১১:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক হাবিব রক্তাক্ত জখম, নিন্দা ও প্রতিবাদ, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী

###

বরিশালের বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসীদের হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছেন দৈনিক কাগজের সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক হাবিবুর রহমান। উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তিনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিকরা। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় চর আউলিয়াপুরের মৃত জহিরুল ইসলাম মোহনের পূত্র সন্ত্রাসী আশরাফ মৃধা ও তার ছেলে শুভ, রাজু মৃধা, মারুফ মৃধা, মৃত ফখরুদ্দিনের ছেলে ফোরকান, মোহাম্মদ খন্দকারের ছেলে হারুন খন্দকারসহ ওৎ পেতে থাকা ৬/৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবুরের উপর হামলা চালায়। এতে সাংবাদিক হাবিবুর রহমান রক্তাক্ত জখম হয়। জানা যায়, সন্ত্রাসী ভূমিদস্যু রিপন গত বছর বৈশাখ মাসে সাংবাদিক হাবিবের শশুরের কাছে জমির লাগানো বাবদ রিপনকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। রিপন টাকা নেওয়ার পরে স্ট্যাম্পে লিখিত স্বাক্ষর না দিয়ে তাল বাহানা শুরু করে। পরে উক্ত ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা চাইতে গেলে টাকা দিব-দিচ্ছি দিচ্ছি বলে নানা টালবাহানা শুরু করেন। যা নিয়ে একাধিকবার তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃস্টিও হয়েছে। এরই মধ্যে পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক বুধবার চর রঙ্গশ্রী ভেরিবাধের উপরে বসে পার্শ্ববর্তী বাগানে ওৎ পেতে রফিকুল ইসলাম রিপন, আশরাফ মৃধা সহ ৬ থেকে ৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবের মোটরসাইকেল থামিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। আহত সাংবাদিক হাবিব জানান, তার সাথে থাকা শ্বশুরের তরমুজ বিক্রির ১২ লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ছুটে যান থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, রিপন একজনের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ভূমিদস্যু। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ চর আউলিয়াবাসী। অবিলম্বে সন্ত্রাসী রিপন আশরাফ মৃধা ও তার সহযোগীদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন আহতের স্বজনরা।

সন্ত্রাসীদের হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছেন বাকেরগঞ্জের দৈনিক কাগজের সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক হাবিবুর রহমান। বর্তমানে তিনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিকরা। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় চর আউলিয়াপুরের মৃত জহিরুল ইসলাম মোহনের পূত্র সন্ত্রাসী আশরাফ মৃধা ও তার ছেলে শুভ, রাজু মৃধা, মারুফ মৃধা, মৃত ফখরুদ্দিনের ছেলে ফোরকান, মোহাম্মদ খন্দকারের ছেলে হারুন খন্দকার সহ ৬/৭ জন ওৎ পেতে থেকে সাংবাদিক হাবিবুর এর উপর হামলা চালায়। এতে সাংবাদিক হাবিবুর রহমান রক্তাক্ত জখম হয়। সূত্রে জানা যায়, সন্ত্রাসী ভূমিদস্যু রিপন গত বছর বৈশাখ মাসে সাংবাদিক হাবিবের শশুরের কাছে জমির লাগানো বাবদ রিপনকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। রিপন টাকা নেওয়ার পরে স্ট্যাম্পে লিখিত স্বাক্ষর না দিয়ে তাল বাহানা শুরু করে। পরে উক্ত ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা চাইতে গেলে টাকা দিব দিচ্ছি দিচ্ছি বলে নানা টালবাহানা শুরু করেন। যা নিয়ে একাধিকবার তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃস্টিও হয়েছে। এরই মধ্যে পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক বুধবার চর রঙ্গশ্রী ভেরিবাধের উপরে বসে পার্শ্ববর্তী বাগানে ওৎ পেতে রফিকুল ইসলাম রিপন, আশরাফ মৃধা সহ ৬ থেকে ৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবের মোটরসাইকেল থামিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। আহত সাংবাদিক হাবিব জানান, তার সাথে থাকা শ্বশুরের তরমুজ বিক্রির ১২ লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ছুটে যান থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, রিপন একজনের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ভূমিদস্যু। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ চর আউলিয়াবাসী। অবিলম্বে সন্ত্রাসী রিপন আশরাফ মৃধা ও তার সহযোগীদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন আহতের স্বজনরা।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক হাবিব রক্তাক্ত জখম, নিন্দা ও প্রতিবাদ, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী

প্রকাশিত সময় : ০১:৫০:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৭ এপ্রিল ২০২৩

###

বরিশালের বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসীদের হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছেন দৈনিক কাগজের সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক হাবিবুর রহমান। উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তিনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিকরা। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় চর আউলিয়াপুরের মৃত জহিরুল ইসলাম মোহনের পূত্র সন্ত্রাসী আশরাফ মৃধা ও তার ছেলে শুভ, রাজু মৃধা, মারুফ মৃধা, মৃত ফখরুদ্দিনের ছেলে ফোরকান, মোহাম্মদ খন্দকারের ছেলে হারুন খন্দকারসহ ওৎ পেতে থাকা ৬/৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবুরের উপর হামলা চালায়। এতে সাংবাদিক হাবিবুর রহমান রক্তাক্ত জখম হয়। জানা যায়, সন্ত্রাসী ভূমিদস্যু রিপন গত বছর বৈশাখ মাসে সাংবাদিক হাবিবের শশুরের কাছে জমির লাগানো বাবদ রিপনকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। রিপন টাকা নেওয়ার পরে স্ট্যাম্পে লিখিত স্বাক্ষর না দিয়ে তাল বাহানা শুরু করে। পরে উক্ত ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা চাইতে গেলে টাকা দিব-দিচ্ছি দিচ্ছি বলে নানা টালবাহানা শুরু করেন। যা নিয়ে একাধিকবার তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃস্টিও হয়েছে। এরই মধ্যে পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক বুধবার চর রঙ্গশ্রী ভেরিবাধের উপরে বসে পার্শ্ববর্তী বাগানে ওৎ পেতে রফিকুল ইসলাম রিপন, আশরাফ মৃধা সহ ৬ থেকে ৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবের মোটরসাইকেল থামিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। আহত সাংবাদিক হাবিব জানান, তার সাথে থাকা শ্বশুরের তরমুজ বিক্রির ১২ লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ছুটে যান থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, রিপন একজনের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ভূমিদস্যু। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ চর আউলিয়াবাসী। অবিলম্বে সন্ত্রাসী রিপন আশরাফ মৃধা ও তার সহযোগীদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন আহতের স্বজনরা।

সন্ত্রাসীদের হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছেন বাকেরগঞ্জের দৈনিক কাগজের সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক হাবিবুর রহমান। বর্তমানে তিনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিকরা। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চর বঙ্গশ্রী ভেরিবাঁধে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় চর আউলিয়াপুরের মৃত জহিরুল ইসলাম মোহনের পূত্র সন্ত্রাসী আশরাফ মৃধা ও তার ছেলে শুভ, রাজু মৃধা, মারুফ মৃধা, মৃত ফখরুদ্দিনের ছেলে ফোরকান, মোহাম্মদ খন্দকারের ছেলে হারুন খন্দকার সহ ৬/৭ জন ওৎ পেতে থেকে সাংবাদিক হাবিবুর এর উপর হামলা চালায়। এতে সাংবাদিক হাবিবুর রহমান রক্তাক্ত জখম হয়। সূত্রে জানা যায়, সন্ত্রাসী ভূমিদস্যু রিপন গত বছর বৈশাখ মাসে সাংবাদিক হাবিবের শশুরের কাছে জমির লাগানো বাবদ রিপনকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। রিপন টাকা নেওয়ার পরে স্ট্যাম্পে লিখিত স্বাক্ষর না দিয়ে তাল বাহানা শুরু করে। পরে উক্ত ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা চাইতে গেলে টাকা দিব দিচ্ছি দিচ্ছি বলে নানা টালবাহানা শুরু করেন। যা নিয়ে একাধিকবার তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃস্টিও হয়েছে। এরই মধ্যে পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক বুধবার চর রঙ্গশ্রী ভেরিবাধের উপরে বসে পার্শ্ববর্তী বাগানে ওৎ পেতে রফিকুল ইসলাম রিপন, আশরাফ মৃধা সহ ৬ থেকে ৭ জন সন্ত্রাসী সাংবাদিক হাবিবের মোটরসাইকেল থামিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। আহত সাংবাদিক হাবিব জানান, তার সাথে থাকা শ্বশুরের তরমুজ বিক্রির ১২ লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ছুটে যান থানা অফিসার ইনচার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, রিপন একজনের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ভূমিদস্যু। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ চর আউলিয়াবাসী। অবিলম্বে সন্ত্রাসী রিপন আশরাফ মৃধা ও তার সহযোগীদেরকে গ্রেফতারের দাবী জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন আহতের স্বজনরা।##