১০:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে সংবর্ধনা প্রদান করেন মসিক মেয়র

###         মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সোমবার (২৭ মার্চ) ময়মনসিংহের টাউন হল এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসরত শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সংবর্ধনা প্রদান করেছে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন। সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু’র সভাপতিত্বে এ সংবর্ধ না প্করদান করা হয়।

এসময় মেয়র বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। আমাদের সকল অবস্থান ও সকল সাফল্যের দাবীদার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ। তারা যদি রক্ত দিয়ে দেশ স্বাধীন না করতেন তবে এর কিছুই সম্ভব হতো না। তৃতীয় শ্রেনীর নাগরিক হয়ে আমাদের বসবাস করতে হতো। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, দাঁয়িত্ববোধ এবং কৃতজ্ঞতাবোধ থেকেই আমরা প্রতি বছর এ সংবর্ধনার আয়োজন করে থাকি। তিনি আরও বলেন, মসিকের পক্ষ থেকে মোট ৮৯৯ জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের একটি হোল্ডিং ও পানির কর মওকুফের সিদ্ধান্ত আমাদের রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় আজ ১৮০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার কর মওকুফ সনদ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ ২ তলা পর্যন্ত ভবনের নকশা অনুমোদনে বিনামূল্যে আবেদন করতে পারছেন। এ সময় সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সাবমার্সিবল পাম্প স্থাপনের ফি মওকুফ এবং সিটির নতুন সড়কসমূহ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষা সৈনিকের নামে নামকরণের ঘোষণা দেন মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। এছাড়াও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য পৃথক করবস্থান নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানান।মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান ও আত্মত্যাগের কথা আমরা পরবর্তী প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে চাই। এজন্য মুক্তিযুদ্ধে নিজ অভিজ্ঞতা ও ইতিহাস, ছবি ইত্যাদি সিটি কর্পোরেশনে পৌঁছানোর জন্য সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তিনি অনুরোধ করেন। এসব তথ্য উপাত্ত নিয়ে পরে একটি সংকলন প্রকাশ করা হবে বলেও তিনি জানান।উপস্থিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি আহবান রেখে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশকে পরিচালনা করছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ উন্নয়নকে অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগকে আবারও রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে এবং একসাথে কাজ করতে হবে।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইউসুফ আলী, সচিব অন্নপূর্ণা দেবনাথ, প্যানেল মেয়র ও অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ, ময়মনসিংহ জেলা আইনজীবি সমিতির পিপি কবির উদ্দিন ভূঁইয়া, সাবেক জেলা কমান্ডার সেলিম সাজ্জাদ ও মোঃ আব্দুর রব, ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আমিন কালাম, ময়মনসিংহ সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি সৈয়দ রফিকুজ্জামান, ময়মনসিংহ মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সদস্য সচিব সেলিম সরকার, সাবেক উপজেলা কমান্ডার আবুল কালাম আজাদ ও মোঃ খালেক শিকদার, রেলওয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কমান্ডার মোজাম্মেল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

বাকেরগঞ্জে কৃষি ব্যাংকের গ্রাহকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

ময়মনসিংহে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে সংবর্ধনা প্রদান করেন মসিক মেয়র

প্রকাশিত সময় : ১২:০২:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩

###         মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সোমবার (২৭ মার্চ) ময়মনসিংহের টাউন হল এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসরত শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সংবর্ধনা প্রদান করেছে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন। সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু’র সভাপতিত্বে এ সংবর্ধ না প্করদান করা হয়।

এসময় মেয়র বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। আমাদের সকল অবস্থান ও সকল সাফল্যের দাবীদার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ। তারা যদি রক্ত দিয়ে দেশ স্বাধীন না করতেন তবে এর কিছুই সম্ভব হতো না। তৃতীয় শ্রেনীর নাগরিক হয়ে আমাদের বসবাস করতে হতো। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, দাঁয়িত্ববোধ এবং কৃতজ্ঞতাবোধ থেকেই আমরা প্রতি বছর এ সংবর্ধনার আয়োজন করে থাকি। তিনি আরও বলেন, মসিকের পক্ষ থেকে মোট ৮৯৯ জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের একটি হোল্ডিং ও পানির কর মওকুফের সিদ্ধান্ত আমাদের রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় আজ ১৮০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার কর মওকুফ সনদ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ ২ তলা পর্যন্ত ভবনের নকশা অনুমোদনে বিনামূল্যে আবেদন করতে পারছেন। এ সময় সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সাবমার্সিবল পাম্প স্থাপনের ফি মওকুফ এবং সিটির নতুন সড়কসমূহ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষা সৈনিকের নামে নামকরণের ঘোষণা দেন মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। এছাড়াও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য পৃথক করবস্থান নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানান।মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান ও আত্মত্যাগের কথা আমরা পরবর্তী প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে চাই। এজন্য মুক্তিযুদ্ধে নিজ অভিজ্ঞতা ও ইতিহাস, ছবি ইত্যাদি সিটি কর্পোরেশনে পৌঁছানোর জন্য সিটির বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তিনি অনুরোধ করেন। এসব তথ্য উপাত্ত নিয়ে পরে একটি সংকলন প্রকাশ করা হবে বলেও তিনি জানান।উপস্থিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি আহবান রেখে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশকে পরিচালনা করছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ উন্নয়নকে অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগকে আবারও রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে এবং একসাথে কাজ করতে হবে।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইউসুফ আলী, সচিব অন্নপূর্ণা দেবনাথ, প্যানেল মেয়র ও অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ, ময়মনসিংহ জেলা আইনজীবি সমিতির পিপি কবির উদ্দিন ভূঁইয়া, সাবেক জেলা কমান্ডার সেলিম সাজ্জাদ ও মোঃ আব্দুর রব, ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আমিন কালাম, ময়মনসিংহ সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি সৈয়দ রফিকুজ্জামান, ময়মনসিংহ মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সদস্য সচিব সেলিম সরকার, সাবেক উপজেলা কমান্ডার আবুল কালাম আজাদ ও মোঃ খালেক শিকদার, রেলওয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কমান্ডার মোজাম্মেল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।##