০২:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা :

রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তদারকি বৃদ্ধি করা হবে

###     খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মার্চ মাসের সভা রবিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ সভায় জানান, খুলনা জেলায় বর্তমানে ডেঙ্গু, নিপাহ ভাইরাস ও মাঙ্কিপক্সের কোন প্রকোপ নেই। আসন্ন রমজানে জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় খাদ্যপণ্যে যে কোন ধরণের ভেজাল প্রতিরোধে নজরদারি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। রোজারেখে সুস্থ থাকতে ইফতারিতে মসলাদার ও ভাজাপোড়া খাবার পরিহার ও পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। তিনি আরও জানান, মাদকাসক্তি নির্ণয়ে জেলা হাসপাতালে ডোপটেস্টের ব্যবস্থা রয়েছে, আগামীতে জেলার সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ব্যবস্থা চালু করা হবে। জেলায় করোনা প্রতিরোধে টিকার প্রথম ডোজ প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা শতভাগ অর্জিত হয়েছে। এছাড়া দ্বিতীয় ডোজ ৯০ শতাংশ  ও তৃতীয় ডোজের লক্ষ্যমাত্রা ৬০ শতাংশ পূর্ণ হয়েছে।  সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) সুশান্ত সরকার জানান, জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ তাঁর ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে বদ্ধপরিকর। সমাজে অপরাধমূলক কার্যক্রম হ্রাস করতে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মোটিভেশনাল কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। খুলনা জেলা পুলিশ এপর্যন্ত সাতশ’র বেশি চুরি হওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করে মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। কেএমপি’র অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার শেখ ইমরান বলেন, খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার সংখ্যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ৩৭টি কম। এসব মামলা নিয়ে মহানগর পুলিশের তদন্তে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি রয়েছে। আসন্ন রমজানে আইনশৃঙ্খলারক্ষা ও যানজট নিয়ন্ত্রণে মেট্রোপলিটন পুলিশের তৎপরতা আরো বৃদ্ধি করা হবে। সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, রমজান মাসে জেলায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তদারকি বৃদ্ধি করা হবে। সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধে সড়কের ওপর নির্মাণ সামগ্রী ফেলে রাখা বন্ধ করা এবং রোডমার্কিং ও গতিসীমা নির্দেশক স্থাপন করা প্রয়োজন। খুলনার উপকূলীয় এলাকায় কৃষি জমিতে লবণ পানি প্রবেশ বন্ধ করতে হবে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মীর আলিফ রেজা সভায় বিগত মাসে খুলনা জেলা ও মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। খুলনা জেলা অধিক্ষেত্রে বিগত ফেব্রুয়ারি মাসে ১৫৬টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে নয়টি কম। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারি মাসে ১১৮টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ৩৭টি কম। সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ কমিটির সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা :

রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তদারকি বৃদ্ধি করা হবে

প্রকাশিত সময় : ০৯:২৫:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মার্চ ২০২৩

###     খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মার্চ মাসের সভা রবিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ সভায় জানান, খুলনা জেলায় বর্তমানে ডেঙ্গু, নিপাহ ভাইরাস ও মাঙ্কিপক্সের কোন প্রকোপ নেই। আসন্ন রমজানে জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় খাদ্যপণ্যে যে কোন ধরণের ভেজাল প্রতিরোধে নজরদারি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। রোজারেখে সুস্থ থাকতে ইফতারিতে মসলাদার ও ভাজাপোড়া খাবার পরিহার ও পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। তিনি আরও জানান, মাদকাসক্তি নির্ণয়ে জেলা হাসপাতালে ডোপটেস্টের ব্যবস্থা রয়েছে, আগামীতে জেলার সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ব্যবস্থা চালু করা হবে। জেলায় করোনা প্রতিরোধে টিকার প্রথম ডোজ প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা শতভাগ অর্জিত হয়েছে। এছাড়া দ্বিতীয় ডোজ ৯০ শতাংশ  ও তৃতীয় ডোজের লক্ষ্যমাত্রা ৬০ শতাংশ পূর্ণ হয়েছে।  সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) সুশান্ত সরকার জানান, জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ তাঁর ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে বদ্ধপরিকর। সমাজে অপরাধমূলক কার্যক্রম হ্রাস করতে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মোটিভেশনাল কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। খুলনা জেলা পুলিশ এপর্যন্ত সাতশ’র বেশি চুরি হওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করে মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। কেএমপি’র অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার শেখ ইমরান বলেন, খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার সংখ্যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ৩৭টি কম। এসব মামলা নিয়ে মহানগর পুলিশের তদন্তে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি রয়েছে। আসন্ন রমজানে আইনশৃঙ্খলারক্ষা ও যানজট নিয়ন্ত্রণে মেট্রোপলিটন পুলিশের তৎপরতা আরো বৃদ্ধি করা হবে। সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, রমজান মাসে জেলায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তদারকি বৃদ্ধি করা হবে। সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধে সড়কের ওপর নির্মাণ সামগ্রী ফেলে রাখা বন্ধ করা এবং রোডমার্কিং ও গতিসীমা নির্দেশক স্থাপন করা প্রয়োজন। খুলনার উপকূলীয় এলাকায় কৃষি জমিতে লবণ পানি প্রবেশ বন্ধ করতে হবে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মীর আলিফ রেজা সভায় বিগত মাসে খুলনা জেলা ও মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। খুলনা জেলা অধিক্ষেত্রে বিগত ফেব্রুয়ারি মাসে ১৫৬টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে নয়টি কম। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারি মাসে ১১৮টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত জানুয়ারি মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ৩৭টি কম। সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ কমিটির সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। ##