০৯:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোল্লাহাটে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকারী শিক্ষকের অভিযোগ

  • সংবাদদাতা
  • প্রকাশিত সময় : ০৭:০৪:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২
  • ৬২ পড়েছেন

 

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে  মানহানী ও মানষিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন এক সহকারী শিক্ষক। উপজেলার ৫৩ নং কাহালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানমের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর এ অভিযোগ করেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দিলরুবা নিপা।

লিখিত ও মৌখিক অভিযোগে সহকারী শিক্ষক দিলরুবা নিপা জানান, গত ১ ডিসেম্বর প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানম নিজ বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে সকল শিক্ষকদের সামনে আমাকে বাজারের মেয়ে বলে গালি দেয় ও আমার অনাগত সন্তানকে বাজারের সন্তান হয়ে ভূমিষ্ঠ হবে বলে মন্তব্য করেন। আমি অন্তঃসত্ত্বা এই বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও সহকারী শিক্ষা অফিসার এবং আমার বিদ্যালয়ের একজন পুরুষ শিক্ষক সহ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারীকে একজন মুসলিম নারী হয়ে জানানোর জন্য উক্ত প্রধান শিক্ষিকা আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে গালি দেয় ও বাজে মন্তব্য করেন। যা আমার এবং আমার অনাগত সন্তানের মানহানিতে আঘাত লাগে এই মানহানির জন্য আমার এবং আমার অনাগত সন্তানের শারীরিক ও মানসিক অসুস্থতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানম বলেন, সম্পূর্ণ অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। মূলত ওই শিক্ষক সঠিক নিয়মে স্কুলে আসেনা। এছাড়াও বিভিন্ন অজুহাতে স্কুল থেকে চলে যায়। যা বলার কারণে এ মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন জানান, তিনি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন, তদন্ত পূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
######

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম

মোল্লাহাটে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকারী শিক্ষকের অভিযোগ

প্রকাশিত সময় : ০৭:০৪:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২

 

মোল্লাহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে  মানহানী ও মানষিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন এক সহকারী শিক্ষক। উপজেলার ৫৩ নং কাহালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানমের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর এ অভিযোগ করেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দিলরুবা নিপা।

লিখিত ও মৌখিক অভিযোগে সহকারী শিক্ষক দিলরুবা নিপা জানান, গত ১ ডিসেম্বর প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানম নিজ বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে সকল শিক্ষকদের সামনে আমাকে বাজারের মেয়ে বলে গালি দেয় ও আমার অনাগত সন্তানকে বাজারের সন্তান হয়ে ভূমিষ্ঠ হবে বলে মন্তব্য করেন। আমি অন্তঃসত্ত্বা এই বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও সহকারী শিক্ষা অফিসার এবং আমার বিদ্যালয়ের একজন পুরুষ শিক্ষক সহ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারীকে একজন মুসলিম নারী হয়ে জানানোর জন্য উক্ত প্রধান শিক্ষিকা আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে গালি দেয় ও বাজে মন্তব্য করেন। যা আমার এবং আমার অনাগত সন্তানের মানহানিতে আঘাত লাগে এই মানহানির জন্য আমার এবং আমার অনাগত সন্তানের শারীরিক ও মানসিক অসুস্থতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাৎ আসমা খানম বলেন, সম্পূর্ণ অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। মূলত ওই শিক্ষক সঠিক নিয়মে স্কুলে আসেনা। এছাড়াও বিভিন্ন অজুহাতে স্কুল থেকে চলে যায়। যা বলার কারণে এ মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন জানান, তিনি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন, তদন্ত পূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
######