০৬:৫০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাকেরগঞ্জে চাঁদার দাবিতে অবরুদ্ধ শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০১:৫৮:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২
  • ১০২ পড়েছেন

বরিশালের বাকেরগঞ্জে চাঁদা দাবির মুখে অবরুদ্ধ হয়ে পরেছে এক প্রধান শিক্ষকের পরিবার। ওই পরিবারটি বাসার বাহিরে বের হতে পারছেন না।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকেল ৫ টায় খয়রাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির সদর রোডস্থ সাংবাদিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির লিখিত বক্তব্য পাঠ করে জানান, বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের সাহেবগঞ্জ এলাকায় জেএল ৪৬ নং ভরপাশা মৌজার, এসএ খতিয়ান নং-৩৫৬৩, দাগ নং-১৪৬৪ থেকে ১৪ শতাংশ জমি আমি ও আমার ভাই ক্রয় করে বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসতেছি। ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পরে পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা খোকন হাওলাদার মন্টু বাহিনীর।

চাঁদাবাজ বাহিনী চাঁদা পেতে ব্যার্থ হয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠে। আমি যখন ২০১৪ সালে প্রথম ক্রয়কৃত জমিতে বসত ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করি তখন ওই মন্টু বাহিনীকে ২ লাখ টাকা চাঁদা দিয়েই বসতঘর নির্মান করতে হয়েছে। কিন্তু মন্টু কিছুদিন পুনরায় চাঁদা দাবি করলে চাঁদার টাকা দিতে আমি অস্বীকৃতি জানালে ৩ অক্টোবর আমার বসত ঘরের প্রধান ফটক কাঠ ও বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে দেয়। ওইদিন থেকে আমার পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পরেছি। এছাড়াও আমার বসত বাড়ির প্রাচীর ভেঙ্গে উঠান দখল করে গাছা রোপণ করেছে তারা। এমনকি পৌরসভা থেকে আমার বসত বাড়ির পানির সাপ্লাই লাইন তাও কেটে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে আমি বার বার থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলেও কোনো প্রতিকার পাইনি। তাই তিনি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত 

বাকেরগঞ্জে চাঁদার দাবিতে অবরুদ্ধ শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত সময় : ০১:৫৮:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২

বরিশালের বাকেরগঞ্জে চাঁদা দাবির মুখে অবরুদ্ধ হয়ে পরেছে এক প্রধান শিক্ষকের পরিবার। ওই পরিবারটি বাসার বাহিরে বের হতে পারছেন না।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকেল ৫ টায় খয়রাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির সদর রোডস্থ সাংবাদিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির লিখিত বক্তব্য পাঠ করে জানান, বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের সাহেবগঞ্জ এলাকায় জেএল ৪৬ নং ভরপাশা মৌজার, এসএ খতিয়ান নং-৩৫৬৩, দাগ নং-১৪৬৪ থেকে ১৪ শতাংশ জমি আমি ও আমার ভাই ক্রয় করে বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসতেছি। ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পরে পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা খোকন হাওলাদার মন্টু বাহিনীর।

চাঁদাবাজ বাহিনী চাঁদা পেতে ব্যার্থ হয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠে। আমি যখন ২০১৪ সালে প্রথম ক্রয়কৃত জমিতে বসত ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করি তখন ওই মন্টু বাহিনীকে ২ লাখ টাকা চাঁদা দিয়েই বসতঘর নির্মান করতে হয়েছে। কিন্তু মন্টু কিছুদিন পুনরায় চাঁদা দাবি করলে চাঁদার টাকা দিতে আমি অস্বীকৃতি জানালে ৩ অক্টোবর আমার বসত ঘরের প্রধান ফটক কাঠ ও বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে দেয়। ওইদিন থেকে আমার পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পরেছি। এছাড়াও আমার বসত বাড়ির প্রাচীর ভেঙ্গে উঠান দখল করে গাছা রোপণ করেছে তারা। এমনকি পৌরসভা থেকে আমার বসত বাড়ির পানির সাপ্লাই লাইন তাও কেটে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে আমি বার বার থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলেও কোনো প্রতিকার পাইনি। তাই তিনি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।