০৫:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন-স্মারকলিপি

বটিয়াটায় কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্প, স্লুইচ গেট ও খাল ভরাটে ৮‘শো একর জমিতে চাষাবাদ বন্ধের আশংকা

####

 

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের হাটবাটি গ্রামের পূর্বাংশে বিস্তির্ণ ৩ফসলি জমিতে আবাসন প্রকল্পের নামে অবৈধ ভাবে বালু ভরাট করে স্লুইচ গেটের পথ এবং বরুই তলা খাল ভরাট করে দিয়েছে ভুমিদস্যু ও আবাসন কোম্পানীর মালিকরা। আমিন প্রোপার্টিস্ ও রয়েল প্রোপার্টিসের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে স্থানীয় ও খুলনা শহরের কিছু ভুমিদস্যু ও প্রভাবশালী ব্যক্তি কৃষি জমিতে আবাসন ও কলকারখানা না করার প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে অমান্য করে ০৩ফসলি কৃষিজমিতে বালু ভরাট করে প্লটিং ব্যবসায় মেতে উঠেছে। এতে স্থানীয় কৃষকের শত শত একর জমিতে পানি ‍উত্তোলনের একমাত্র পথটি বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে চলতি আমন মৌসুমে এলাকার প্রায় ৮শ একর জমির ফসল উৎপাদন বন্ধের আশংকা তৈরী হয়েছে। ফসল উৎপাদন বন্ধের আশংকায় স্থানীয় কৃষকরা ফুঁসে উঠেছে। কৃষিজমিতে আবাসান প্রকল্প এবং পানি নি:ষ্কাশন পথ ও খাল ভরাটের প্রতিবাদে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর হাটবাটি মঠ এলকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন অনুপম মন্ডল, তাপস বিশ্বাস ওরফে গাইন, নব কুমার রায়, পলাশ সরকার, অলোক মল্লিক, অভিজিত বাছাড়, গৌর গাইন, পঞ্চানন বাছাড় ওরফে ধলা, দীলিপ গাইন, মিলন মল্লিক, উত্তম রায় প্রমুখ। মানববন্ধনে এলাকার পাঁচশতাধিক কৃষক-কৃষানী ও ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বরুইতলা খাল ও হাটবাটি স্লুইচ গেটের পানির উপর এলাকার হাজার হাজার দরিদ্র কৃষক পরিবার নির্ভরশীল। আমিন প্রপার্টিস্ ও রয়েল প্রপার্টিসের সাইন বোর্ড ব্যবহার করে কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি সরকারের আইন ও কৃষিজমি ভরাট বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে এলাকার ০৩ ফসলি কৃষিজমিতে বালু ভরাট করে প্লটিং ব্যবসায় মেতে উঠেছে। ফলে চাষাবাদের জন্য এলাকায় তীব্র পানির সংকট তৈরী হয়েছে। এতে হাটবাটি এলাকার বিলের প্রায় একহাজার একর কৃষিজমিতে চলতি আমন মৌসুমে পানির অভাবে চাষাবাদ হুমকিতে পড়েছে। বর্তমান আমন মৌসুমে বীজ তলা তৈরী করতে না পেরে কৃষকদের তীব্র হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। দ্রুত ৩ফসলী কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্প বন্ধ এবং স্লুইচ গেট এবং খাল ভরাট বন্ধ করে কৃষকের সুষ্ঠু পানির ব্যবস্থা করার দাবী জানানো হয়। মানববন্ধন শেষে কৃষিজমিতে আবাসন প্রকল্প বন্ধ এবং পানি নিষ্কাশন পথ ও খাল ভরাট বন্ধের দাবীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান প্রদান করা হয়। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

দশমিনায় পরীক্ষায় অসৎ উপায় অবলম্বন করায় দুই শিক্ষার্থী বহিস্কার

প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন-স্মারকলিপি

বটিয়াটায় কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্প, স্লুইচ গেট ও খাল ভরাটে ৮‘শো একর জমিতে চাষাবাদ বন্ধের আশংকা

প্রকাশিত সময় : ১২:০৭:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩

####

 

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের হাটবাটি গ্রামের পূর্বাংশে বিস্তির্ণ ৩ফসলি জমিতে আবাসন প্রকল্পের নামে অবৈধ ভাবে বালু ভরাট করে স্লুইচ গেটের পথ এবং বরুই তলা খাল ভরাট করে দিয়েছে ভুমিদস্যু ও আবাসন কোম্পানীর মালিকরা। আমিন প্রোপার্টিস্ ও রয়েল প্রোপার্টিসের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে স্থানীয় ও খুলনা শহরের কিছু ভুমিদস্যু ও প্রভাবশালী ব্যক্তি কৃষি জমিতে আবাসন ও কলকারখানা না করার প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে অমান্য করে ০৩ফসলি কৃষিজমিতে বালু ভরাট করে প্লটিং ব্যবসায় মেতে উঠেছে। এতে স্থানীয় কৃষকের শত শত একর জমিতে পানি ‍উত্তোলনের একমাত্র পথটি বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে চলতি আমন মৌসুমে এলাকার প্রায় ৮শ একর জমির ফসল উৎপাদন বন্ধের আশংকা তৈরী হয়েছে। ফসল উৎপাদন বন্ধের আশংকায় স্থানীয় কৃষকরা ফুঁসে উঠেছে। কৃষিজমিতে আবাসান প্রকল্প এবং পানি নি:ষ্কাশন পথ ও খাল ভরাটের প্রতিবাদে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর হাটবাটি মঠ এলকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন অনুপম মন্ডল, তাপস বিশ্বাস ওরফে গাইন, নব কুমার রায়, পলাশ সরকার, অলোক মল্লিক, অভিজিত বাছাড়, গৌর গাইন, পঞ্চানন বাছাড় ওরফে ধলা, দীলিপ গাইন, মিলন মল্লিক, উত্তম রায় প্রমুখ। মানববন্ধনে এলাকার পাঁচশতাধিক কৃষক-কৃষানী ও ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বরুইতলা খাল ও হাটবাটি স্লুইচ গেটের পানির উপর এলাকার হাজার হাজার দরিদ্র কৃষক পরিবার নির্ভরশীল। আমিন প্রপার্টিস্ ও রয়েল প্রপার্টিসের সাইন বোর্ড ব্যবহার করে কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি সরকারের আইন ও কৃষিজমি ভরাট বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে এলাকার ০৩ ফসলি কৃষিজমিতে বালু ভরাট করে প্লটিং ব্যবসায় মেতে উঠেছে। ফলে চাষাবাদের জন্য এলাকায় তীব্র পানির সংকট তৈরী হয়েছে। এতে হাটবাটি এলাকার বিলের প্রায় একহাজার একর কৃষিজমিতে চলতি আমন মৌসুমে পানির অভাবে চাষাবাদ হুমকিতে পড়েছে। বর্তমান আমন মৌসুমে বীজ তলা তৈরী করতে না পেরে কৃষকদের তীব্র হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। দ্রুত ৩ফসলী কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্প বন্ধ এবং স্লুইচ গেট এবং খাল ভরাট বন্ধ করে কৃষকের সুষ্ঠু পানির ব্যবস্থা করার দাবী জানানো হয়। মানববন্ধন শেষে কৃষিজমিতে আবাসন প্রকল্প বন্ধ এবং পানি নিষ্কাশন পথ ও খাল ভরাট বন্ধের দাবীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান প্রদান করা হয়। ##