোল্লা, ইবনুল হাসান, মাহমুদুর রহমান রাজেস, শংকর কুন্ডু, ওমর কামালসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।সমাবেশ শেষে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল নগরীর শিববাড়ি মোড় ঘুরে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। ##