১০:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুশফিক-রিয়াদ দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ: সাকিব

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৪:৩০:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২
  • ৫৯ পড়েছেন

এশিয়া কাপের আগে জিম্বাবুয়েতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে বিশ্রাম দেওয়া হয় মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে।

যদিও এশিয়া কাপের স্কোয়াডে ফেরানো হয়েছে তাদের। শোনা যাচ্ছে, অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের চাওয়াতেই নাকি হয়েছে এমনটি।

টি-টোয়েন্টি নেতৃত্ব পাওয়ার পর সোমবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করেছেন সাকিব আল হাসান। সেখানে উঠে এসেছে এই দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের প্রসঙ্গও। সাকিব বলছেন, মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ দুজনেই তার সিস্টেমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

তিনি বলেছেন, ‘যেটা হচ্ছে যে, উনারা দুজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ এই সিস্টেমের। উনারা এটা সম্পর্কে অবগত, উনারা জানে দায়িত্বটা কী, জানে উনাদের চ্যালেঞ্জ কী কী। উনারা জানে কোন সিচুয়েশনে আছে। আমার এখানে আলাদা কিছু বলার নেই। এতদিন খেলার পর উনারা ভালো করে পুরো সিচুয়েশন সম্পর্কে জানে। আমরাও জানি আমরা উনাদের থেকে কী প্রত্যাশা করছি যেটা আমি বললাম উনারা খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ দলের। ’

টি-টোয়েন্টিতে উইকেটরক্ষক হিসেবে আর না থাকার ঘোষণা দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। তিনি এশিয়া কাপ দিয়ে ফের ফিরছেন এই জায়গায়। কেন? সাকিব বলছেন, মুশফিক পেছনে থাকলে তার জীবন সহজ হয়ে যায়।

তিনি বলেছেন, ‘উইকেটকিপিং যেটা হচ্ছে, উনি এটা করলে আমার জীবনটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। এটার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে টি-টোয়েন্টিতে সময়টা খুব কম থাকে। যেটা হয়, ফিল্ডিংয়ের অ্যাঙ্গেলগুলো উনি খুব সহজে বদলাতে পারে। আমার কাছে শোনারও দরকার নাই। আমার জীবনটা অনেক সহজ হয়ে যায়। ’

‘আমি অন্য একটা-দুটো বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে পারবো ফিল্ডিংয়ের পজিশনের চিন্তা করা থেকে, কিংবা অ্যাঙ্গেলগুলো নিয়ে কে কোথায় দাঁড়াচ্ছে ঠিক আছে কি না। কারণ এগারোটা খেলোয়াড় আমার পক্ষে সবসময় দেখা সম্ভব না। একমাত্র কিপারই আছে যে এটা ভালো দেখতে পারে। উনার মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড় থাকলে এগুলো সহজ হয়ে যায়।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

মুশফিক-রিয়াদ দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ: সাকিব

প্রকাশিত সময় : ০৪:৩০:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২

এশিয়া কাপের আগে জিম্বাবুয়েতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে বিশ্রাম দেওয়া হয় মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে।

যদিও এশিয়া কাপের স্কোয়াডে ফেরানো হয়েছে তাদের। শোনা যাচ্ছে, অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের চাওয়াতেই নাকি হয়েছে এমনটি।

টি-টোয়েন্টি নেতৃত্ব পাওয়ার পর সোমবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করেছেন সাকিব আল হাসান। সেখানে উঠে এসেছে এই দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের প্রসঙ্গও। সাকিব বলছেন, মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ দুজনেই তার সিস্টেমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

তিনি বলেছেন, ‘যেটা হচ্ছে যে, উনারা দুজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ এই সিস্টেমের। উনারা এটা সম্পর্কে অবগত, উনারা জানে দায়িত্বটা কী, জানে উনাদের চ্যালেঞ্জ কী কী। উনারা জানে কোন সিচুয়েশনে আছে। আমার এখানে আলাদা কিছু বলার নেই। এতদিন খেলার পর উনারা ভালো করে পুরো সিচুয়েশন সম্পর্কে জানে। আমরাও জানি আমরা উনাদের থেকে কী প্রত্যাশা করছি যেটা আমি বললাম উনারা খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ দলের। ’

টি-টোয়েন্টিতে উইকেটরক্ষক হিসেবে আর না থাকার ঘোষণা দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। তিনি এশিয়া কাপ দিয়ে ফের ফিরছেন এই জায়গায়। কেন? সাকিব বলছেন, মুশফিক পেছনে থাকলে তার জীবন সহজ হয়ে যায়।

তিনি বলেছেন, ‘উইকেটকিপিং যেটা হচ্ছে, উনি এটা করলে আমার জীবনটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। এটার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে টি-টোয়েন্টিতে সময়টা খুব কম থাকে। যেটা হয়, ফিল্ডিংয়ের অ্যাঙ্গেলগুলো উনি খুব সহজে বদলাতে পারে। আমার কাছে শোনারও দরকার নাই। আমার জীবনটা অনেক সহজ হয়ে যায়। ’

‘আমি অন্য একটা-দুটো বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে পারবো ফিল্ডিংয়ের পজিশনের চিন্তা করা থেকে, কিংবা অ্যাঙ্গেলগুলো নিয়ে কে কোথায় দাঁড়াচ্ছে ঠিক আছে কি না। কারণ এগারোটা খেলোয়াড় আমার পক্ষে সবসময় দেখা সম্ভব না। একমাত্র কিপারই আছে যে এটা ভালো দেখতে পারে। উনার মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড় থাকলে এগুলো সহজ হয়ে যায়।