০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হুগলি থেকে সাইকেল চালিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আট সাইক্লিস্ট

  • অফিস ডেক্স।।
  • প্রকাশিত সময় : ০২:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৬২ পড়েছেন

### ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি থেকে বাইসাইকেল চালিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন আট সাইক্লিস্ট।মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে তারা শ্রদ্ধা জানান ভাষ শহীদদের প্রতি। ইন্দো-বাংলা ইন্টারন্যাশনাল সাইকেল র‌্যালি শিরোনামে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি হুগলি থেকে যাত্রা করেন এই মাতৃভাষাপ্রেমীরা। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন হুগলি সিঙ্গুর মহামায়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শৈবাল ব্যানার্জি। তিনি জানান, এই দলে তাঁর সহধর্মিণী, কয়েকজন শিক্ষক, একজন ছাত্র ও বন্ধু রয়েছেন। শৈবাল ব্যানার্জি বলেন, আমরা প্রায় ৫০০ কিলোমিটারের বেশি সাইকেল চালিয়ে এখানে পৌঁছেছি। ২১ ফেব্রুয়ারি আমাদের গৌরব। এই দিনটির কারণে আমরা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পেয়েছি। সেদিন ভাষার মর্যাদার দাবিতে আন্দোলনকারী ছাত্র-জনতার রক্তে রঞ্জিত করেছিল তৎকালীন পাকিস্তানি প্রশাসন। বাংলা ভাষা যেন বিশ্বের এক নম্বর ভাষা হয়ে ওঠে সেই প্রত্যাশা করে তিনি বলেন, ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গসহ সারা বিশ্বের মানুষের সম্মান জানানো উচিত। সেই কারণেই আমাদের এখানে আসা। কাঁটাতারের বেড়া ছাড়া এই দুই বাংলার মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই।##

Tag :
লেখক তথ্য সম্পর্কে

Dainik adhumati

জনপ্রিয়

দেবহাটা রিপোর্টার্স ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত 

হুগলি থেকে সাইকেল চালিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আট সাইক্লিস্ট

প্রকাশিত সময় : ০২:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

### ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি থেকে বাইসাইকেল চালিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন আট সাইক্লিস্ট।মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে তারা শ্রদ্ধা জানান ভাষ শহীদদের প্রতি। ইন্দো-বাংলা ইন্টারন্যাশনাল সাইকেল র‌্যালি শিরোনামে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি হুগলি থেকে যাত্রা করেন এই মাতৃভাষাপ্রেমীরা। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন হুগলি সিঙ্গুর মহামায়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শৈবাল ব্যানার্জি। তিনি জানান, এই দলে তাঁর সহধর্মিণী, কয়েকজন শিক্ষক, একজন ছাত্র ও বন্ধু রয়েছেন। শৈবাল ব্যানার্জি বলেন, আমরা প্রায় ৫০০ কিলোমিটারের বেশি সাইকেল চালিয়ে এখানে পৌঁছেছি। ২১ ফেব্রুয়ারি আমাদের গৌরব। এই দিনটির কারণে আমরা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পেয়েছি। সেদিন ভাষার মর্যাদার দাবিতে আন্দোলনকারী ছাত্র-জনতার রক্তে রঞ্জিত করেছিল তৎকালীন পাকিস্তানি প্রশাসন। বাংলা ভাষা যেন বিশ্বের এক নম্বর ভাষা হয়ে ওঠে সেই প্রত্যাশা করে তিনি বলেন, ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গসহ সারা বিশ্বের মানুষের সম্মান জানানো উচিত। সেই কারণেই আমাদের এখানে আসা। কাঁটাতারের বেড়া ছাড়া এই দুই বাংলার মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই।##