০৫:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষক ও সুশীল সমাজের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা

####

মাদকের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে। যুবকরাই দেশের প্রধান চালিকা শক্তি। মাদক থেকে যুব সমাজকে দূরে রাখতে হবে। দেশ গঠনে যুবকরাই সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। বুধবার দুপুরে খুলনা প্রাইমারি টিটার্স টেনিং ইন্সটিটিউটের অডিটোরিয়ামে ‘মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষক ও সুশীল সমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় অতিথিরা একথা বলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ। এতে প্রধান আলোচক ছিলেন খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আহসানুর রহমান। খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়, প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন (বাতিঘর) যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
খুলনা প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের বিভাগীয় উপপরিচালক মোঃ মোসলেম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের ফাস্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজার মোঃ আবু হেনা হাসানুজ্জামান ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন (বাতিঘর) এর উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আনোয়ারুল হক। স্বাগত বক্তব্য দেন পিটিআই’র সুপারিনন্টেন্ডেন্ট মাধুরী বিশ্বাস।
অতিথিরা আরও বলেন, যারা মাদকদ্রব্য ক্রয়, বিক্রয় ও সেবন করে তারা সকলেই মাদক সংশ্লিষ্ট অপরাধের সাথে জড়িত। তাদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা প্রয়োজন। মাদকাসক্তি একটি সামাজিক সমস্যা। মাদক বিষক্রিয়ার মতো মানুষের শরীরে কাজ করে। এটা শুধু ব্যক্তি মানুষকেই নয়, বরং তার পরিবারকেও ধ্বংস করে। মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক একীভূতকরণের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন, ষড়যন্ত্রমূলক অপতৎপরতা রুখে দাড়ানোর আহবান

মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষক ও সুশীল সমাজের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা

প্রকাশিত সময় : ০১:৫১:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩

####

মাদকের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে। যুবকরাই দেশের প্রধান চালিকা শক্তি। মাদক থেকে যুব সমাজকে দূরে রাখতে হবে। দেশ গঠনে যুবকরাই সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। বুধবার দুপুরে খুলনা প্রাইমারি টিটার্স টেনিং ইন্সটিটিউটের অডিটোরিয়ামে ‘মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষক ও সুশীল সমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় অতিথিরা একথা বলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ। এতে প্রধান আলোচক ছিলেন খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আহসানুর রহমান। খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়, প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন (বাতিঘর) যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
খুলনা প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের বিভাগীয় উপপরিচালক মোঃ মোসলেম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের ফাস্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজার মোঃ আবু হেনা হাসানুজ্জামান ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন (বাতিঘর) এর উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আনোয়ারুল হক। স্বাগত বক্তব্য দেন পিটিআই’র সুপারিনন্টেন্ডেন্ট মাধুরী বিশ্বাস।
অতিথিরা আরও বলেন, যারা মাদকদ্রব্য ক্রয়, বিক্রয় ও সেবন করে তারা সকলেই মাদক সংশ্লিষ্ট অপরাধের সাথে জড়িত। তাদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা প্রয়োজন। মাদকাসক্তি একটি সামাজিক সমস্যা। মাদক বিষক্রিয়ার মতো মানুষের শরীরে কাজ করে। এটা শুধু ব্যক্তি মানুষকেই নয়, বরং তার পরিবারকেও ধ্বংস করে। মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।