০৬:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাইক্ষ্যংছড়ির পর এবার উখিয়া সীমান্তে গোলাগুলি

  • মধুমতি ডেস্ক :
  • প্রকাশিত সময় : ০২:৩৬:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ৬৩ পড়েছেন

বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্তের পর এবার কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালীর আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। মঙ্গলবার সকাল থেকে সীমান্তের বিপরীতে নাফনদের ওপারে গোলাগুলি শুরু হয়। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বাংলাদেশ সীমান্তের বাসিন্দারা।

এতদিন ধরে কেবল বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের ২০ কিলোমিটার সীমান্ত এলাকার কাছেই গোলাগুলির ঘটনা চলে আসছিল।

এদিতে মঙ্গলবার সকালে নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ৪৩/৪৪ পিলারের জামছড়ি ও তুমব্রু সীমান্তে গোলাগুলি শুরু হয়ে ১১টা পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। দুপুর ২টার দিকে একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের কর্মীরা তুমব্রু সীমান্তের এপারের পাহাড় থেকে ভিডিও করার সময় ওপারের তুমব্রু বিজিপি চৌঁকি থেকে আকস্মিক ফাঁকাগুলি বর্ষণ করা হয়। সীমান্ত পরিদর্শনে যাওয়া গণমাধ্যম দলটির এক কর্মী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের ক্যামেরায় ছবি ও গোলাগুলির শব্দ ধারণ করা গেছে। ’

আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে গোলাগুলির শব্দের বিষয়টি নিশ্চিত করে পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, আঞ্জুমানপাড়া সীমান্ত এলাকার ৩ থেকে ৪ কিলোমিটার পূর্বে গুলির আওয়াজ শুনতে পান স্থানীয়রা। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত থেমে থেমে এখানে গোলাবর্ষণের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত করেছেন বলে জানান পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটা রিপোর্টার্স ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত 

নাইক্ষ্যংছড়ির পর এবার উখিয়া সীমান্তে গোলাগুলি

প্রকাশিত সময় : ০২:৩৬:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্তের পর এবার কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালীর আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। মঙ্গলবার সকাল থেকে সীমান্তের বিপরীতে নাফনদের ওপারে গোলাগুলি শুরু হয়। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বাংলাদেশ সীমান্তের বাসিন্দারা।

এতদিন ধরে কেবল বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের ২০ কিলোমিটার সীমান্ত এলাকার কাছেই গোলাগুলির ঘটনা চলে আসছিল।

এদিতে মঙ্গলবার সকালে নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ৪৩/৪৪ পিলারের জামছড়ি ও তুমব্রু সীমান্তে গোলাগুলি শুরু হয়ে ১১টা পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। দুপুর ২টার দিকে একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের কর্মীরা তুমব্রু সীমান্তের এপারের পাহাড় থেকে ভিডিও করার সময় ওপারের তুমব্রু বিজিপি চৌঁকি থেকে আকস্মিক ফাঁকাগুলি বর্ষণ করা হয়। সীমান্ত পরিদর্শনে যাওয়া গণমাধ্যম দলটির এক কর্মী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের ক্যামেরায় ছবি ও গোলাগুলির শব্দ ধারণ করা গেছে। ’

আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে গোলাগুলির শব্দের বিষয়টি নিশ্চিত করে পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, আঞ্জুমানপাড়া সীমান্ত এলাকার ৩ থেকে ৪ কিলোমিটার পূর্বে গুলির আওয়াজ শুনতে পান স্থানীয়রা। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত থেমে থেমে এখানে গোলাবর্ষণের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত করেছেন বলে জানান পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।