০৬:৫১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাকেরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম

বরিশালের বাকেরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। আহত গৃহবধূ মোসাঃ সালমা আক্তার (৪৫) বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টার সময় উপজেলার চরামদ্দী ইউনিয়নের কালিদাশিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গৃহবধূ সালমা আক্তার বাদী হয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরামদ্দী ইউনিয়নের কালিদাশিয়া গ্রামের সালমা আক্তারের স্বামী কে এম জাকির হোসেন পেশাগত কাজের সুবাদে ঢাকায় বসবাস করেন। তিনি বাড়িতে থেকে জমিজমা দেখাশোনা করেন।
তার স্বামী দূরে থাকার সুযোগে একই গ্রামের হেমায়েত হোসেন খানরা তাদের জমি জবর দখল করতে বিভিন্ন সময় মিথ্যা মামলা ও খুন জখম করার হুমকি দেয়।
শুক্রবার সকাল ১১ টার সময় ওই গৃহবধূ ভারাটে শ্রমিক দিয়ে তাদের বসত বাড়ির দক্ষিণ পাশে সরকারি রাস্তা সংলগ্ন নিজস্ব সীমানা চিহ্নিত ভোগদখলীয় জমিতে গাছপালা রোপন করছিলেন। এসময় একই গ্রামের হেমায়েত হোসেন খান ও তার পুত্র আনোয়ার হোসন খানসহ ৫-৬ জন পরিকল্পিতভাবে হাতে দা, লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে তাদের ভোগদখলীয় জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। তিনি এ ঘটনার প্রতিবাদ করিলে হেমায়েত ও আনোয়ার তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এমনকি হত্যা করার জন্য লোহার রড দিয়ে তাকে বারি দেয়। হামলাকারীরা তার গলায় পরিহিত স্বর্ণের চেইনসহ ৩৫ হাজার টাকার মালামাল ছিনাইয়া নেয়।
আহত গৃহবধূ সালমা আক্তার সাংবাদিকদের জানান, তার স্বামী ঢাকায় থাকায় তিনি প্রতিপক্ষের ফের হামলার আশঙ্কায় নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। এ বিষয়ে তিনি জেলা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি ও সহায়তা কামনা করেছেন।
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত 

বাকেরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত সময় : ০৪:৪৭:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২
বরিশালের বাকেরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। আহত গৃহবধূ মোসাঃ সালমা আক্তার (৪৫) বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টার সময় উপজেলার চরামদ্দী ইউনিয়নের কালিদাশিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গৃহবধূ সালমা আক্তার বাদী হয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরামদ্দী ইউনিয়নের কালিদাশিয়া গ্রামের সালমা আক্তারের স্বামী কে এম জাকির হোসেন পেশাগত কাজের সুবাদে ঢাকায় বসবাস করেন। তিনি বাড়িতে থেকে জমিজমা দেখাশোনা করেন।
তার স্বামী দূরে থাকার সুযোগে একই গ্রামের হেমায়েত হোসেন খানরা তাদের জমি জবর দখল করতে বিভিন্ন সময় মিথ্যা মামলা ও খুন জখম করার হুমকি দেয়।
শুক্রবার সকাল ১১ টার সময় ওই গৃহবধূ ভারাটে শ্রমিক দিয়ে তাদের বসত বাড়ির দক্ষিণ পাশে সরকারি রাস্তা সংলগ্ন নিজস্ব সীমানা চিহ্নিত ভোগদখলীয় জমিতে গাছপালা রোপন করছিলেন। এসময় একই গ্রামের হেমায়েত হোসেন খান ও তার পুত্র আনোয়ার হোসন খানসহ ৫-৬ জন পরিকল্পিতভাবে হাতে দা, লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে তাদের ভোগদখলীয় জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। তিনি এ ঘটনার প্রতিবাদ করিলে হেমায়েত ও আনোয়ার তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এমনকি হত্যা করার জন্য লোহার রড দিয়ে তাকে বারি দেয়। হামলাকারীরা তার গলায় পরিহিত স্বর্ণের চেইনসহ ৩৫ হাজার টাকার মালামাল ছিনাইয়া নেয়।
আহত গৃহবধূ সালমা আক্তার সাংবাদিকদের জানান, তার স্বামী ঢাকায় থাকায় তিনি প্রতিপক্ষের ফের হামলার আশঙ্কায় নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। এ বিষয়ে তিনি জেলা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি ও সহায়তা কামনা করেছেন।