১১:১১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দৌলতপুরে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা যুবকের

###     কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বাজারপাড়া গ্রামের এজের বিশ্বাসের ছেলে সোহেল রানা নিজের গলায় নিজে কোপ দিয়ে কেটে আত্মহত্যা করেছে।রবিবার সকাল ৯টার দিকে বাজার পাড়ার পশ্চিমের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়।
এ বিষয়ে প্রত্যাক্ষদর্শী চৌধুরী পাড়া গ্রামের দিন মহাম্মদের সাইদুর বলেন, আমি পাশের জমিতে কাজ করছিলাম হঠাৎ দেখি সোহেল রানা নিজের গলা ধরে দৌড়াচ্ছে এবং তার শরিরে রক্ত। আমিসহ আশে পাশের জমিতে কাজ করা ব্যক্তিরা তার বাড়িতে খবর দেয়। এ বিষয়ে সোহেল এর মা যমুনা খাতুন বলেন, প্রতিদিনের মত আমার ছেলে সকালে খাওয়া দাওয়া শেষে মাঠে যায়। আমি ও ছেলের সাথে বাজার পাড়ার পশ্চিমের মাঠে যায়। আমি ছেলেকে রেখে সকাল অনুমানিক ৯ টার পরে চলে আসি পরে শুনতে পাই আমার ছেলে নিজে, নিজের গলায় হাঁসুয়া দিয়ে কোপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। রাজশাহী যাওয়ার পথে আমার ছেলে অনুমানিক ১১টার সময় মারা যায় , আমাদের পারিবারিক কোন সমস্যা ছিলনা তবে আজ প্রায় ২ মাস যাবত একটু একটু মাথায় সমস্যা মনে হচ্ছিল। এ বিষয়ে সোহেল রানার স্ত্রী চাঁদনী বলেন, আমাদের সংসারে কোন ঝামেলা ছিল না।সে সকালে খাওয়া দাওয়া শেষে মাঠে চলে যায়। হঠাৎ এলাকাবাসীর কাছে শুনি আমার স্বামী আত্মহত্যা করেছে। তবে আজ ২ মাস যাবত আমার স্বামীর মাথায় সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে আমরা কোন চিকিৎসা দেয় নাই। দৌলতপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

আগামী জানুয়ারি থেকে মোংলা-যশোর রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু

দৌলতপুরে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা যুবকের

প্রকাশিত সময় : ০৮:০৬:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###     কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বাজারপাড়া গ্রামের এজের বিশ্বাসের ছেলে সোহেল রানা নিজের গলায় নিজে কোপ দিয়ে কেটে আত্মহত্যা করেছে।রবিবার সকাল ৯টার দিকে বাজার পাড়ার পশ্চিমের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়।
এ বিষয়ে প্রত্যাক্ষদর্শী চৌধুরী পাড়া গ্রামের দিন মহাম্মদের সাইদুর বলেন, আমি পাশের জমিতে কাজ করছিলাম হঠাৎ দেখি সোহেল রানা নিজের গলা ধরে দৌড়াচ্ছে এবং তার শরিরে রক্ত। আমিসহ আশে পাশের জমিতে কাজ করা ব্যক্তিরা তার বাড়িতে খবর দেয়। এ বিষয়ে সোহেল এর মা যমুনা খাতুন বলেন, প্রতিদিনের মত আমার ছেলে সকালে খাওয়া দাওয়া শেষে মাঠে যায়। আমি ও ছেলের সাথে বাজার পাড়ার পশ্চিমের মাঠে যায়। আমি ছেলেকে রেখে সকাল অনুমানিক ৯ টার পরে চলে আসি পরে শুনতে পাই আমার ছেলে নিজে, নিজের গলায় হাঁসুয়া দিয়ে কোপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। রাজশাহী যাওয়ার পথে আমার ছেলে অনুমানিক ১১টার সময় মারা যায় , আমাদের পারিবারিক কোন সমস্যা ছিলনা তবে আজ প্রায় ২ মাস যাবত একটু একটু মাথায় সমস্যা মনে হচ্ছিল। এ বিষয়ে সোহেল রানার স্ত্রী চাঁদনী বলেন, আমাদের সংসারে কোন ঝামেলা ছিল না।সে সকালে খাওয়া দাওয়া শেষে মাঠে চলে যায়। হঠাৎ এলাকাবাসীর কাছে শুনি আমার স্বামী আত্মহত্যা করেছে। তবে আজ ২ মাস যাবত আমার স্বামীর মাথায় সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে আমরা কোন চিকিৎসা দেয় নাই। দৌলতপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ##