০৮:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৯:৫৯:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
  • ৭২ পড়েছেন

 

মোংলা প্রতিনিধি :

নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের ছেলে মতিউর রহমান রানার দুই ছেলে – মেয়ে ইবনে মোরসালিন ও মুশফিরাত রহমান মিমের আকিকা উপলক্ষে শুক্রবার ১২ ই এপ্রিল টি এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজ সংলগ্ন তার নিজ বাড়িতে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রায় হাজার লোকের খানার আয়োজন করা হয়। উক্ত আকিকা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মোংলা উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মীর মো: আবু হানিফ, ১ নং ওর্য়াড কাউন্সিলর প্যানেল মেয়র মো: কবির হোসেন সহ স্হানীয় আওয়ামিলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগনেতা নেতৃবৃন্দ এবং গরিব , অসহায়, দুঃখী মানুষ সহ প্রায় ১ হাজার লোকের ভিড়।

এ সময় মতিউর রহমান রানা জানান, বাবা নিরুদ্দেশ হওয়ার পর দীর্ঘ ২১ বছর পরে পুরো পরিবার এক হয়ে এ অনুষ্ঠান পালন করতে পেরে আমরা খুশি। আমার বাবা মো: মোতালেব জমাদ্দারের দুটো হাত ছিলোনা। ২০০০ সালে, সে টি, এ ফারুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে ছয় কাটা জমি ক্রয় করে ২০০৩ সাল পর্যন্ত তার ছেলেমেয়ে নিয়ে বসবাস করে আসতে ছিলেন এবং তাদের একটি বিসমিল্লাহ ফ্ললোয়ার নামে একটি মিল পরিচালনা করে আসছিলো । হঠাৎ করে সে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। ২০২৪ সাল পর্যন্ত আজও তাকে জীবিত অথবা মৃত তার সন্ধান মিলেনি। ওয়ারিশগণের কাকুতি এবং মিনতি যে তাদের বাবাকে মৃত অথবা জীবিত অথবা যদি সে মারা গিয়ে থাকে সে অবস্থায় যদি তার কঙ্কালটাও পাওয়া যায় তা নিয়ে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন দিয়ে তাদের মনের আত্ম তৃপ্তি বা তাদের মনটাকে সান্ত্বনা দিতে পারবেন, এ ব্যাপারে তিনি তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে সকল মিডিয়া ও আনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি আরো বলেন, মোতালেব জমাদ্দারের কঙ্কালটাও যদি পাওয়া যায় তাহলে তাদের পরিবারের একটু সান্তনা মিলবে। ১৬ জন ওয়ারিশ এবং মোতালেব জমাদ্দারের তিন স্ত্রী এবং ১৩ ছেলেমেয়ের একটাই কষ্ট আজও তাদের বাবার কোন খোঁজ মেলেনি।#

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

পুটিয়া উপজেলা নির্বাচনে ৩৩টি কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ, কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন

মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা

প্রকাশিত সময় : ০৯:৫৯:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

 

মোংলা প্রতিনিধি :

নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের ছেলে মতিউর রহমান রানার দুই ছেলে – মেয়ে ইবনে মোরসালিন ও মুশফিরাত রহমান মিমের আকিকা উপলক্ষে শুক্রবার ১২ ই এপ্রিল টি এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজ সংলগ্ন তার নিজ বাড়িতে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রায় হাজার লোকের খানার আয়োজন করা হয়। উক্ত আকিকা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মোংলা উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মীর মো: আবু হানিফ, ১ নং ওর্য়াড কাউন্সিলর প্যানেল মেয়র মো: কবির হোসেন সহ স্হানীয় আওয়ামিলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগনেতা নেতৃবৃন্দ এবং গরিব , অসহায়, দুঃখী মানুষ সহ প্রায় ১ হাজার লোকের ভিড়।

এ সময় মতিউর রহমান রানা জানান, বাবা নিরুদ্দেশ হওয়ার পর দীর্ঘ ২১ বছর পরে পুরো পরিবার এক হয়ে এ অনুষ্ঠান পালন করতে পেরে আমরা খুশি। আমার বাবা মো: মোতালেব জমাদ্দারের দুটো হাত ছিলোনা। ২০০০ সালে, সে টি, এ ফারুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে ছয় কাটা জমি ক্রয় করে ২০০৩ সাল পর্যন্ত তার ছেলেমেয়ে নিয়ে বসবাস করে আসতে ছিলেন এবং তাদের একটি বিসমিল্লাহ ফ্ললোয়ার নামে একটি মিল পরিচালনা করে আসছিলো । হঠাৎ করে সে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। ২০২৪ সাল পর্যন্ত আজও তাকে জীবিত অথবা মৃত তার সন্ধান মিলেনি। ওয়ারিশগণের কাকুতি এবং মিনতি যে তাদের বাবাকে মৃত অথবা জীবিত অথবা যদি সে মারা গিয়ে থাকে সে অবস্থায় যদি তার কঙ্কালটাও পাওয়া যায় তা নিয়ে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন দিয়ে তাদের মনের আত্ম তৃপ্তি বা তাদের মনটাকে সান্ত্বনা দিতে পারবেন, এ ব্যাপারে তিনি তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে সকল মিডিয়া ও আনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি আরো বলেন, মোতালেব জমাদ্দারের কঙ্কালটাও যদি পাওয়া যায় তাহলে তাদের পরিবারের একটু সান্তনা মিলবে। ১৬ জন ওয়ারিশ এবং মোতালেব জমাদ্দারের তিন স্ত্রী এবং ১৩ ছেলেমেয়ের একটাই কষ্ট আজও তাদের বাবার কোন খোঁজ মেলেনি।#