১১:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোরের শার্শায় ১১ কোটি টাকার সোনাসহ ৩ পাচারকারী আটক

### যশোরের শার্শা উপজেলার কায়বা এলাকায় একটি মোটরসাইকেলের চেসিসের ভেতর থেকে ৬১টি সোনার বার জব্দ করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা। এসময় তিন সোনা পাচারকারীকে আটক করা হয়ে। তারা হলেন- যশোরের বেনাপোল বন্দর থানার পুটখালী গ্রামের বিল্লাল হোসেন (২৩), নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বড়দিয়া গ্রামের জাহিদুর রহমান (৪৫) এবং একই উপজেলার মঙ্গলপুর গ্রামের হৃত্তিক কাজী (২০)।

মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) বিকেলে সোনার বারগুলো জব্দ করা হয়। জব্দকৃত সোনার ওজন ১৩ কেজি ১৪৩ গ্রাম এবং বাজারমূল্য ১১ কোটি ২১ লাখ ৬৩ হাজার ৮৩৫ টাকা। সোনার বারগুলো ভারতে পাচার করা হচ্ছিল। খুলনা ২১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, আটক তিন পাচারকারীকে শার্শা থানায় সোপর্দ ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। উদ্ধার করা সোনা শার্শা থানায় জমা দেওয়া হয়েছে।
বিজিবি সূত্র জানায়, শার্শা উপজেলার কায়বা সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে সোনা পাচার হতে পারে এমন তথ্য পায় খুলনা ২১ বিজিবির একটি বিশেষ টহল দল। এরপর আজ দুপুরের পর সীমান্তের অভ্যন্তরে শার্শা উপজেলার কায়বা গ্রামের গাজীর কায়বা সাহেবের ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয় দলটি। বিকেল চারটার দিকে সড়ক দিয়ে একটি মোটরসাইকেল যেতে দেখে থামতে বলে টহল দল। মোটরসাইকেলে তিনজন ছিলেন। চালক মোটরসাইকেলটি না থামিয়ে দ্রুতগতিতে পালিয়ে যেতে থাকেন। এসময় বিজিবি সদস্যরা ধাওয়া করে মোটরসাইকেলটি ধরে ফেলেন। এরপর তল্লাশি করে মোটরসাইকেলের চেসিসের ভেতরে স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ৬১টি সোনার বার পাওয়া যায়।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

কুয়েটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার জামাত সকাল ৭ টায় 

যশোরের শার্শায় ১১ কোটি টাকার সোনাসহ ৩ পাচারকারী আটক

প্রকাশিত সময় : ১১:১৬:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ এপ্রিল ২০২৩

### যশোরের শার্শা উপজেলার কায়বা এলাকায় একটি মোটরসাইকেলের চেসিসের ভেতর থেকে ৬১টি সোনার বার জব্দ করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা। এসময় তিন সোনা পাচারকারীকে আটক করা হয়ে। তারা হলেন- যশোরের বেনাপোল বন্দর থানার পুটখালী গ্রামের বিল্লাল হোসেন (২৩), নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বড়দিয়া গ্রামের জাহিদুর রহমান (৪৫) এবং একই উপজেলার মঙ্গলপুর গ্রামের হৃত্তিক কাজী (২০)।

মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) বিকেলে সোনার বারগুলো জব্দ করা হয়। জব্দকৃত সোনার ওজন ১৩ কেজি ১৪৩ গ্রাম এবং বাজারমূল্য ১১ কোটি ২১ লাখ ৬৩ হাজার ৮৩৫ টাকা। সোনার বারগুলো ভারতে পাচার করা হচ্ছিল। খুলনা ২১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, আটক তিন পাচারকারীকে শার্শা থানায় সোপর্দ ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। উদ্ধার করা সোনা শার্শা থানায় জমা দেওয়া হয়েছে।
বিজিবি সূত্র জানায়, শার্শা উপজেলার কায়বা সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে সোনা পাচার হতে পারে এমন তথ্য পায় খুলনা ২১ বিজিবির একটি বিশেষ টহল দল। এরপর আজ দুপুরের পর সীমান্তের অভ্যন্তরে শার্শা উপজেলার কায়বা গ্রামের গাজীর কায়বা সাহেবের ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয় দলটি। বিকেল চারটার দিকে সড়ক দিয়ে একটি মোটরসাইকেল যেতে দেখে থামতে বলে টহল দল। মোটরসাইকেলে তিনজন ছিলেন। চালক মোটরসাইকেলটি না থামিয়ে দ্রুতগতিতে পালিয়ে যেতে থাকেন। এসময় বিজিবি সদস্যরা ধাওয়া করে মোটরসাইকেলটি ধরে ফেলেন। এরপর তল্লাশি করে মোটরসাইকেলের চেসিসের ভেতরে স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ৬১টি সোনার বার পাওয়া যায়।##