০৫:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
জামায়াতের ঈদ পুনর্মিলনী :

মানুষের সমস্যা সমাধানে জামায়াত কর্মীদের কাজ করতে হবে: ডা. তাহের

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ১১:০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • ৩৭ পড়েছেন

###    বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর সাবেক এমপি ডা. সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের বলেছেন, পবিত্র মাহে রমজানের প্রকৃত শিক্ষা হচ্ছে তাকওয়া অর্জন। আর এই তাকওয়া অর্জনের মাধ্যম হলো ঈমান ও ইহতিসাব। যা আমাদেরকে নিষ্পাপ ও মুখলিস হতে সহায়তা করে। আমরা তাকওয়ার মাধ্যমে জান্নাত লাভ করতে পারি। তাই রমজানের প্রকৃত শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে আমাদেরকে আগামী দিনের করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। তিনি ন্যায়-ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠায় সকলকে প্রজ্ঞা, যোগ্যতা ও বুদ্ধিমত্তার সাথে ময়দানে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি রবিবার রাজধানীতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তরের কাফরুল অঞ্চল সকল জনশক্তিকে নিয়ে এক ভার্চুয়াল ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারি সেক্রেটারি, কাফরুল অঞ্চল পরিচালক ডা. ফখরুদ্দীন মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইজ্জত উল্লাহ, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের ভারপ্রাপ্ত আমীর আব্দুর রহমান মূসা ও সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম। আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি লস্কর মো. তসলিম, কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারি সেক্রেটারি মাহফুজুর রহমান ও মহানগরী পশ্চিম শিবির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ। ডা. সৈয়দ তাহের আরও বলেন, নির্বাচন একটি যুদ্ধ ক্ষেত্র। তাই এই যুদ্ধের ফলাফল নিজেদের অনুকূলে আনতে হলে জনসম্পৃক্তা বাড়াতে হবে। বস্তুত নির্বাচনী চরিত্র হচ্ছে গণমুখী চরিত্র। এ আসনে আগামী দিনে আমাদের প্রিয় নেতা ডা.শফিকুর রহমানকে বিজয়ী করতে হলে দাওয়াতি কার্যক্রম সম্প্রসারণের কোন বিকল্প নেই। এজন্য প্রতিটি কর্মীকে মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছতে হবে। মানুষের সমস্যার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনে সেসব সমস্যা সমাধানের সাধ্যমত প্রচেষ্টা চালাতে হবে। আর সংগঠনকে গণমুখী করতে পারলেই আমরা এই আসনে বিজয়ী হতে পারবো। তিনি কাফরুল অঞ্চল(ঢাকা-১৫ সংসদীয় আসন)কে মজবুত করার জন্য নেতাকর্মীদের মেধা, যোগ্যতা, প্রজ্ঞাসহ সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালানোর আহবান জানান। ডা. ফখরুদ্দীন মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে বক্তৃতা করেন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইজ্জত উল্লাহ,  আব্দুর রহমান মূসা, ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম প্রমুখ। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

গলাচিপায় অবৈধ দোকান উচ্ছেদের মাধ্যমে রাস্তা উন্মুক্ত করায় প্রসংশিত মেয়র

জামায়াতের ঈদ পুনর্মিলনী :

মানুষের সমস্যা সমাধানে জামায়াত কর্মীদের কাজ করতে হবে: ডা. তাহের

প্রকাশিত সময় : ১১:০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

###    বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর সাবেক এমপি ডা. সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের বলেছেন, পবিত্র মাহে রমজানের প্রকৃত শিক্ষা হচ্ছে তাকওয়া অর্জন। আর এই তাকওয়া অর্জনের মাধ্যম হলো ঈমান ও ইহতিসাব। যা আমাদেরকে নিষ্পাপ ও মুখলিস হতে সহায়তা করে। আমরা তাকওয়ার মাধ্যমে জান্নাত লাভ করতে পারি। তাই রমজানের প্রকৃত শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে আমাদেরকে আগামী দিনের করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। তিনি ন্যায়-ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠায় সকলকে প্রজ্ঞা, যোগ্যতা ও বুদ্ধিমত্তার সাথে ময়দানে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি রবিবার রাজধানীতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তরের কাফরুল অঞ্চল সকল জনশক্তিকে নিয়ে এক ভার্চুয়াল ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারি সেক্রেটারি, কাফরুল অঞ্চল পরিচালক ডা. ফখরুদ্দীন মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইজ্জত উল্লাহ, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের ভারপ্রাপ্ত আমীর আব্দুর রহমান মূসা ও সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম। আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি লস্কর মো. তসলিম, কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারি সেক্রেটারি মাহফুজুর রহমান ও মহানগরী পশ্চিম শিবির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ। ডা. সৈয়দ তাহের আরও বলেন, নির্বাচন একটি যুদ্ধ ক্ষেত্র। তাই এই যুদ্ধের ফলাফল নিজেদের অনুকূলে আনতে হলে জনসম্পৃক্তা বাড়াতে হবে। বস্তুত নির্বাচনী চরিত্র হচ্ছে গণমুখী চরিত্র। এ আসনে আগামী দিনে আমাদের প্রিয় নেতা ডা.শফিকুর রহমানকে বিজয়ী করতে হলে দাওয়াতি কার্যক্রম সম্প্রসারণের কোন বিকল্প নেই। এজন্য প্রতিটি কর্মীকে মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছতে হবে। মানুষের সমস্যার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনে সেসব সমস্যা সমাধানের সাধ্যমত প্রচেষ্টা চালাতে হবে। আর সংগঠনকে গণমুখী করতে পারলেই আমরা এই আসনে বিজয়ী হতে পারবো। তিনি কাফরুল অঞ্চল(ঢাকা-১৫ সংসদীয় আসন)কে মজবুত করার জন্য নেতাকর্মীদের মেধা, যোগ্যতা, প্রজ্ঞাসহ সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালানোর আহবান জানান। ডা. ফখরুদ্দীন মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে বক্তৃতা করেন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইজ্জত উল্লাহ,  আব্দুর রহমান মূসা, ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম প্রমুখ। ##