০৮:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সুন্দরগঞ্জে আগুনে ৪ গরুসহ বসতবাড়ি ভস্মিভূত

###

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় গোয়াল ঘরে মশা তাড়ানোর কয়েলের আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডে চারটি গরু ও বসতবাড়িসহ প্রায় আট লক্ষাধিক টাকার মালামাল ভষ্মিভূত হয়েছে। শনিবার (২৫ মার্চ) ভোরে উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের নিজামখাঁ গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে হাফেজ এনামুল হকের গোয়াল ঘরে কয়েলের আগুন থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এনামুল নিজামখাঁ গ্রামের মধ্য নিজামখাঁ পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের পেশ ইমাম। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও প্রতিবেশীরা জানান, দ্বিতীয় রোজার সাহরী খেয়ে ঘুমানোর পর গোয়াল ঘরে মশা তাড়ানোর কয়েলের আগুন থেকে এ অগ্নিকান্ড ঘটে। পরে আগুনের বিকট শব্দে বাড়ির সবার ঘুম ভাঙ্গে। এসময় এনামুল হক চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আগুন নিভানোর কাজ শুরু করেন। পরে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এসময় চারটি গরু, একটি ছাগল ও আসবাবপত্রসহ দুইটি ঘর পুড়ে ভস্মিভূত হয়েছে। এতে প্রায় আট লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ এনামুল হক বলেন, ‘সাহরী খেয়ে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। হঠাৎ করে আগুনের বিকট শব্দে আমার ঘুম ভাঙ্গে। ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার সব শেষ। সংসার চলার একমাত্র সম্বল চারটি গরু আগুনে ছাই হলো। এখন আমি অসহায় হয়ে গেলাম।’ তারাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘অগ্নিকান্ডের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এঘটনায় আমি মর্মাহত। বিষয়টি তাৎক্ষণিক উপজেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি। প্রশাসন সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে।’ এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ওয়ালিফ মণ্ডল বলেন, ‘অগ্নিকান্ডের বিষয়টি অবগত হয়েছি। ত্রাণ ও পূণর্বাসন মন্ত্রণালয়ের আওতায় ঢেউটিন ও নগদ অর্থ সহযোগিতা করা হবে।’ ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik Madhumati

জনপ্রিয়

মোংলায় দারুল আমীন নূরানী মাদ্রাসার সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ 

সুন্দরগঞ্জে আগুনে ৪ গরুসহ বসতবাড়ি ভস্মিভূত

প্রকাশিত সময় : ১২:৩২:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩

###

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় গোয়াল ঘরে মশা তাড়ানোর কয়েলের আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডে চারটি গরু ও বসতবাড়িসহ প্রায় আট লক্ষাধিক টাকার মালামাল ভষ্মিভূত হয়েছে। শনিবার (২৫ মার্চ) ভোরে উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের নিজামখাঁ গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে হাফেজ এনামুল হকের গোয়াল ঘরে কয়েলের আগুন থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এনামুল নিজামখাঁ গ্রামের মধ্য নিজামখাঁ পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের পেশ ইমাম। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও প্রতিবেশীরা জানান, দ্বিতীয় রোজার সাহরী খেয়ে ঘুমানোর পর গোয়াল ঘরে মশা তাড়ানোর কয়েলের আগুন থেকে এ অগ্নিকান্ড ঘটে। পরে আগুনের বিকট শব্দে বাড়ির সবার ঘুম ভাঙ্গে। এসময় এনামুল হক চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আগুন নিভানোর কাজ শুরু করেন। পরে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এসময় চারটি গরু, একটি ছাগল ও আসবাবপত্রসহ দুইটি ঘর পুড়ে ভস্মিভূত হয়েছে। এতে প্রায় আট লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ এনামুল হক বলেন, ‘সাহরী খেয়ে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। হঠাৎ করে আগুনের বিকট শব্দে আমার ঘুম ভাঙ্গে। ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার সব শেষ। সংসার চলার একমাত্র সম্বল চারটি গরু আগুনে ছাই হলো। এখন আমি অসহায় হয়ে গেলাম।’ তারাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘অগ্নিকান্ডের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এঘটনায় আমি মর্মাহত। বিষয়টি তাৎক্ষণিক উপজেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি। প্রশাসন সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে।’ এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ওয়ালিফ মণ্ডল বলেন, ‘অগ্নিকান্ডের বিষয়টি অবগত হয়েছি। ত্রাণ ও পূণর্বাসন মন্ত্রণালয়ের আওতায় ঢেউটিন ও নগদ অর্থ সহযোগিতা করা হবে।’ ##