১১:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ম্যুরালে অন্য কারও ছবি নয়

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:০৫:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৩
  • ৪৯ পড়েছেন

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ম্যুরালে যুক্ত করা হয় আরও দুইজনের ছবি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যুরালে অন্য কেউ তাদের ছবি সংযুক্ত করতে পারবেনা বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (৮ জানুয়ারি) বিচারপতি কেএম কামরুল কাদের ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর দ্বৈত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। জানা যায়, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় সরকারিভাবে নির্মিত ম্যুরালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবির নিচে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এবং তার ভাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকনের ছবি যুক্ত করা হয়। এমন ঘটনায় উষ্মা প্রকাশ করে হাইকোর্ট বলেছে, এটা তো গুরুতর অসদাচরণ। একইসঙ্গে ম্যুরালের মূল নকশা অপরিবর্তিত রেখে সাত দিনের মধ্যে সংযুক্ত ওই দুই জনের ছবি অপসারণ করতে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এ নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই ম্যুরালের নকশায় একপাশে বঙ্গবন্ধু ও আরেকপাশে কেবল শেখ হাসিনার ছবি রয়েছে। কিন্তু সেখানে অনুমতি ছাড়াই এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকনের ছবি যুক্ত করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের ছবির ভিত্তিতে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব’ এর ম্যুরাল নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক এডিপির অর্থায়নে সুনামগঞ্জের মধ্যনগর ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় এই ম্যুরাল নির্মাণ করা হয়।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ম্যুরালে অন্য কারও ছবি নয়

প্রকাশিত সময় : ০৯:০৫:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৩

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যুরালে অন্য কেউ তাদের ছবি সংযুক্ত করতে পারবেনা বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (৮ জানুয়ারি) বিচারপতি কেএম কামরুল কাদের ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর দ্বৈত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। জানা যায়, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় সরকারিভাবে নির্মিত ম্যুরালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবির নিচে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এবং তার ভাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকনের ছবি যুক্ত করা হয়। এমন ঘটনায় উষ্মা প্রকাশ করে হাইকোর্ট বলেছে, এটা তো গুরুতর অসদাচরণ। একইসঙ্গে ম্যুরালের মূল নকশা অপরিবর্তিত রেখে সাত দিনের মধ্যে সংযুক্ত ওই দুই জনের ছবি অপসারণ করতে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এ নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই ম্যুরালের নকশায় একপাশে বঙ্গবন্ধু ও আরেকপাশে কেবল শেখ হাসিনার ছবি রয়েছে। কিন্তু সেখানে অনুমতি ছাড়াই এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকনের ছবি যুক্ত করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের ছবির ভিত্তিতে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব’ এর ম্যুরাল নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক এডিপির অর্থায়নে সুনামগঞ্জের মধ্যনগর ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় এই ম্যুরাল নির্মাণ করা হয়।