০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুরান ঢাকায় উৎসবমুখর পরিবেশে বড়দিন পালন

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৬:১৯:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২২
  • ৩১ পড়েছেন

পুরান ঢাকার গির্জাগুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হয়েছে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব বড়দিন।

আজ রবিবার (২৫ ডিসেম্বর) বড়দিনে পুরান ঢাকার বিখ্যাত চার গির্জা লক্ষীবাজারের হলিক্রস গির্জা, সদরঘাট ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ, আরমানিটোলার আর্মেনিয়ান গির্জা ও শাঁখারি বাজারের সেন্ট থমাস চার্চে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসব পালন করতে দেখা যায়। ছবি তোলা, প্রার্থনা করা নানা আয়োজনের দিনটি পালন করবে।

গির্জাগুলো পরিদর্শন করে দেখা যায়, গির্জায় বড়দিন উপলক্ষে প্রদর্শন করা হচ্ছে সদ্যজাত যীশু, যীশুর মা মারিয়া ও পূর্ণবয়স্ক যীশুর মূর্তি। খ্রিস্টানরা সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন।
হলিক্রস গির্জার চার্চ ফাদার ডনেল ক্রুস বলেন, একে অপরের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতা ভাতৃত্বের বন্ধনে সবাইকে একত্রিত করার মাধ্যমে গরিব দুঃখী সবার পাশে দাঁড়াতে হবে। এমন মূল বিষয়কে সামনে রেখে আমরা দিনটি উদযাপন করছি।

 

সেন্ট ফ্রান্সিস হাইস্কুলের শিক্ষক ইভা লুসি মারাক বলেন,আজ আমাদের যীশুর জন্মদিন। তিনি এসেছিলেন মানুষের মুক্তির জন্য, কল্যাণের জন্য। তাঁর এই জন্মদিন আমাদেরকে কল্যাণ, সাম্য, সম্প্রতির শিক্ষা দেয়। সারাবিশ্বে ২৩১ কোটি মানুষ খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারী। বাংলাদেশেও ৫ লক্ষাধিক খ্রিস্টান বাস করেন। এদেশে তাদের রয়েছে কয়েক’শ বছরের ইতিহাস। ফলে সারাদেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবছর পালিত হয় বড়দিন।

উল্লেখ্য, খ্রিস্টান ধর্মের প্রবর্তক যীশু খ্রিস্টের জন্মদিন উপলক্ষে প্রতিবছর ২৫ ডিসেম্বর সারাবিশ্বে পালিত হয় খ্রিস্টানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন বা ক্রিসমাস ডে। এই দিনটিই যিশুর প্রকৃত জন্মদিন কিনা তা জানা যায় না। তবে, আদিযুগীয় খ্রিস্টানদের বিশ্বাস অনুসারে, এই তারিখের ঠিক নয় মাস পূর্বে মেরির গর্ভে প্রবেশ করেন যীশু। সম্ভবত, এই হিসাব অনুসারেই ২৫ ডিসেম্বর তারিখটিকে যিশুর জন্ম তারিখ ধরা হয়।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটা রিপোর্টার্স ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত 

পুরান ঢাকায় উৎসবমুখর পরিবেশে বড়দিন পালন

প্রকাশিত সময় : ০৬:১৯:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২২

পুরান ঢাকার গির্জাগুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হয়েছে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব বড়দিন।

আজ রবিবার (২৫ ডিসেম্বর) বড়দিনে পুরান ঢাকার বিখ্যাত চার গির্জা লক্ষীবাজারের হলিক্রস গির্জা, সদরঘাট ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ, আরমানিটোলার আর্মেনিয়ান গির্জা ও শাঁখারি বাজারের সেন্ট থমাস চার্চে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসব পালন করতে দেখা যায়। ছবি তোলা, প্রার্থনা করা নানা আয়োজনের দিনটি পালন করবে।

গির্জাগুলো পরিদর্শন করে দেখা যায়, গির্জায় বড়দিন উপলক্ষে প্রদর্শন করা হচ্ছে সদ্যজাত যীশু, যীশুর মা মারিয়া ও পূর্ণবয়স্ক যীশুর মূর্তি। খ্রিস্টানরা সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন।
হলিক্রস গির্জার চার্চ ফাদার ডনেল ক্রুস বলেন, একে অপরের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতা ভাতৃত্বের বন্ধনে সবাইকে একত্রিত করার মাধ্যমে গরিব দুঃখী সবার পাশে দাঁড়াতে হবে। এমন মূল বিষয়কে সামনে রেখে আমরা দিনটি উদযাপন করছি।

 

সেন্ট ফ্রান্সিস হাইস্কুলের শিক্ষক ইভা লুসি মারাক বলেন,আজ আমাদের যীশুর জন্মদিন। তিনি এসেছিলেন মানুষের মুক্তির জন্য, কল্যাণের জন্য। তাঁর এই জন্মদিন আমাদেরকে কল্যাণ, সাম্য, সম্প্রতির শিক্ষা দেয়। সারাবিশ্বে ২৩১ কোটি মানুষ খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারী। বাংলাদেশেও ৫ লক্ষাধিক খ্রিস্টান বাস করেন। এদেশে তাদের রয়েছে কয়েক’শ বছরের ইতিহাস। ফলে সারাদেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবছর পালিত হয় বড়দিন।

উল্লেখ্য, খ্রিস্টান ধর্মের প্রবর্তক যীশু খ্রিস্টের জন্মদিন উপলক্ষে প্রতিবছর ২৫ ডিসেম্বর সারাবিশ্বে পালিত হয় খ্রিস্টানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন বা ক্রিসমাস ডে। এই দিনটিই যিশুর প্রকৃত জন্মদিন কিনা তা জানা যায় না। তবে, আদিযুগীয় খ্রিস্টানদের বিশ্বাস অনুসারে, এই তারিখের ঠিক নয় মাস পূর্বে মেরির গর্ভে প্রবেশ করেন যীশু। সম্ভবত, এই হিসাব অনুসারেই ২৫ ডিসেম্বর তারিখটিকে যিশুর জন্ম তারিখ ধরা হয়।