১১:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যেসব পানীয় দ্রুত বাড়াবে হিমোগ্লোবিন

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০৬:৩৯:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩
  • ৫০ পড়েছেন

###    রোজায় চেহারা ক্রমেই ফ্যাকাশে হয়ে আসছে? সারাক্ষণ ক্লান্তি ও দুর্বল বোধ হয়? কিছুই খেতে ভালো লাগে না? এই সব উপসর্গকে খুবই সাধারণ ভেবে এড়িয়ে যাবেন না। তাহলেই কিন্তু বড় বিপদে পড়বেন! এগুলো হতেই পারে অ্যানিমিয়া বা রক্ত স্বল্পতার লক্ষণ। নারীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় রক্ত স্বল্পতার সমস্যা। ইদানীং পুরুষরাও কম-বেশি ভুগছেন এই সমস্যায়।

পুষ্টিবিদদের মতে, দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাসে সামান্য বদলেই এই রোগের ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। চিকিৎসকদের মতে, রক্তে লোহিত রক্তকণিকা বা হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে গেলেই এই রোগ দেখা দেয়। হিমোগ্লোবিন হলো লোহিত রক্তকণিকায় অবস্থিত এক প্রকার প্রোটিন, যার মধ্যে আয়রন এবং অক্সিজেন থাকে। ভিটামিন বি-12, ফলিক অ্যাসিড বা আয়রনের ঘাটতিই রক্ত স্বল্পতার কারণ। জেনেটিক ডিসপোজিশন বা এন্ডোক্রাইন ডিসঅর্ডার (এক ধরনের রোগ যা শরীরের হরমোনকে প্রভাবিত করে) এর কারণেও রক্ত স্বল্পতা হতে পারে।

রক্ত স্বল্পতায় যারা ভুগছেন, তাদের রোজকার খাদ্যতালিকায় আয়রন এবং ভিটামিন বি-12 সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভুক্ত করা আবশ্যক। বেদানা, আমলকি, কমলালেবু, ডুমুর, আপেল, পালং শাক, বিটরুট, টমেটো এবং বাঁধাকপির মতো ফল ও শাকসবজি বেশি করে খান। প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার যেমন মসুর ডাল, ব্রাউন রাইস, মুগ ডাল, চিকেন, মটন ডায়েটে রাখুন। এ ছাড়াও মেথি, তিল এবং ধনে অ্যানিমিয়া রোগীদের জন্য খুবই উপকারি। এই সব খাবার প্রচুর আয়রন এবং পুষ্টিতে ভরপুরটক, মশলাযুক্ত এবং নোনতা জাতীয় খাবার না খাওয়াই ভালো। চা, কফি, বিভিন্ন প্রকার ঠান্ডা পানীয়, ওয়াইন এবং বিয়ার শরীরের আয়রন শুষে নেয়। তাই যারা অ্যানিমিয়ায় ভুগছেন, তাদের এইসব খাবার এড়িয়ে চলাই ভালো।

রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়াতে কোন কোন পানীয় খাবেন;

১. বেদানা, আমলকি, কমলালেবু, ডুমুর, আপেলের মতো ফলের রস খেতে হবে।

২. রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে পালং শাক, বিটরুট, টমেটো এবং বাঁধাকপির মতো শাকসবজি দিয়ে স্মুদি তৈরি করে পান করুন।

৩. মেথি, তিল এবং ধনে বীজও জুসের সঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন।

পুষ্টিবিদদের মতে, ভিটামিন সি শরীরে আয়রন শোষণ করতে সাহায্য করে। তাই আয়রনের ঘাটতি মেটাতে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবারও খাওয়া যেতে পারে। কমলালেবু, পাতিলেবু, স্ট্রবেরি, পেঁপে, ক্যাপসিকাম, ব্রকোলি, আঙুর এবং টোমেটোতে ভিটামিন সি ভরপুর মাত্রায় থাকে। (সূত্র : হেলথলাইন.কম)##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

কুয়েটে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার জামাত সকাল ৭ টায় 

যেসব পানীয় দ্রুত বাড়াবে হিমোগ্লোবিন

প্রকাশিত সময় : ০৬:৩৯:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩

###    রোজায় চেহারা ক্রমেই ফ্যাকাশে হয়ে আসছে? সারাক্ষণ ক্লান্তি ও দুর্বল বোধ হয়? কিছুই খেতে ভালো লাগে না? এই সব উপসর্গকে খুবই সাধারণ ভেবে এড়িয়ে যাবেন না। তাহলেই কিন্তু বড় বিপদে পড়বেন! এগুলো হতেই পারে অ্যানিমিয়া বা রক্ত স্বল্পতার লক্ষণ। নারীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় রক্ত স্বল্পতার সমস্যা। ইদানীং পুরুষরাও কম-বেশি ভুগছেন এই সমস্যায়।

পুষ্টিবিদদের মতে, দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাসে সামান্য বদলেই এই রোগের ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। চিকিৎসকদের মতে, রক্তে লোহিত রক্তকণিকা বা হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে গেলেই এই রোগ দেখা দেয়। হিমোগ্লোবিন হলো লোহিত রক্তকণিকায় অবস্থিত এক প্রকার প্রোটিন, যার মধ্যে আয়রন এবং অক্সিজেন থাকে। ভিটামিন বি-12, ফলিক অ্যাসিড বা আয়রনের ঘাটতিই রক্ত স্বল্পতার কারণ। জেনেটিক ডিসপোজিশন বা এন্ডোক্রাইন ডিসঅর্ডার (এক ধরনের রোগ যা শরীরের হরমোনকে প্রভাবিত করে) এর কারণেও রক্ত স্বল্পতা হতে পারে।

রক্ত স্বল্পতায় যারা ভুগছেন, তাদের রোজকার খাদ্যতালিকায় আয়রন এবং ভিটামিন বি-12 সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভুক্ত করা আবশ্যক। বেদানা, আমলকি, কমলালেবু, ডুমুর, আপেল, পালং শাক, বিটরুট, টমেটো এবং বাঁধাকপির মতো ফল ও শাকসবজি বেশি করে খান। প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার যেমন মসুর ডাল, ব্রাউন রাইস, মুগ ডাল, চিকেন, মটন ডায়েটে রাখুন। এ ছাড়াও মেথি, তিল এবং ধনে অ্যানিমিয়া রোগীদের জন্য খুবই উপকারি। এই সব খাবার প্রচুর আয়রন এবং পুষ্টিতে ভরপুরটক, মশলাযুক্ত এবং নোনতা জাতীয় খাবার না খাওয়াই ভালো। চা, কফি, বিভিন্ন প্রকার ঠান্ডা পানীয়, ওয়াইন এবং বিয়ার শরীরের আয়রন শুষে নেয়। তাই যারা অ্যানিমিয়ায় ভুগছেন, তাদের এইসব খাবার এড়িয়ে চলাই ভালো।

রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়াতে কোন কোন পানীয় খাবেন;

১. বেদানা, আমলকি, কমলালেবু, ডুমুর, আপেলের মতো ফলের রস খেতে হবে।

২. রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে পালং শাক, বিটরুট, টমেটো এবং বাঁধাকপির মতো শাকসবজি দিয়ে স্মুদি তৈরি করে পান করুন।

৩. মেথি, তিল এবং ধনে বীজও জুসের সঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন।

পুষ্টিবিদদের মতে, ভিটামিন সি শরীরে আয়রন শোষণ করতে সাহায্য করে। তাই আয়রনের ঘাটতি মেটাতে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবারও খাওয়া যেতে পারে। কমলালেবু, পাতিলেবু, স্ট্রবেরি, পেঁপে, ক্যাপসিকাম, ব্রকোলি, আঙুর এবং টোমেটোতে ভিটামিন সি ভরপুর মাত্রায় থাকে। (সূত্র : হেলথলাইন.কম)##