০৬:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

লোকালয়ে বাঘ, সতর্ক থাকতে বনবিভাগের মাইকিং

  • বাগেরহাট অফিস
  • প্রকাশিত সময় : ০৭:১০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৩
  • ৩৯ পড়েছেন

বাগেরহাটের শরণখোলার লোকালয়ে আবারও বাঘের দেখা মিলেছে। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে শরণখোলার উপজেলার সুন্দরবনসংলগ্ন সোনাতলা গ্রামের হারুণ ভদ্দরের এবং আবু ভদ্দরের বাড়ির বাগানে এবং পুকুর পাড়ে বাঘের পায়ের ছাপ দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে বুধবার (১১ জানুয়ারি) রাতের কোন এক সময় সুন্দরবনের ভোলা নদী পাড়িয়ে বাঘ দুটি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। এর আগে ৫ জানুয়ারি সুন্দরবনের দাসের ভাড়ানী এলাকার খাল পেড়িয়ে গ্রামে ঢুকে একটি বাঘ এক গৃহস্থের একটি ছাগল ধরে নিয়ে গেছিল।
এদিকে বাঘ প্রবেশের খবর পেয়ে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সোনাতলা গ্রামে মাইকিং করেছে বন বিভাগ।বাঘটির পায়ের ছাপ পযবেক্ষন করছেন বনবিভাগের লোক জন।
সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের ভোলা ফরেস্ট টহল ফাঁড়ির বনরক্ষী আঃ রহিম বলেন, গ্রামে বাঘ আসার খবর পেয়ে ঘটস্থলে গিয়ে বাঘের পায়ের ছাপ দেখা পেয়েছি। আমরা পায়ের ছাপ পর্যবেক্ষন করছি।
বন সুরক্ষায় নিয়োজিত সিপিজি ( কমিউনিটি পেট্রোল গ্রুপ)‘র সহসভাপতি মোঃ শহীদুল ইসলাম সাচ্চু বলেন,ধারণা করছি বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় সুন্দরবন থেকে একটি বাঘ লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। আবু ভদ্রের বাড়ির দক্ষিণ পাশ দিয়ে বাঘটি গ্রামে ঢুকেছে। সকালে আঃ মালেক, আসলাম ভদ্র, হারুন ভদ্রের বাড়ির পুকুর পাড় ও বাগানে বাঘের একাধিক পায়ের ছাপ দেখেছি। পায়ের ছাপগুলো ভিন্ন আকৃতির। মনে হচ্ছে দুটো বাঘ এসেছিল গ্রামে। আমরা পায়ের ছাপ থাকা এলাকা ও আসপাশ তল্যাসি করেছি। মনে হচ্ছে বাঘ দুটো আবারও বনের মধ্যে চলে গেছে। খাবারের সন্ধানে বা পথ ভুলে বাঘ দুটি লোকালয়ে আসতে পারে এমন দাবি করেছেন তিনি।
সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, লোকালয়ে বাঘ আসার খবর পেয়ে, আমাদের লোকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। লোকালয় তল্যাসি করে বাঘ পাওয়া যায়নি। ধারণা করছি বাঘটি বনে ফিরে গেছে। এছাড়াও বনরক্ষিরা সোনাতলা গ্রামকে পর্যবেক্ষন করছেন। এছাড়া জনসাধারণকে সচেতন করতে মাইকিং করা হয়েছে। জনসাধারণকে সচেতন করতে বলা হয়েছে।

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

dainik madhumati

জনপ্রিয়

মোল্লাহাটে বিয়ের জন্য মেয়েকে পছন্দ না করায় ছেলের ভগ্নিপতিকে হত্যা, আহত ১০

লোকালয়ে বাঘ, সতর্ক থাকতে বনবিভাগের মাইকিং

প্রকাশিত সময় : ০৭:১০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৩

বাগেরহাটের শরণখোলার লোকালয়ে আবারও বাঘের দেখা মিলেছে। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে শরণখোলার উপজেলার সুন্দরবনসংলগ্ন সোনাতলা গ্রামের হারুণ ভদ্দরের এবং আবু ভদ্দরের বাড়ির বাগানে এবং পুকুর পাড়ে বাঘের পায়ের ছাপ দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে বুধবার (১১ জানুয়ারি) রাতের কোন এক সময় সুন্দরবনের ভোলা নদী পাড়িয়ে বাঘ দুটি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। এর আগে ৫ জানুয়ারি সুন্দরবনের দাসের ভাড়ানী এলাকার খাল পেড়িয়ে গ্রামে ঢুকে একটি বাঘ এক গৃহস্থের একটি ছাগল ধরে নিয়ে গেছিল।
এদিকে বাঘ প্রবেশের খবর পেয়ে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সোনাতলা গ্রামে মাইকিং করেছে বন বিভাগ।বাঘটির পায়ের ছাপ পযবেক্ষন করছেন বনবিভাগের লোক জন।
সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের ভোলা ফরেস্ট টহল ফাঁড়ির বনরক্ষী আঃ রহিম বলেন, গ্রামে বাঘ আসার খবর পেয়ে ঘটস্থলে গিয়ে বাঘের পায়ের ছাপ দেখা পেয়েছি। আমরা পায়ের ছাপ পর্যবেক্ষন করছি।
বন সুরক্ষায় নিয়োজিত সিপিজি ( কমিউনিটি পেট্রোল গ্রুপ)‘র সহসভাপতি মোঃ শহীদুল ইসলাম সাচ্চু বলেন,ধারণা করছি বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় সুন্দরবন থেকে একটি বাঘ লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। আবু ভদ্রের বাড়ির দক্ষিণ পাশ দিয়ে বাঘটি গ্রামে ঢুকেছে। সকালে আঃ মালেক, আসলাম ভদ্র, হারুন ভদ্রের বাড়ির পুকুর পাড় ও বাগানে বাঘের একাধিক পায়ের ছাপ দেখেছি। পায়ের ছাপগুলো ভিন্ন আকৃতির। মনে হচ্ছে দুটো বাঘ এসেছিল গ্রামে। আমরা পায়ের ছাপ থাকা এলাকা ও আসপাশ তল্যাসি করেছি। মনে হচ্ছে বাঘ দুটো আবারও বনের মধ্যে চলে গেছে। খাবারের সন্ধানে বা পথ ভুলে বাঘ দুটি লোকালয়ে আসতে পারে এমন দাবি করেছেন তিনি।
সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, লোকালয়ে বাঘ আসার খবর পেয়ে, আমাদের লোকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। লোকালয় তল্যাসি করে বাঘ পাওয়া যায়নি। ধারণা করছি বাঘটি বনে ফিরে গেছে। এছাড়াও বনরক্ষিরা সোনাতলা গ্রামকে পর্যবেক্ষন করছেন। এছাড়া জনসাধারণকে সচেতন করতে মাইকিং করা হয়েছে। জনসাধারণকে সচেতন করতে বলা হয়েছে।