০৪:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হতদরিদ্ররা স্বাবলম্বী হলে স্মার্ট বাংলাদেশ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখবে

###    খুলনার দাকোপে প্রথমবারের মত উদ্যোক্তা সমাবেশ এবং তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।  ২৭ ফেব্রুয়ারি সোমবার দাকোপের চালনা পৌরসভা চত্বরে দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। উদ্যোক্তা সমাবেশ এবং তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দাকোপ উপজেলার নির্বাহী অফিসার মিন্টু বিশ্বাস। রূপান্তর-এর কর্মসূচী পরিচালক ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে এবং কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চালনা পৌরসভার মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস, দাকোপ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুরাইয়া সিদ্দিকী, দাকোপ ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ রায়, পানখালী ইউপি চেয়ারম্যান সাব্বির আহমেদ, বাজুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মানস কুমার রায়, বাণীশান্তা ইউপি চেয়ারম্যান সুদেব রায়। প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন লাউডোবের উদ্যোক্তা আনজিরা বেগম এবং কৈলাশগঞ্জের উদ্যোক্তা লক্ষ্মী মণ্ডল। পরে অতিথিবৃন্দের উদ্যোক্তাদের স্টল পরিদর্শন করেন। মহামারী করোনার প্রভাবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর যারা ছিলেন জীবন ও জীবিকার লড়াইয়ে বেসামাল, অর্থনৈতিক সংকটে দিশেহারা, সেই মানুষেরাই এখন উদ্যোক্তার ভূমিকায়। সফলতা আসছে, জীবন নতুন গতি পাচ্ছে। স্বপ্নহীন চোখে এখন ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন। বাজুয়ার ববিতা দাস, লাউডোবের লতিকা সরদার, কৈলাশগঞ্জের রুবী রাণী মÐল যেমন প্রাণিপালন করছেন তেমনি বিভিন্ন মুখরোচক খাবার তৈরি করে ক্রেতার হাতে তুলে দিচ্ছেন তাসলিমা, মোমেনা। কেউ মধু উৎপাদন করছেন, কেউ আবার বিউটি পার্লার পরিচালনা করছেন। বাঁশ বেত দিয়ে বিভিন্ন তৈজষপত্র তৈরি হচ্ছে কারো কারো নিপুন হাতের ছোঁয়ায়। দাকোপের এই সব সংগ্রামী প্রান্তিক মানুষের উদ্যোগ ও উৎপাদিত সামগ্রী নিয়ে এ প্রর্শনীর আয়োজন করা হয়। এই উদ্যোক্তা সমাবেশ ও পণ্য প্রদর্শনীতে ২৫জন উদ্যোক্তা তাদের নানাবিধ পণ্য উপস্থাপন করেন। উল্লেখ্য, সুইজারল্যান্ড সরকারের সহযোগিতায় রূপান্তর পরিচালিত ‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর জন্য জরুরি পুনর্বাসন উদ্যোগ’ প্রকল্পের পক্ষ থেকে খুলনা ও বাগেরহাট জেলার ৫টি উপজেলা এবং খুলনা সিটি কর্পোরেশনে দক্ষ উদ্যোক্তা সৃষ্টির জন্য বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ এবং স্থিতিশীল জীবিকা নির্বাহের জন্য ২৭০০ পরিবারকে অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। দাকোপ উপজেলার ৩৮৫জন নারীসহ সর্বমোট ৫১৯ উদ্যোক্তাকে এই প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ প্রদান ও ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে। ##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

যশোরে জমি-জায়গা বিরোধের জের: ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা

হতদরিদ্ররা স্বাবলম্বী হলে স্মার্ট বাংলাদেশ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখবে

প্রকাশিত সময় : ০৮:১০:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

###    খুলনার দাকোপে প্রথমবারের মত উদ্যোক্তা সমাবেশ এবং তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।  ২৭ ফেব্রুয়ারি সোমবার দাকোপের চালনা পৌরসভা চত্বরে দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। উদ্যোক্তা সমাবেশ এবং তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দাকোপ উপজেলার নির্বাহী অফিসার মিন্টু বিশ্বাস। রূপান্তর-এর কর্মসূচী পরিচালক ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে এবং কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চালনা পৌরসভার মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস, দাকোপ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুরাইয়া সিদ্দিকী, দাকোপ ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ রায়, পানখালী ইউপি চেয়ারম্যান সাব্বির আহমেদ, বাজুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মানস কুমার রায়, বাণীশান্তা ইউপি চেয়ারম্যান সুদেব রায়। প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন লাউডোবের উদ্যোক্তা আনজিরা বেগম এবং কৈলাশগঞ্জের উদ্যোক্তা লক্ষ্মী মণ্ডল। পরে অতিথিবৃন্দের উদ্যোক্তাদের স্টল পরিদর্শন করেন। মহামারী করোনার প্রভাবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর যারা ছিলেন জীবন ও জীবিকার লড়াইয়ে বেসামাল, অর্থনৈতিক সংকটে দিশেহারা, সেই মানুষেরাই এখন উদ্যোক্তার ভূমিকায়। সফলতা আসছে, জীবন নতুন গতি পাচ্ছে। স্বপ্নহীন চোখে এখন ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন। বাজুয়ার ববিতা দাস, লাউডোবের লতিকা সরদার, কৈলাশগঞ্জের রুবী রাণী মÐল যেমন প্রাণিপালন করছেন তেমনি বিভিন্ন মুখরোচক খাবার তৈরি করে ক্রেতার হাতে তুলে দিচ্ছেন তাসলিমা, মোমেনা। কেউ মধু উৎপাদন করছেন, কেউ আবার বিউটি পার্লার পরিচালনা করছেন। বাঁশ বেত দিয়ে বিভিন্ন তৈজষপত্র তৈরি হচ্ছে কারো কারো নিপুন হাতের ছোঁয়ায়। দাকোপের এই সব সংগ্রামী প্রান্তিক মানুষের উদ্যোগ ও উৎপাদিত সামগ্রী নিয়ে এ প্রর্শনীর আয়োজন করা হয়। এই উদ্যোক্তা সমাবেশ ও পণ্য প্রদর্শনীতে ২৫জন উদ্যোক্তা তাদের নানাবিধ পণ্য উপস্থাপন করেন। উল্লেখ্য, সুইজারল্যান্ড সরকারের সহযোগিতায় রূপান্তর পরিচালিত ‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর জন্য জরুরি পুনর্বাসন উদ্যোগ’ প্রকল্পের পক্ষ থেকে খুলনা ও বাগেরহাট জেলার ৫টি উপজেলা এবং খুলনা সিটি কর্পোরেশনে দক্ষ উদ্যোক্তা সৃষ্টির জন্য বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ এবং স্থিতিশীল জীবিকা নির্বাহের জন্য ২৭০০ পরিবারকে অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। দাকোপ উপজেলার ৩৮৫জন নারীসহ সর্বমোট ৫১৯ উদ্যোক্তাকে এই প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ প্রদান ও ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে। ##