০৪:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিভিন্ন মহলের আলোচনায়:

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে জেপি’র কেসিসি মেয়র প্রার্থী  মধু’র শ্রদ্ধা

###     খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শফিকুল ইসলাম মধু। শুক্রবার দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের কাছ থেকে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করে খুলনায় ফেরার পথে গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এ সময় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ইতোপূর্বে শফিকুল ইসলাম মধুসহ খুলনার জাপা নেতাদের বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে আনুষ্ঠানিকভাবে ফুল দিতে দেখা যায়নি। মনোনয়ন পেয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের ঘটনা নিয়ে জাতীয় পার্টির কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন। মহানগর জাপার সাবেক সদস্য সচিব এস এম মাসুদুর রহমান ফেসবুকে ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘এদের হাত থেকে লাঙ্গল বাঁচান, পল্লী বন্ধুর দলকে বাঁচান। মনোনয়ন নিয়ে খুলনায় আসার আগেই..’ তবে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শফিকুল ইসলাম মধু সাংবাদিকদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগের একার না, তিনি ১৮ কোটি মানুষের সম্পদ। মনোনয়ন পাওয়ার পরেই আমি সিদ্ধান্ত নেই বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত করে কাজ শুরু করবো। এটাকে ভিন্ন চোখে দেখা উচিত হবে না।’ জয়ের বিষয়ে কতোটা আশাবাদী জানতে চাইলে শফিকুল ইসলাম মধু এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, ‘একাদশ সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৬ আসন থেকে প্রতিদন্ধিতা করি। সেই নির্বাচনের অভিজ্ঞতা সুখকর ছিলো না। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে দেওয়া নেওয়া হয়েছে। সরকারের উচিত এই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া।’ প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৩ সালে খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেয়েছিলেন শফিকুল ইসলাম মধু। ওই নির্বাচনে তিনি ৩ হাজার ৭৬ ভোট পেয়েছিলেন। ভোট কম পাওয়ায় ২০১৮ সালের কেসিসি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন দেওয়া হয় এস এম মুশফিকুর রহমানকে। মুসফিক পান মধুর প্রাপ্ত ভোটের অর্ধেক ১ হাজার ৭২ ভোট ।পরে তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

গলাচিপায় অবৈধ দোকান উচ্ছেদের মাধ্যমে রাস্তা উন্মুক্ত করায় প্রসংশিত মেয়র

বিভিন্ন মহলের আলোচনায়:

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে জেপি’র কেসিসি মেয়র প্রার্থী  মধু’র শ্রদ্ধা

প্রকাশিত সময় : ১০:১২:২১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ মে ২০২৩

###     খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শফিকুল ইসলাম মধু। শুক্রবার দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের কাছ থেকে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করে খুলনায় ফেরার পথে গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এ সময় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ইতোপূর্বে শফিকুল ইসলাম মধুসহ খুলনার জাপা নেতাদের বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে আনুষ্ঠানিকভাবে ফুল দিতে দেখা যায়নি। মনোনয়ন পেয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের ঘটনা নিয়ে জাতীয় পার্টির কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন। মহানগর জাপার সাবেক সদস্য সচিব এস এম মাসুদুর রহমান ফেসবুকে ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘এদের হাত থেকে লাঙ্গল বাঁচান, পল্লী বন্ধুর দলকে বাঁচান। মনোনয়ন নিয়ে খুলনায় আসার আগেই..’ তবে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শফিকুল ইসলাম মধু সাংবাদিকদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগের একার না, তিনি ১৮ কোটি মানুষের সম্পদ। মনোনয়ন পাওয়ার পরেই আমি সিদ্ধান্ত নেই বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত করে কাজ শুরু করবো। এটাকে ভিন্ন চোখে দেখা উচিত হবে না।’ জয়ের বিষয়ে কতোটা আশাবাদী জানতে চাইলে শফিকুল ইসলাম মধু এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, ‘একাদশ সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৬ আসন থেকে প্রতিদন্ধিতা করি। সেই নির্বাচনের অভিজ্ঞতা সুখকর ছিলো না। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে দেওয়া নেওয়া হয়েছে। সরকারের উচিত এই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া।’ প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৩ সালে খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেয়েছিলেন শফিকুল ইসলাম মধু। ওই নির্বাচনে তিনি ৩ হাজার ৭৬ ভোট পেয়েছিলেন। ভোট কম পাওয়ায় ২০১৮ সালের কেসিসি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন দেওয়া হয় এস এম মুশফিকুর রহমানকে। মুসফিক পান মধুর প্রাপ্ত ভোটের অর্ধেক ১ হাজার ৭২ ভোট ।পরে তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। ##