০১:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সুপ্রিম কোর্ট বারের নতুন নির্বাচন আগামী ১৪-১৫ জুন

###     সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির সদস্যবৃন্দ। বিশিষ্ট আইনজীবী ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলামের সভাপতিত্বে এক তলবি সভায় এই ঘেষাণা দেয়া হয়। সভায় গত ১৫ ও ১৬ মার্চ সুপ্রিম কোর্ট বারে কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি উল্লেখ করে আগামী ১৪-১৫ জুন বারের নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটা বারের সদস্যরা আজ প্রশ্ন তুলছে, সুপ্রিম কোর্ট বারের এ অবস্থাটা কি করে হলো। সেজন্য সুপ্রিম কোর্ট বারের দীর্ঘদিনের যে ঐতিহ্য সেই ঐতিহ্যে কলঙ্ক লেপন করেছে। এই কলঙ্ক মুছে যাবে না। সেই কলঙ্ক মুছার কাজটা অতিসত্বর করা প্রয়োজন বলে মনে করেন না? দ্বিতীয় হচ্ছে আমাদের ডিগনিটি অব দি ল’ইয়ার ইম্পর্ট্যান্ট ফ্যাক্টর। এই ডিগনিটি সমিতির সবার জন্য আমাদের রক্ষা করতে হবে। এবং যে সংকট সৃষ্টি হয়েছে আগামী নির্বাচনে আমি আশা করি সেই সংকট অতিক্রম করে আমরা একটি স্বাধীন বার এসোসিয়েশন করবো। তলবি সভায় ঘোষণা করা হয়, ১ এপ্রিল থেকে সুপ্রিম কোর্ট বার অফিস সভাপতি মোঃ মোমতাজ উদ্দিন ফকির এবং সেক্রেটারী আবদুন নুর দুলালের আদেশে কাজ করবে না। সমিতির অফিস শুধুমাত্র অ্যাডহক কমিটির আহবায়ক ও সদস্য সচিবের আদেশে পরিচালিত হবে। অ্যাডহক কমিটি সমিতির রুটিন কাজ করবে।

শুক্রবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ১নং হলরুমে সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১৭(৩)(এ) অনুযায়ী সদস্যদের তলবি সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভায় বারের সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদসহ সভায় সমিতির সাবেক সভাপতি, সম্পাদকসহ কয়েকশ’ আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

সুপ্রিম কোর্ট বারের নতুন নির্বাচন আগামী ১৪-১৫ জুন

প্রকাশিত সময় : ০৮:০৬:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০২৩

###     সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির সদস্যবৃন্দ। বিশিষ্ট আইনজীবী ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলামের সভাপতিত্বে এক তলবি সভায় এই ঘেষাণা দেয়া হয়। সভায় গত ১৫ ও ১৬ মার্চ সুপ্রিম কোর্ট বারে কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি উল্লেখ করে আগামী ১৪-১৫ জুন বারের নতুন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটা বারের সদস্যরা আজ প্রশ্ন তুলছে, সুপ্রিম কোর্ট বারের এ অবস্থাটা কি করে হলো। সেজন্য সুপ্রিম কোর্ট বারের দীর্ঘদিনের যে ঐতিহ্য সেই ঐতিহ্যে কলঙ্ক লেপন করেছে। এই কলঙ্ক মুছে যাবে না। সেই কলঙ্ক মুছার কাজটা অতিসত্বর করা প্রয়োজন বলে মনে করেন না? দ্বিতীয় হচ্ছে আমাদের ডিগনিটি অব দি ল’ইয়ার ইম্পর্ট্যান্ট ফ্যাক্টর। এই ডিগনিটি সমিতির সবার জন্য আমাদের রক্ষা করতে হবে। এবং যে সংকট সৃষ্টি হয়েছে আগামী নির্বাচনে আমি আশা করি সেই সংকট অতিক্রম করে আমরা একটি স্বাধীন বার এসোসিয়েশন করবো। তলবি সভায় ঘোষণা করা হয়, ১ এপ্রিল থেকে সুপ্রিম কোর্ট বার অফিস সভাপতি মোঃ মোমতাজ উদ্দিন ফকির এবং সেক্রেটারী আবদুন নুর দুলালের আদেশে কাজ করবে না। সমিতির অফিস শুধুমাত্র অ্যাডহক কমিটির আহবায়ক ও সদস্য সচিবের আদেশে পরিচালিত হবে। অ্যাডহক কমিটি সমিতির রুটিন কাজ করবে।

শুক্রবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ১নং হলরুমে সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১৭(৩)(এ) অনুযায়ী সদস্যদের তলবি সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভায় বারের সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদসহ সভায় সমিতির সাবেক সভাপতি, সম্পাদকসহ কয়েকশ’ আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।##