১০:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাতক্ষীরায় ভেজাল দুধ তৈরীর অপরাধে ব্যবসায়ীকে জরিমানা

###     সাতক্ষীরায় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে ভেজাল দুধ তৈরীর অপরাধে কমল ঘোষ নামের এক ব্যবসায়ীকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছে। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বেলা সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের হাবাসপুর গ্রামে এই অভিযান চালানো হয়। এসময় ৪০০ কেজি ভেজাল দুধসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন, জেলা নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান। ভেজাল দুধের কারবারি কমল ঘোষ তার দোষ স্বীকার করায় তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান। নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের হাবাসপুর গ্রামে কমল ঘোষের দুধের কারখানায় অভিযান চালানো হয়। এসময় সেখানে কৃত্রিমভাবে দুধের ক্রীম বানানোর জন্য প্রস্তুত করে রাখা ১২ লিটার পাম তেল, রং, ভেজাল মাখন, মেশিন সহ ৪০০ কেজি ননী উঠিয়ে নেওয়া দুধ জব্দ করা হয়। তিনি আরও জানান, দুধ থেকে প্রথমে ননী তুলে তা দিয়ে ঘি বানিয়ে বাজারে বিক্রি করে এ চক্রটি। এরপর ননী ছাড়া ওই দুধে কৃত্রিম ননী মিশিয়ে বাজারে বিক্রি করে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারনা করে থাকে। এই দুধে কোন গুনাগুন থাকে না এবং প্রায় ৪ গুন লাভে তারা তা বিক্রি করে এই অসাধূ ব্যবসায়িরা। ব্লেন্ডার মেশিনে পাম তেল, রংসহ বিভিন্ন রাসায়নিক মিশিয়ে কৃত্রিম ননী তৈরী করা হয় বলে জানান এই কর্মকর্তা। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান জানান, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি ৬ মাস আগেও একই অপরাধে জরিমানা করা হয়েছিলো। কিন্তু সে ভুল না শুধরে গোপনে সেই একই কাজ করে যাচ্ছিলো। তিনি আরও জানান, ভেজালের বিরুদ্ধে তাদের এই অভিযান অব্যহত থাকবে।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

সাতক্ষীরায় ভেজাল দুধ তৈরীর অপরাধে ব্যবসায়ীকে জরিমানা

প্রকাশিত সময় : ০৬:২৩:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মার্চ ২০২৩

###     সাতক্ষীরায় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে ভেজাল দুধ তৈরীর অপরাধে কমল ঘোষ নামের এক ব্যবসায়ীকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেছে। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বেলা সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের হাবাসপুর গ্রামে এই অভিযান চালানো হয়। এসময় ৪০০ কেজি ভেজাল দুধসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন, জেলা নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান। ভেজাল দুধের কারবারি কমল ঘোষ তার দোষ স্বীকার করায় তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান। নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের হাবাসপুর গ্রামে কমল ঘোষের দুধের কারখানায় অভিযান চালানো হয়। এসময় সেখানে কৃত্রিমভাবে দুধের ক্রীম বানানোর জন্য প্রস্তুত করে রাখা ১২ লিটার পাম তেল, রং, ভেজাল মাখন, মেশিন সহ ৪০০ কেজি ননী উঠিয়ে নেওয়া দুধ জব্দ করা হয়। তিনি আরও জানান, দুধ থেকে প্রথমে ননী তুলে তা দিয়ে ঘি বানিয়ে বাজারে বিক্রি করে এ চক্রটি। এরপর ননী ছাড়া ওই দুধে কৃত্রিম ননী মিশিয়ে বাজারে বিক্রি করে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারনা করে থাকে। এই দুধে কোন গুনাগুন থাকে না এবং প্রায় ৪ গুন লাভে তারা তা বিক্রি করে এই অসাধূ ব্যবসায়িরা। ব্লেন্ডার মেশিনে পাম তেল, রংসহ বিভিন্ন রাসায়নিক মিশিয়ে কৃত্রিম ননী তৈরী করা হয় বলে জানান এই কর্মকর্তা। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান জানান, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি ৬ মাস আগেও একই অপরাধে জরিমানা করা হয়েছিলো। কিন্তু সে ভুল না শুধরে গোপনে সেই একই কাজ করে যাচ্ছিলো। তিনি আরও জানান, ভেজালের বিরুদ্ধে তাদের এই অভিযান অব্যহত থাকবে।##